The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ২ ফাল্গুন ১৪২০, ১৩ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ গোপালগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫, আটক ১১ | ২-০ তে সিরিজ জিতল লঙ্কানরা | লন্ডনে বাংলাদেশি নারী খুন, ছেলে গ্রেফতার | যশোরের অভয়নগরে চৈতন্য হত্যার আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

২০ কিশোরের আত্মহত্যা চেষ্টায় হাইকোর্টের তদন্ত কমিটি গঠন

টঙ্গীর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র

ইত্তেফাক রিপোর্ট

গাজীপুরের টঙ্গীর কিশোর উন্নয়ন কেন্দে র ২০ কিশোরের আত্মহত্যা চেষ্টার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে হাইকোর্ট। সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নেতৃত্বে গঠিত এ কমিটিকে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি এবিএম আলতাফ হোসেনের ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে এই আদেশ দেন। একই সঙ্গে কমিটিকে কিশোর উন্নয়ন কেন্দে র অব্যবস্থাপনার অভিযোগ ও পুলিশ হেফাজতে কফের সিরাপ সেবনের বিষয়টি তদন্ত করতে নির্দেশ দেয় আদালত।

'২০ কিশোরের ভয়ঙ্কর প্রতিবাদ' শিরোনামে গতকাল একটি জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মঙ্গলবার রাতে নিজেদের দেহ ধারালো ব্লেড জাতীয় অস্ত্রে ক্ষত-বিক্ষত করেছে তারা। পরে তাদেরকে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে আনা হয়। তারা চিকিত্সক ও সেবিকাদের বলেছে, ঠিকমতো খাবার না দেয়ায় এবং শারীরিক নির্যাতন করার প্রতিবাদ হিসেবে তারা এ কাজ করেছে। তবে সংশ্লিষ্ট কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ বলছে, এক কিশোরের কফ সিরাপ খাওয়া নিয়ে ঘটনার সূত্রপাত। জানালার বা টিউবলাইটের ভাঙা কাচ দিয়ে তারা শরীর ক্ষত-বিক্ষত করেছে। এই প্রতিবেদনটি গতকাল হাইকোর্টের ওই বেঞ্চের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আসাদুজ্জামান। পরে হাইকোর্ট স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে আদেশ প্রদান ও রুল জারি করে। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এডভোকেট বিশ্বজিত্ রায়।

তিন সদস্যের এ কমিটিতে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে রাখা হয়েছে। অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ ছাড়াও ওই উন্নয়ন কেন্দ্রের অব্যবস্থাপনা বন্ধে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে আদালত। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে সমাজকল্যাণ সচিব, সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার, কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়কসহ সাত বিবাদীকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এদিকে টঙ্গী সংবাদদাতা জানান, টঙ্গী সরকারি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিত্সক মো: রাশেদুজ্জামান জানান, মঙ্গলবার রাতে ২০ জন কিশোরকে মারাত্মক রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। কিশোরদের সারা শরীরের ছিল ক্ষতের দাগ। চিকিত্সার সময় কিশোররা জানান, তারা সময় মত খাবার পায় না, তাদের উপর চলা নিপীড়ন নির্যাতনের প্রতিবাদ স্বরূপ তারা সারা শরীর রক্তাক্ত করেছে।

কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের কম্পাউন্ডার হেলাল উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার রাত সোয়া ১টার দিকে কিশোর কেন্দ্রের নিবাসীদের সরবরাহ করা ওয়ান টাইম রেজারের ব্লেড খুলে ওই কিশোররা তাদের মাথা, হাত-পা ও গলাসহ বিভিন্ন অঙ্গ গভীরভাবে চিঁড়ে ফেলে। এসময় পাশের কক্ষের কিশোররা চিত্কার-চেঁচামেচি শুরু করে।

আহত কিশোর মো. হানিফ (১৪) জানায়, কর্তৃপক্ষ তাদের নিয়মিত খাবার দেয় না। খাবার চাইলে তাদের বেদম মারধর করে। দায়িত্বে থাকা লোকজন প্রায়ই তাদের ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালায় বলে আমরা এই আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছি। এটা আমাদের এক ধরনের প্রতিবাদ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের একজন কর্মী জানান, আহত কিশোররা কেন্দ্রের ভিতরে খাদ্য সংকট ও নির্যাতনের কথা বলেছে। তাদের সাথে পশুর মত আচরণ করা হয় বলেও জানিয়েছে তারা। কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক এসএম আনোয়ারুল করিম খাদ্য সংকট ও নির্যাতনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, এরা বিভিন্ন মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি। তারা খুব খারাপ প্রকৃতির। কফ সিরাপ খেয়ে ও মাদকাসক্ত কিশোররা তাদের চাহিদা অনুযায়ী মাদক না পেয়ে নিজেদের মধ্যে মারামারি করে এ পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, 'উপজেলা নির্বাচনেও ভাগ বাটোয়ারার ষড়যন্ত্র করছে আওয়ামী লীগ।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
9 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
মার্চ - ২১
ফজর৪:৪৬
যোহর১২:০৬
আসর৪:২৯
মাগরিব৬:১৩
এশা৭:২৬
সূর্যোদয় - ৬:০২সূর্যাস্ত - ০৬:০৮
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :