The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ২ ফাল্গুন ১৪২০, ১৩ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ গোপালগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫, আটক ১১ | ২-০ তে সিরিজ জিতল লঙ্কানরা | লন্ডনে বাংলাদেশি নারী খুন, ছেলে গ্রেফতার | যশোরের অভয়নগরে চৈতন্য হত্যার আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

ভালোবাসা উপযাপনের

নানা দেশে নানা রীতি

পৃথিবীতে যে কয়েকটি শব্দ বিভিন্ন ভাষায় ব্যাপকভাবে প্রচলিত, বহুল ব্যবহূত তার মধ্যে অন্যতম হলো 'ভালোবাসা' শব্দটি। ভালোবাসার মতো এত আকাঙ্ক্ষিত, এত আদরণীয়, এত প্রিয়, এত আবেগপ্রবণ শব্দ মনে করি কমই আছে। সেই কারণেই হয়তো ভালোবাসার দিবসটি সবাই তার প্রিয়জনের সাথে কাটানোর সুযোগটি হারাতে চান না। শুধু আমাদের দেশেই নয়, সারা পৃথিবীর নানা দেশে নানা ভাবে উদযাপন করা হয় এই দিনটি। লিখেছেন প্রাঞ্জল সেলিম

আমরা সবাই ভ্যালেন্টাইন্স ডে পালন করে থাকি কমবেশি। এদিন সারা পৃথিবীর সকল মানুষ নিজ নিজ প্রিয় মানুষের সাথে কিছুটা সময় কাটান। বিভিন্ন ভাবে মানুষ ভ্যালেন্টাইন্স ডে পালন করেন। কেউ ভালোবাসার মানুষকে কথার বানে মুগ্ধ করতে চান আবার কেউ নিজের মনের কথাগুলো কার্ডে লিখে দিতে ভালোবাসেন। সবাই চান নিজ নিজ ভালোবাসার মানুষকে সবচেয়ে সুন্দর ভালোবাসার আবেগে লেখা কার্ডটি দিতে। এছাড়াও ভ্যালেন্টাইন্স ডে'তে ফুল, শুভেচ্ছা, চকলেটসহ অন্যান্য উপহার তো আছেই। উন্নত কিংবা অনুন্নত, কোনো দেশই পিছিয়ে নেই, সবাই এই দিনে প্রিয় মানুষটির সাথে একটু আলাদাভাবে কাটাতে চায়। এ উপলক্ষে বিশ্বের দেশে দেশে নেওয়া হয় ব্যতিক্রমী সব আয়োজন। দিবসটিকে ঘিরে একেক দেশের মানুষের প্রস্তুতিও একেক রকম। রীতি-নীতির মধ্যেও আছে পার্থক্য। 'সায়া সিন টামো', 'আই লাভ ইউ', 'ইস লিবে ডিস' বা 'আমি তোমাকে ভালোবাসি' বলার ধরনও নানা বৈচিত্র্যে ভরপুর। এই দিবসকে কেন্দ্র করে অনেক আগে থেকেই দেশে দেশে চালু আছে বিভিন্ন ধরনের লোককথা। ইতিহাস ঐতিহ্যেরও কমতি নেই।

ব্রিটেন :ভালোবাসা দিবস বা 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে'-এর জন্ম এই ব্রিটেনে চতুর্দশ এবং পঞ্চদশ শতাব্দীতে। তাই ব্রিটেনের উল্লাস একটু বেশিই থাকার কথা। ব্রিটেনে এই দিনটি ব্যাপক আগ্রহ, উত্সাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালিত হয়। অন্যান্য দেশের মতো কার্ড, ই-মেইল ও উপহার সামগ্রীর মাধ্যমে প্রিয়জনকে ভালোবাসার কথা প্রকাশ করলেও ব্রিটিশদের মধ্যে ফুল আদান প্রদানের ঝোঁকটা একটু বেশি দেখা যায়। 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে'কে ঘিরে পদ্য লেখাটাও ব্রিটেনের ঐতিহ্যের অংশ।

আমেরিকা :১৯ শতাব্দীতে ব্রিটিশ অধিবাসী প্রথম উত্তর আমেরিকায় 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে'র ধারণা নিয়ে আসে। ১৮৪৭ খ্রীষ্টাব্দের দিকে 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে' ছড়িয়ে যায় পুরো আমেরিকায়। বিংশ শতাব্দীর শেষভাগে গিফট কার্ড আদান-প্রদানের রীতি এলো। সে সময় কার্ড এবং গোলাপ ছিল ভ্যালেন্টাইনের মূল উপহার। ১৯৮০ খ্রিস্টাব্দের দিকে ডায়মন্ড কোম্পানিগুলো 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে' পালন করা শুরু করে। সেই থেকে জুয়েলারি চলে আসে প্রচলিত গিফটের তালিকায়। 'ভালোবাসা' সবচেয়ে আদিম ইমোশন হলেও ভালোবাসা দিবসটিকে আমেরিকায় চরম বাণিজ্যিকীকরণ করা হয়েছে। দেখা গেছে, ভালোবাসা দিবসে সবচেয়ে বেশি কার্ড ও উপহার বিক্রি হয়।

জাপান :ভালোবাসা দিবসটি যেন শুধু নারীদের জন্য। প্রতি বছর এ দিনটিতে দেশটির নারীরা কাছের মানুষকে নানা ধরনের চকোলেট উপহার দেন। কে কী ধরনের চকোলেট উপহার দেবেন, সেটা নির্ভর করে পরস্পরের সম্পর্কের ওপর। 'গ্রি-চকো' নামের চকোলেট দেয়া হয় অফিসের কর্তাব্যক্তি ও সহকর্মীদের। অন্যদিকে 'হনমেই চকো' নামের চকোলেট শুধু পুরুষ সঙ্গী বা স্বামীকে দেয়া হয়। জাপানি নারীরা প্রেমিক বা স্বামীকে যে চকোলেট দেন, সেগুলো কষ্ট করে নিজেরা তৈরি করেন। এ সময় পুরুষরা সাধারণত কোনো ধরনের উপহার দেন না। ভালোবাসা দিবসের ঠিক এক মাস পর জাপানি পুরুষদের জন্য আসে 'হোয়াইট ডে'। এ দিনে তারা প্রিয় নারীকে ভালোবাসা দিবসে দেয়া উপহারের প্রতিদান দেন।

অস্ট্রেলিয়া :অস্ট্রেলিয়ায় 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে' এখন একটি বিশাল উত্সব। দিন দিন বাড়ছে এর জনপ্রিয়তা। ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়সের তরুণ-তরুণীর প্রায় ৯০ ভাগেরও বেশি এবং ৫০-এরও বেশি বয়সীদের প্রায় ৪৫ ভাগের ভ্যালেন্টাইন উদযাপনের প্রস্তুতি চোখে পড়ার মতো। অস্ট্রেলিয়ানরা এই দিনকে দেখে থাকে পরিবার, বন্ধুবর্গ, সহকর্মী এবং পাড়া-প্রতিবেশীদের সঙ্গে সম্পর্ককে আরও বেশি মজবুত করার দিন হিসেবে।

ইতালি :ইতালিতে 'ভ্যালেন্টাইন্স ডে' বসন্ত উত্সব হিসেবে পালিত হয়। এক সময় খোলা আকাশের নিচে নানা ধরনের অনুষ্ঠান হতো। যুবক-যুবতীরা গান, আবৃত্তি শুনত। এরপর ভালোবাসার মানুষকে নিয়ে বাগানে ঘুরে বেড়াত তারা। কিন্তু কয়েক শতাব্দী ধরে এই ঐতিহ্য হারিয়ে গেছে ইতালিতে। এখন ইতালিতে আমেরিকার মতো ছুটির দিন থাকে। অনেকটা 'হ্যালোইন' আর 'মাদারস ডে'র মতো। উপহারের তালিকায় থাকে চকোলেট, পারফিউম, গোলাপ আর ডায়মন্ড।

কানাডা :কানাডায় ভালোবাসার বিশেষ দিনটি বেশ উত্সাহের সঙ্গে পালিত হয়। সারা দেশে বল ড্যান্স এবং পার্টি থাকে। এদিন প্রিয়জন-প্রিয়জনকে জানায় ভালোবাসার কথা। গোলাপের প্রাধান্য এখানে বেশি। এরপর চকোলেট, কার্ড, ক্যান্ডি তো আছেই। শিশুরা বন্ধুদের সঙ্গে কার্ড বিনিময় করে। নিজের হাতে উপহার বানিয়ে শিক্ষক এবং বাবা-মাকে দেয়। দিনটিকে উদযাপন করতে স্কুলের সিনিয়র সেকশনে থাকে ড্যান্স পার্টি।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, 'উপজেলা নির্বাচনেও ভাগ বাটোয়ারার ষড়যন্ত্র করছে আওয়ামী লীগ।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
3 + 7 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৮
ফজর৪:৫৬
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৫সূর্যাস্ত - ০৫:১০
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: ittefaq.adsection@yahoo.com, সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: ittefaqpressrelease@gmail.com
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :