The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ৮ মে ২০১৩, ২৫ বৈশাখ ১৪২০, ২৬ জমাদিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ বন্ধে আলোচনা চায় যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া | ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতল স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে | সাভারে ভবন ধস: মৃতের সংখ্যা ৮০০ ছাড়াল | বৃহস্পতিবার এসএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ | বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষা ৩১ মে, ১২ মে'র পরীক্ষা ১ জুন | অভিযান সম্পর্কে সরকারে ভাষ্য চায় বিএনপি: দুদু | মতিঝিল অভিযানে যদি দুই-তিন হাজার মানুষ মারা যায়, তাদের স্বজনরা কোথায়: ডিএমপি কমিশনার | জামায়াত নেতা কামারুজ্জামানের রায় বৃহস্পতিবার | বড় ধরনের সহিংসতা ছাড়াই ১৮ দলের প্রথম দিনের হরতাল পালন

আলতাদীঘি জাতীয় উদ্যান

পর্যটনে নতুন সম্ভাবনা

আব্দুল্লাহ হেল বাকী, ধামইরহাট (নওগাঁ) সংবাদদাতা

নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় একটি দিঘীকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে সুবিশাল বনভূমি। শালবন এবং বিভিন্ন প্রজাতির উদ্ভিদে পরিপূর্ণ ২৬৪ হেক্টর জমির এই বনভূমির ঠিক মাঝখানেই রয়েছে প্রায় ৪৩ একর আয়তনের একটি বিশাল দিঘী, যা 'আলতাদিঘী' নামে পরিচিত। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় ২০১১ সালে একে 'আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যান' হিসাবে ঘোষণা করেছে। সম্প্রতি এই উদ্যানটির উন্নয়নে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকার একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। যা মন্ত্রণালয়ে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে দেশের পর্যটন শিল্পে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে বলে এলাকাবাসীর ধারণা। যথাযথ সংস্কার ও আধুনিকায়ন করা হলে উদ্যানটি জীববৈচিত্র্য ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে জানিয়েছেন পরিবেশবিদরা।

কথিত আছে, আনুমানিক ১৪০০ সালে এ অঞ্চলে রাজা বিশ্বনাথ জগদল রাজত্ব করতেন। আবহমান কাল থেকেই রুক্ষ এই বরেন্দ অঞ্চলে পানির অভাব ছিল এবং রাজা বিশ্বনাথের রাজত্বকালে এই পানির অভাব প্রকট হয়। মাঠ ঘাট শুকিয়ে চৌচির হওয়ায় আবাদি জমিতে ফসল ফলানোও অসম্ভব হয়ে পড়ে। হঠাত্ একদিন রাণী স্বপ্নে দেখলেন, পানি সমস্যা সমাধানে এলাকায় একটি দিঘী খনন করতে হবে। সে অনুযায়ী রাণী রাজাকে বললেন, যতক্ষণ পর্যন্ত না পা ফেটে রক্ত বের হবে ততক্ষণ তিনি হাঁটতে থাকবেন এবং যেখানে গিয়ে পা ফেটে রক্ত বের হবে ততদূর পর্যন্ত একটি দিঘী খনন করে দিতে হবে। পাইক পেয়াদা, লোক লস্করসহ রাণী হাঁটা শুরু করলেন। অনেক দূর হাঁটার পর রাণী যখন থামছিলেন না, তখন পাইক-পেয়াদারা ভাবলেন এত বড় দিঘী খনন করা রাজার পক্ষে সম্ভব হবে না, সে কারণে তাদের একজন রাণীর পায়ে আলতা ঢেলে দিয়ে চিত্কার করে বললেন, রাণী মা আপনার পা ফেটে রক্ত বের হচ্ছে। একথা শুনে রাণী সেখানেই বসে পড়লেন। রাজা বিশ্বনাথ ওই স্থান পর্যন্ত একটি দিঘী খনন করে দিলেন। এরপর অলৌকিকভাবে মুহূর্তেই বিশুদ্ধ পানিতে ভরে ওঠে দিঘী। রাণীর পায়ে আলতা ঢেলে দেয়ার প্রেক্ষিতে দিঘীটির নামকরণ করা হয় আলতাদিঘী। দিঘীটির দৈর্ঘ্য ১.২০ কিলোমিটার এবং প্রস্থ ০.২০ কিলোমিটার।

বন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, জীববৈচিত্র্য রক্ষা, পরিবেশের উন্নয়ন এবং পর্যটকদের আকর্ষিত করার লক্ষ্যে শিগগিরই আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যানের উন্নয়ন কাজ শুরু করা হবে। 'স্ট্রেদেনিং রিজিওনাল কোঅপারেশন ফর ওয়াইল্ড লাইফ প্রটেকশন' প্রকল্পের অধীনে বিশ্বব্যাংক এ জন্য আর্থিক সহায়তা দেবে।

রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা অজিত কুমার রুদ্র জানান, এ ব্যাপারে তিন কোটি ৫১ লাখ ৭৬ হাজার টাকার একটি উন্নয়ন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। উন্নয়ন পরিকল্পনা অনুযায়ী এখানে একটি পশু চিকিত্সা কেন্দ নির্মাণ করা হবে। বন্য প্রাণী ও উদ্যান তদারকির জন্য নির্মিত হবে চারটি অবজারভেশন টাওয়ার। পর্যটকদের সুবিধার্থে ১০টি সাইনবোর্ড, একটি গাইড ম্যাপ, চারটি ছাতা শেড, ১০টি কাঠের তৈরি বসার বেঞ্চ, একটি পার্কিং এলাকা এবং ১০টি আরসিসি বসার বেঞ্চ নির্মাণ করা হবে। এ ছাড়া উদ্যানের পরিধি বাড়াতে পাঁচ হাজার দুর্লভ প্রজাতির চারা রোপণ করা হবে। উন্নয়ন পরিকল্পনাটি বাস্তবায়িত হলে আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যান একটি আদর্শ বিনোদন কেন্দে পরিণত হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। এদিকে আলতাদিঘী জাতীয় উদ্যানের উন্নয়ন কর্মসূচি দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
হেফাজতের বিরুদ্ধে অভিযানে হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেছে আওয়ামী লীগ। দলটির এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?
5 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৬
ফজর৫:১২
যোহর১১:৫৪
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩৫
সূর্যোদয় - ৬:৩৩সূর্যাস্ত - ০৫:১২
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :