The Daily Ittefaq
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৩, ৭ চৈত্র ১৪১৯, ৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ফুটবল: এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপে মূল পর্বে বাংলাদেশ | রাজধানী হাতিরঝিলে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত | রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের মরদেহ সিএমএইচ হাসপাতালের হিমঘরে | প্রথম জানাযা অনুষ্ঠিত হবে শুক্রবার সকাল ৯টায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবে; দাফন রাজধানীর বনানী কবরস্থানে | বঙ্গভবনে প্রয়াত রাষ্ট্রপতিকে গার্ড অব অনার প্রদান, অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেত্রীসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

ব্যান্ডবাদ্যি

মনোসরণি থেকে

সংগীতের বিচিত্র ঘরানার মাঝে রক মিউজিকের ঘরটি তারুণ্যে ঠাসা। স্বভাবতই এর প্রকাশ ও বিকাশে প্রাধান্য পায় উন্মাদনা। তারুণ্যের এই উন্মাদনায় সম্প্রতি বিস্ফোরিত একটি নাম 'মনোসরণি'। রকের দুনিয়ায় ব্যান্ডটির চলাচলের গল্প নিয়ে লিখেছেন

মুহম্মদ কবীর

এই ব্যান্ডের নামের উেস আছেন কবি জীবনানন্দ দাশ। তার রচিত কবিতার শিরোনাম দলটি মাথায় তুলে নিয়ে রকের দুনিয়ায় নিজেদের পরিচয় দিল মনোসরণি নামে। শুধু নামে নয়, কবিতার সাথে ব্যান্ড দলটির সম্পর্কে রয়েছে নাড়ির টান। ব্যান্ডের দুই সদস্য কবি হিসেবেও বেশ সমাদৃত।

ঘটনার শুরু সেই ২০০৪ সালে। দুই কবি—প্রবর রিপন ও মুয়ীজ মাহফুজ। যাদের পরিচয় কবিতার সূত্রে। কিন্তু তাদের সম্পর্ক বন্ধুত্বে গড়িয়েছিল ছোট কাগজ 'কালনেত্র'র হাত ধরে। তারা তখন কবিতার নেশায় মত্ত। আর এই কবিতার পিঠে ডানা জুড়ে দিতে শুরু করলেন গান। সিদ্ধান্ত নিলেন ব্যান্ড গড়ার। শুরু হলো মনোসরণির যাত্রা। আরও কিছু পরে তাদের পথের সঙ্গী হয়েছিলেন বুয়েটের প্রকৌশল বিভাগের ছাত্র তাসবীহ্ চৌধুরী প্রসূন। এর পরের বছরই তাদের সাথে যুক্ত হলেন একই প্রতিষ্ঠানের স্থাপত্যবিদ্যার ছাত্র বাঁধন। এ চারজন নিয়েই মনোসরণির বর্তমান লাইনআপ।

মনোসরণির প্রথম গানটি প্রকাশ হয় ২০০৮ সালে মিক্সড অ্যালবাম 'বন্ধুতা'য়। গানের শিরোনাম 'জলে আগুন'। গানটি শ্রোতামহলে বেশ সাড়া পায়। এরপর ২০০৯ সালের মাঝামাঝিতে এসে তারা নিজেদের অ্যালবামের কাজ শুরু করেন। এর ৪ বছর পর অর্থাত্ এ বছরই বাজারে আসে তাদের অ্যালবামটি। নাম 'মনোসরণি'। এই অ্যালবামে মোট ১২টি গান রয়েছে। গানগুলো হচ্ছে—'নির্জন অভয়ারণ্য', 'তোমাকে ছাড়া', 'মানুষ না ক্রিতদাস', 'রামপাম', 'জীবন মানেই গড়মিল', 'মাকে লেখা চিঠি', 'মৌন মন্দির', 'আত্মজীবনী', 'জন্মান্ধের কানামাছি', 'হোমসিক', 'তোমাকে খুঁজছি' ও 'সুদর্শন রোবট'। অ্যালবামটি প্রকাশ করেছে বেঙ্গল মিউজিক। অ্যালবামের গানগুলোর কথা লিখেছেন প্রবর রিপন ও মুয়ীজ মাহফুজ। শুধু কথা নয়, গানগুলোতে কণ্ঠও দিয়েছেন তারা। দেশের এই অস্থির পরিস্থিতিতে প্রকাশ হওয়া অ্যালবামটি শ্রোতাদের মনোযোগ পেতে সফল হয়েছে। যা মনোসরণিকে উত্সাহী করেছে দ্বিতীয় অ্যালবামের কাজ শুরু করতে। খুব শিগগিরই এই অ্যালবামটি শ্রোতাদের হাতে তুলে দিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন তারা।

মনোসরণির ইতিহাস খুব একটা মসৃণ নয়। নানারকম প্রতিকূলতার ভেতর দিয়ে যেতে হয়েছে তাদের। বিশেষ করে অর্থনৈতিক সঙ্কটটাই তাদের বেশি ভুগিয়েছে। তবুও থেমে পড়েনি মনোসরণি। এগিয়েছে নিজের সবটুকু ইচ্ছা পূরণের লক্ষ্য নিয়ে। মনোসরণির গানগুলোতে যেন এ সাহসেরই ছোঁয়া পাওয়া যায়। তাদের গানে কথার খোলস ভেঙে উঠে আসে বাস্তবতা। যা শ্রোতাকে নিজের অস্তিত্বের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দেয়, কিন্তু ভয় দেখায় না এতটুকু। আর এ কারণেই হয়তো মনোসরণির প্রথম অ্যালবামটি পরিবেশক প্রতিষ্ঠানের উদাসীনতার পরও শ্রোতানুকূল্য পেতে ব্যর্থ হয়নি বলে জানালেন এর ভোকাল প্রবর রিপন। মনোসরণির বর্তমান ব্যস্ততা সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, 'বিভিন্ন টিভি লাইভ প্রোগ্রাম ছাড়াও বর্তমানে আমরা পরবর্তী অ্যালবামের কাজ নিয়ে ব্যস্ত আছি। আগামী তিন মাসের মধ্যেই দ্বিতীয় অ্যালবামটি শেষ করতে পারব বলে আশা রাখি। এরই মাঝে অ্যালবামের অনেকগুলো গানেরই কাজ শেষ হয়েছে।' এ ছাড়া প্রথম অ্যালবামের গানের মিউজিক ভিডিওর কাজ চলছে বলে জানালেন তারা।

আমরাও তাদের জানিয়ে রাখি, মনোসরণীর এ পাশ থেকে ও পাশ জুড়ে থাকুক গানের কোলাহল—এটাই আমাদের আশা।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
মির্জা ফখরুল বলেছেন নির্যাতন নিপীড়ন আওয়ামী লীগের চিরন্তন বৈশিষ্ট্য, তারা বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। তার এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি একমত?
8 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৬
ফজর৫:১২
যোহর১১:৫৪
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩৫
সূর্যোদয় - ৬:৩৩সূর্যাস্ত - ০৫:১২
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :