The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার, ৪ মে ২০১৩, ২১ বৈশাখ ১৪২০, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নির্দলীয় সরকার ঘোষণা দেয়ার আল্টিমেটাম : মতিঝিলে ১৮ দলের সমাবেশে খালেদা জিয়া | প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অন্তসারশূন্য, অবরোধ হবেই: হেফাজত | দয়া করে আর মানুষ হত্যা করবেন না: খালেদা জিয়ার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী

'দৈনিক ৫৫ টাকা মজুরিতে ১ জনেরই চলে না, পরিবার তো দূরের কথা'

কমলগঞ্জে চা শ্রমিকদের দু:খ-দুর্দশা

নূরুল মোহাইমীন মিল্টন, কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার)

'চালের কেজি ৩৫ টাকা, আর আমাদের একজন শ্রমিকের দিন মজুরি মাত্র ৫৫ টাকা। এই ৫৫ টাকা দিয়ে একজনেরই তো তিন বেলা চলে না। রবিবার বাগানে ছুটি থাকে, ঐ দিনের মজুরি দেয়া হয় না। ৬ দিনে ৩৩০ টাকা পাই। এই টাকা দিয়ে দুই দিনও চলা যায় না। তিন সন্তান আর বেকার স্বামী-শ্বশুর নিয়ে ছয় জনের সংসার কিভাবে চলবে। কথাগুলো বলছিলেন ডানকান ব্রাদার্স শমশেরনগরের দেওছড়া চা বাগানের মহিলা শ্রমিক গীতা রবিদাস। গীতা রবিদাসের স্বামী দেওরাজ রবিদাস বলেন, গ্রামে কাজ করে খুব কষ্ট করে সংসার চালাই। বাগানে একটা নামের জন্য দরখাস্ত দিলাম, কিন্তু সাব (ম্যানেজার) নাম দিল না। সরেজমিনে চা বাগান ঘুরে শ্রমিকদের সাথে আলাপকালে ৫৫ টাকা মজুরিতে কর্মরত এধরনের সমস্যা জর্জরিত অসংখ্য শ্রমিকরা তাদের ক্ষোভের কথা জানান।

জানা যায়, ২০০৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর চা শ্রমিকদের মজুরি ৩২.৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে সর্বোচ্চ ৪৮ টাকা ধার্য করা হয়। প্রতি দুই বছর অন্তর চা শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত মোতাবেক ২০১১ সালের ১ সেপ্টেম্বর ৭ টাকা বৃদ্ধি করে ৫৫ টাকায় উন্নীত করা হয়। বর্তমান দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে দৈনিক ৫৫ টাকায় পরিবার নিয়ে সংসার পরিচালনা করা সম্ভব নয় বলে চা শ্রমিকরা অভিযোগ তুলেছেন। চা শ্রমিকদের মজুরি ৩শ' টাকা করার দাবিতে চা শ্রমিক সংঘ আন্দোলন শুরু করলেও চা শ্রমিক ইউনিয়নের দু'টি পক্ষ নির্বাচিত কমিটি ১২০ টাকা আর এডহক কমিটি ১৫০ টাকা নির্ধারণ করে মালিক পক্ষের কাছে দু'বছর পূর্বেই দাবিনামা পেশ করেছিল। তবে শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া আদায়ের চেয়ে চা শ্রমিক ইউনিয়নের ওই দু'পক্ষই ক্ষমতা গ্রহণে তত্পর রয়েছে।

শ্রমিকদের অভিযোগ (শমশেরনগর বাগানের শ্রীপ্রসাদ গৌড়, অনুরোধ রবিদাস, মৃত্তিঙ্গা চা বাগানের আরতি গোয়ালা, মন্নান মিয়া, আলীনগর চা বাগানের মংরা রউতিয়া, সুনছড়া বাগানের সুখরাম নায়েক, লংলা বাগানের শিশু লাল লোহার, নয়াপাড়া বাগানের নারায়ণ কর্মকার) ইউনিয়নের বুনার্জি গ্রুপ ও মাখন-ভজন গ্রুপ উভয় পক্ষই দায়িত্ব নিয়ে নিজেদের স্বার্থটাই পাকাপোক্ত করতে চান। চা শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির বিষয়ে ভাবার চাইতে শ্রমিকদের নিকট হতে প্রতি মাসে ১০ টাকা করে চাঁদা আদায় করতেই তারা বেশি ব্যস্ত থাকেন। শ্রমিকরা আরও অভিযোগ করেন, ইউনিয়নের নেতারা মালিক পক্ষের সাথে দুই বছর অন্তর অন্তর মাত্র ১/২ টাকা বৃদ্ধি করে চুক্তি করতেন। জরুরি অবস্থার সময় ২০০৮ সালের ১৮ ও ১৯ জুলাই ২২টি চা বাগানের শ্রমিকরা ১০৪ টাকা দৈনিক মজুরিসহ ৭ দফা দাবিতে আন্দোলন করেন। এই আন্দোলনের সময়ও ইউনিয়নের উভয় পক্ষের কোন ভূমিকা পরিলক্ষিত হয়নি। চা শ্রমিকরা বলেন, জরুরি সময়ের আন্দোলনের ফলেই মূলত শ্রমিকদের মজুরি দৈনিক ৩২.৫০ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৪৮ টাকা এবং সর্বশেষ দৈনিক ৫৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়। এদিকে ২০১১ সালের ২৩ জুলাই শ্রম ও কর্মসংস্থাপন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন শ্রীমঙ্গল সফরকালে চা শ্রমিকদের মজুরি দৈনিক ১৫০ টাকা করা হবে বলে জানিয়েছিলেন। কিন্তু মন্ত্রীর ঘোষণার দুই বছরেও চা শ্রমিকদের মজুরি দু'দফায় মাত্র ৫৫ টাকা বৃদ্ধিতে সাধারণ শ্রমিকদের মধ্যে অসন্তোষ ও হতাশা দেখা দিয়েছে।

বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাস বলেন, বর্তমান দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বাজারে ৫ সদস্যের একটি চা শ্রমিক পরিবারের দৈনিক ৩০০ টাকা হিসাবে মজুরি নির্ধারণ করা উচিত। তাই প্রয়োজনে মজুরি বৃদ্ধির জন্য আবারও শ্রমিকদের আন্দোলন করতে হবে। চা শ্রমিক ইউনিয়ন নির্বাচিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাম ভজন কৈরী বলেন, তারা ইতিপূর্বে চা শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি ১২০ টাকা উল্লেখ করে মালিক পক্ষের কাছে ২০ দফা দাবিনামা পেশ করেছিলেন। কিন্তু এখন মজুরির পরিমাণ আরও বাড়াতে হবে। লেবার হাউসের দায়িত্বে নিয়োজিত এডহক কমিটির সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, তাদের পক্ষেও দু'বছর আগে চা শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি ১৫০ টাকা নির্ধারণ করে মালিক পক্ষের কাছে ১৮ দফা দাবিনামা পেশ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মালিক পক্ষের প্রতিনিধি স্থানীয় চা বাগান ব্যবস্থাপকদের কাছে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ব্যবস্থাপকরা বলেন, এই বিষয়টি সরকার, মালিকপক্ষ এবং শ্রমিক পক্ষের বিষয়। যৌথ বৈঠকের মাধ্যমে সমঝোতা সম্ভব।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি বলেছে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নিলে প্রধানমন্ত্রীর আলোচনায় বসার আহ্বানে সাড়া দেবে। দলটির এই সিদ্ধান্ত যৌক্তিক বলে মনে করেন?
6 + 6 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জানুয়ারী - ২০
ফজর৫:২৩
যোহর১২:১০
আসর৪:০১
মাগরিব৫:৪০
এশা৬:৫৬
সূর্যোদয় - ৬:৪২সূর্যাস্ত - ০৫:৩৫
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :