The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০১৩, ৩০ চৈত্র ১৪১৯, ১ জমাদিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ৬০ কি:মি: জুড়ে যানজট | বুয়েট শিক্ষার্থীর ওপর হামলার ঘটনায় ক্যাম্পাসে তালা দিয়ে বিক্ষোভ করছে শিক্ষার্থীরা | ব্লগারদের মুক্তির দাবিতে ঢাবি উপাচার্যের কার্যালয় ঘেরাও | 'টিআইবিকে অভিনন্দন, তবে আলোচনার পরিবেশ নেই: খন্দকার মোশাররফ | নতুন নতুন 'ফর্মুলা' জটিলতা সৃষ্টি করবে: প্রধানমন্ত্রী | টিআইবি'র প্রস্তাবে প্রধান দুই দলের ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া | বিকাল ৫ টার পর রমনা পার্কে না থাকার নির্দেশ ডিএমপির | বিকাল ৫ টার পর রমনা পার্কে না থাকার নির্দেশ ডিএমপির | হানিফের বাসার সামনে ককটেল বিস্ফোরণ | ঢাবিতে চৈত্র সংক্রান্তি উত্সব উপলক্ষে শোভাযাত্রা

লুপ্তপ্রায় পারিজাত

মাদারগঞ্জ (জামালপুর) সংবাদদাতা

এককালের গ্রাম বাংলায় অতিপরি-চিতি মান্দার বা পারিজাত ফুলগাছ প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গেছে। জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জসহ সারাদেশে এই অতিপরিচিত ফুলগাছটি কৃষকরা জমির সীমানা খুঁটি ও বাড়ির সীমানা খুঁটি হিসাবে ব্যবহার করতো। কিন্তু প্রায় এক যুগ ধরে এই গাছ প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গেছে।

সারা বছর গাছটি মরাগাছের মতো থাকলেও বসন্ত কালে তার শোভা সকলের নজর কাড়ে। এই ফুলকে অনেকে পলাশ বলে ভুল করে থাকেন। অনেকে বুনো পলাশ নামেও ডেকে থাকেন। কিন্তু রবীন্দ্রনাথ তার গানে মান্দার বা পারিজাতকে নিয়ে লিখেছেন, 'পারিজাতের কেশর নিয়ে/ ধরায় শশী ছাড়ায় কি এ/ ইন্দ্রপুরীর কোন রমণী/ বাসর-প্রদীপ জ্বালো.. ও রজনীগন্ধা তোমার গন্ধসুধা ঢালো ।

আঞ্চলিক শব্দে মান্দার বা মাদারফুল বসন্তকে জানান দেয়। আসছে বসন্ত গাছে গাছে লাল নীল রংয়ের নানা ফুল, মাতাল হাওয়ার পাগলকরা সুবাসিত বাতাস। কোন গন্ধ নেই এই ফুলে, লাল পাপড়ির পাশে কেশর দুলিয়ে ফুটে। সারা বছর গাছটি ঘুমিয়ে থাকে। ফাল্গুন-চৈত্র মাসে আগুন হয়ে জেগে উঠে। অযত্নে বেড়ে ওঠা এই গাছটি হলো পারিজাত। এই সাধারণ মান্দার গাছটি চিনলেও এই গাছ যে পারিজাত তা অনেকেরই জানা নেই। গায়ে কাঁটা থাকে, পত্রমোচী, বসন্তে ফুল ফোটে। মঞ্জুরিতে অনেক ফুল থাকে। গাছের গায়ে কাঁটা থাকে একটু বয়স হলে কাটা ঝরে যায়। ডালপালায় ফাল্গুন এলে রং ধারণ করে। সারা শরীরে লাল টকটকে ফুল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। তাই রবীন্দ্রনাথ বলেছেন,

''ফাগুন হাওয়ায় রঙে রঙে

পাগল ঝোরা লুকিয়ে ঝরে

গোলাপ জবা পারুল পলাশ

পারিজাতের বুকের পরে।'' মান্দার স্বর্গের ফুল। মর্ত্যের রাজা শ্রীকৃষ্ণ স্বর্গের রাজা ইন্দ্রের কাছ থেকে অনেকটা জোর করে মর্ত্যের বাগানে এই ফুল নিয়ে আসেন। এই পারিজাত বা মান্দার ফুল নিয়ে একটি উপাখ্যান রয়েছে: কৃষ্ণের দুই স্ত্রী সত্যভামা ও রুক্সিণীর খুব ইচ্ছে তাদের বাগানও পারিজাতের ঘ্রাণে আমোদিত হোক। কিন্তু পারিজাত তো স্বর্গের শোভার! কৃষ্ণ স্ত্রীদের খুশি করতে চান। তাই লুকিয়ে স্বর্গের পারিজাত বৃক্ষ থেকে একটি ডাল ভেঙ্গে এনে সত্যভামার বাগানে রোপণ করেন, যার ফুল রক্সিণীর বাগানেও ঝরে পড়ে, সুগন্ধ ছড়ায়। এদিকে স্বর্গের রাজা ইন্দ্র তো ঘটনাটা জেনে খুব রেগে যান। তিনি বিষ্ণু অবতারের উপর ক্রুদ্ধ ছিলেন। এই কারণে তিনি কৃষ্ণকে শাপ দেন কৃষ্ণের বাগানের পারিজাত বৃক্ষ ফুল দেবে ঠিকই কিন্তু ফল কোনদিন আসবে না, তার বীজে কখনও প্রাণের সঞ্চার হবে না।

সারাদেশে এই পারিজাত ফুলের গাছ দেখা যায়। গ্রামাঞ্চলে কৃষকরা জমির আইলে সীমানা খুঁটি এবং বাড়ির বেড়ার জন্য এই গাছ লাগিয়ে থাকে। কোনরকম পরিচর্যা ছাড়াই এই গাছে দ্রুত বৃদ্ধিপায়। বসন্ত এলে প্রাণখুলে দেখিয়ে দেয় লাল টুকটুকে ফুলের বাহার। পরিবেশের প্রভাবে ও যত্নের অভাবে দিনে দিনে এই গাছ গ্রাম বাংলা থেকে হারিয়ে যাচ্ছে। এই দেশি ফুলগাছ রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিজিএমইএ প্রেসিডেন্ট বলেছেন গার্মেন্টস খাতকে 'হত্যা' করবেন না। তার এই বক্তব্য যৌক্তিক মনে করেন?
8 + 4 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৮
ফজর৫:১৩
যোহর১১:৫৫
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৮
এশা৬:৩৬
সূর্যোদয় - ৬:৩৪সূর্যাস্ত - ০৫:১৩
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :