The Daily Ittefaq
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৩, ১৭ পৌষ ১৪২০, ২৭ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এম মোরশেদ খানের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা | ৩ জানুয়ারি জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মনের কথা ও একজন নিশানাথ

নিশানাথ বাবু সাইনাসের সমস্যায় এক্স-রে করিতে গিয়া মহাবিপদে পড়েন। এক্স-রে যন্ত্রের ম্যালফাংশনের কারণে স্বাভাবিক মাত্রা হইতে অতিবিপজ্জনক মাত্রায় রেডিয়েশন ঢুকিয়া যায় তাহার মাথায়। ডাক্তার ভয় পাইয়া ভাবিলেন, নিশানাথ বাবু মারা গিয়াছেন নিশ্চয়ই। অবশ্য নিশানাথ বাবু বাঁচিয়া যান। বিপজ্জনক রেডিয়েশনের প্রতিক্রিয়ায় রাতারাতি তাহার সকল চুল ও দাঁত ঝরিয়া পড়ে শুধু। আর, আরও একটি বিস্ময়কর ঘটনা ঘটে। তিনি মাইন্ড রিডার হইয়া যান। সকলের মস্তিষ্কের মধ্যে তিনি অতিন্দ্রীয় ক্ষমতায় ঢুকিয়া পড়িতে পারেন, জানিতে পারেন অন্যের মনের কথা! হুমায়ূন আহমেদ তাঁহার 'কুহক' উপন্যাসে এইভাবে একজন 'মাইন্ড রিডার' সৃষ্টি করিয়াছিলেন। ইহা কল্পকাহিনী। কিন্তু যদি সত্যিই এমন যন্ত্র আবিষ্কার হয়—যাহা মানুষের মনের কথা পড়িতে পারিবে গড়গড় করিয়া—তবে তাহা কি মানুষের জন্য সুখের হইবে, নাকি সৃষ্টি করিবে অভিঘাত?

বিজ্ঞানের বিবর্তন বলিতেছে, অদূর বা দূর ভবিষ্যতে এইরূপ দিন নিশ্চয়ই আসিবে যখন কাহারো মনের গোপন কথা জানিতে প্রশ্নের পর প্রশ্ন করিবার দরকার হইবে না, টর্চার সেলে লইবার প্রয়োজন হইবে না। মস্তিষ্কের অতি জটিল ও অসীম নিউরণের সাগর সেচিয়া মনের গোপন কথার মুক্তাখানি ঠিকঠাক আবিষ্কার করিয়া লইবে বিজ্ঞানের নিখুঁত মাইন্ড রিডিং যন্ত্রখানি। সেই যন্ত্রের আদিরূপ আমরা বোধহয় এখনই দেখিতে যাইতেছি। সমপ্রতি মার্কিন গবেষকেরা উদ্ভাবন করিয়াছিলেন কাজের প্রতি মনোযোগের মাত্রা নির্ণয়ের একটি বিশেষ মাইন্ড রিডিং যন্ত্র। যন্ত্রটি মানুষের মনের অর্থাত্ মস্তিষ্কের ভাবনার গতিবিধি ও অবস্থা সম্পর্কে তথ্য প্রদান করিতে পারিবে; বলিতে পারিবে ওই ব্যক্তি ভেতরে ভেতের অতি বিরক্ত হইয়া আছেন কিনা, কিংবা অতিরিক্ত কাজের ধকলে মনোযোগ হারাইয়াছেন কিনা।

মনের কথার বিবিধ অতিলৌকিক বিদ্যাচর্চা আমাদের অবিদিত নহে। সেই সকল তত্ত্বের বিবিধ পারিভাষিক নামও রহিয়াছে। টেলিপ্যাথি বা থট রিডিং কিংবা ইমোশন রিডিং লইয়া সাহিত্য রচিত হইয়াছে অপ্রতুল। প্যারাসাইকোলজিতে এক্সট্রাসেন্সরি পারসেপশন (ইএসপি) বা অতিন্দ্রীয় উপলব্ধি লইয়াও ফ্যান্টাসি সাহিত্যের অভাব নাই। কথা হইল, এইরূপ মাইন্ড রিডিং যন্ত্র আবিষ্কার সম্ভবপর হইলে তাহা কি সমগ্র মানবজাতির জীবনকে পানসে করিয়া তুলিবে না? জীবনখেলার তিন তাসের গোপনীয়তা যদি আর গোপন না থাকে, তবে মানুষ কি নিজের কাছেই অসহায় হইয়া যাইবে না? 'একটি চাউনি' গল্পে (রবীন্দ্রনাথের লিপিকা) যেমন গাড়িতে উঠিবার সময় একটুখানি মুখ ফিরিয়া বধূটি তাহার শেষ চাউনিটি দিয়া গিয়াছে, বিদায়ক্ষণে সেই চাহনি তোলপাড় সৃষ্টি করিয়াছে স্বামীর মনে। সেই সময় সম্মুখে মাইন্ড রিডিং যন্ত্র থাকিলে হয়তো বধূটির হূদয়ের একই খবর মিলিত; কিন্তু তত্ত্বীয়ভাবে ভিন্ন রূপ পাওয়া যাইবে না, তাহা কি নিশ্চিত করিয়া বলা যায়? আর চাহনির অন্তরালে বধূটির মনের ভিন্ন কথা যদি জানা যাইত তবে তাহা কি সুখের হইত বর বা বধূর জন্য? মনোবিজ্ঞান বলে, 'গোপন কথাটি রহিবে গোপনে'—মনের ভেতরে এই নিশ্চয়তা থাকে বলেই আমরা স্বস্তিতে থাকি। ইহা ঘর কিংবা বিশ্ব সংসার—সকল ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। এই কারণেই বিশ্বজুড়িয়া তোলপাড় হয় টেলিফোনে আড়ি পাতিবার ঘটনা। এই কারণেই ভিন্ন ভিন্ন পক্ষের কাছে মহানায়ক কিংবা খলনায়ক হইয়া যান অ্যাসেঞ্জ কিংবা স্নোডেন।

নিশানাথ দেখিয়াছিলেন, প্রতিটি মানুষের মাথায় রহিয়াছে ভিন্ন ভিন্ন কুয়া। সেই গহীন কূপের দেয়ালে থরে থরে সাজানো ওই মানুষটির স্মৃতি, জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা। কূপের গহীন হইতে উত্সারিত হয় মানুষের চিন্তা, কল্পনা ও ভাবনা। মানুষ ভেদে কাহারও কূপের দেয়াল অন্ধকারময়, তাহার মধ্যে ঢুকিলে নিশানাথের নি:শ্বাস বন্ধ হইবার উপক্রম হয়। আবার কাহারও দেয়াল আলো ঝলমলে, মন ভালো করে দেয়। আমাদের সমকালীন নানা সঙ্কটে সংশয়ে অনিশ্চয়তায় একজন নিশানাথ যদি বলিয়া দিতে পারিত—কাহাদের মাথার ভেতর আঁধারের বেসাতি, আর কাহারা আলো হাতে চলিতে চাহিতেছে! তাহা হইলে জাতি হয়তো নানা সময়ের বিবিধ অরাজকতা ও রক্তা-রক্তি হইতে মুক্তি পাইবার সিদ্ধান্ত লইতে পারিত সহজে।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, 'বিরোধীদল সরকারের বিরুদ্ধে নয়, জনগণের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
4 + 9 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
মার্চ - ২১
ফজর৪:৪৬
যোহর১২:০৬
আসর৪:২৯
মাগরিব৬:১৩
এশা৭:২৬
সূর্যোদয় - ৬:০২সূর্যাস্ত - ০৬:০৮
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :