The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৩, ১১ পৌষ ১৪২০, ২১ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিদায় নিচ্ছেন ক্যালিস | বাগদাদে চার্চের সন্নিকটে গাড়িবোমা বিস্ফোরণ, নিহত ১৫ | কাল সারাদেশে ১৮ দলের বিক্ষোভ সমাবেশ | রাজধানীতে পেট্রোল বোমায় দগ্ধ হয়ে পুলিশের মৃত্যু | আগুনে প্রাণ গেল আরও দুই পরিবহন শ্রমিকের

বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপে নিরাপত্তা

কলম্বো বৈঠকের আগেই নিশ্চয়তা চায় বিসিবি

স্পোর্টস রিপোর্টার

ব্যাপারটা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল হকই মনে করিয়ে দিয়েছিলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট মহলকে আশ্বস্ত করতে বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলো চাইলে আরেকবার যৌথ বিবৃতি দিতে পারে। বিশ্বকাপ, এশিয়া কাপ এবং শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফরের সময়ে নিরাপত্তা পরিস্থিতি ভালো থাকবে, এই বার্তা সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে পৌঁছে দিতে এবার সেই বিবৃতি পাওয়ারই চেষ্টা শুরু করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

গতকাল মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে বিসিবি অফিসে বসেই এই ব্যাপারটি নিশ্চিত করলেন বোর্ডের ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি বললেন, বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এতোদিন গণমাধ্যমে সব দলের কাছে এই আবেদন জানালেও এবার আনুষ্ঠানিকভাবে দু' দলের কাছে আবেদনটা জানাবেন। তারা চেষ্টা করবেন ৪ জানুয়ারি কলম্বোতে অনুষ্ঠেয় এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সভার আগেই দলগুলোর কাছ থেকে একটা বিবৃতি পেতে।

গত কয়েক মাস ধরেই বাংলাদেশে চলছে রাজনৈতিক সহিংসতা। নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরে এর সরাসরি প্রভাব না পড়লেও চট্টগ্রামে অবস্থানরত ওয়েস্ট ইন্ডিজ যুব দল এই সহিংসতার কারণে সফর বাতিল করলেই শুরু হয় আসলে তোলপাড়। আগে থেকেই এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপের বিকল্প ভেন্যু নিয়ে গুঞ্জন থাকার পর সে সময় বেশ জোরেসোরে ব্যাপারটি আলোচনা শুরু হয়। এর সঙ্গে আবার পাকিস্তানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্কের অবনতি পুরো ব্যাপারটির পালে হাওয়া দেয়।

এ অবস্থায় বিশ্লেষকরা মনে করছেন জানুয়ারির প্রথম দিকেই পরিস্থিতি দেখে এসিসি ও আইসিসি যথাক্রমে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলবে। দৈনিক ইত্তেফাকেই এসিসি সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল হক বলেন, তারা বাংলাদেশেই এশিয়া কাপ আয়োজনের পক্ষে হলেও ৪ জানুয়ারির সভাই আসলে করণীয় ঠিক করবে। অন্যদিকে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম গতকালও সূত্র থেকে পাওয়া খবর বলে লিখেছে যে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য কলকাতা ও রাচিকে স্ট্যান্ড বাই রাখা হয়েছে! এ অবস্থায় বিসিবির একমাত্র করণীয় হচ্ছে সব দলের কাছ থেকে, বিশেষ করে সরকারি দল ও বিরোধী দলের কাছ থেকে এই গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেট আয়োজনগুলোর সময়টায় রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকার প্রতিশ্রতি নেয়া। সুজন বললেন, সেই চেষ্টাই করছেন তারা, 'আপনারা জানেন, গত কয়েকদিন আগেই বিভিন্ন গণমাধ্যমের মাধ্যমে মাননীয় বোর্ড সভাপতি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কাছে আবেদন জানিয়েছেন যে, আমাদের সামনে যেসব গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট আছে, সেগুলো নির্বিঘ্নে আয়োজনের জন্য আমরা তাদের সহযোগিতা চাই। সামনে শ্রীলঙ্কার বাংলাদেশ সফর আছে, এশিয়া কাপ আছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আছে, এখনই বিজয় দিবস টি-টোয়েন্টি চলছে; এগুলো যাতে নির্বিঘ্নে হতে পারে, সে জন্যই বোর্ড সভাপতি আবেদন করেছেন, এসব আয়োজন ও ক্রিকেট কার্যক্রমকে সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের বাইরে রাখার আবেদন করা হয়েছে।'

সুজন পরিষ্কার করে বলে দিলেন যে, তারা এসিসির কলম্বো বৈঠকের আগেই এই প্রতিশ্রুতি পেতে চান। সে ক্ষেত্রে এই বৈঠকে নেতিবাচক কোনো সিদ্ধান্ত আসার সম্ভাবনাটা কমে যাবে, 'আমাদের চেষ্টা হচ্ছে, যতদ্রুত সম্ভব আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে দলগুলোর কাছে এই আবেদন জানাবো। আপনারা জানেন যে, জানুয়ারিতেই এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল, দুই সংস্থারই এ বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক আছে। এসিসি সম্ভবত শ্রীলঙ্কায় ৪ তারিখে মিটিং করবে। আমরা চেষ্টা করবো, তার আগেই রাজনৈতিক দলগুলোর কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক একটা বিবৃতি এ বিষয়ে পেতে। যাতে তারা বলবেন যে, ক্রিকেটকে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের বাইরে রাখা হবে।'

সবকিছুর পর আবারও বিসিবির পক্ষ থেকে সুজন সবাইকে বারবার নিশ্চিত করলেন যে, এই আয়োজনগুলোর সময়ে সর্বোচ্চ নিরাপত্তাই নিশ্চিত করবে সরকার। এই তথ্যটা তারা অংশগ্রহণকারী সবাইকে জানিয়েছেন বলে দাবি করেছেন সুজন, 'নিরাপত্তার ব্যাপারে চূড়ান্ত বলে কিছু নেই। পরিস্থিতি অনুযায়ী নিরাপত্তা বাড়ানো হবে। আসলে পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে সে অনুযায়ী সবসময় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়ে থাকে। আমরা ইতিমধ্যে দলগুলোকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। এ ব্যাপারে আমরা সরকারের কাছ থেকে প্রতিশ্রুতি পেয়েই দলগুলোকে এই নিশ্চয়তা দিয়েছি। সরকার বলেছেন, এই আয়োজনগুলো সফলভাবে করতে যা যা দরকার তারা সেই সহযোগিতা দেবেন।'

আর দেশে এই নিরপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ, সে অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ; এ সবকিছুই আইসিসির হোস্ট অফিসের সঙ্গে সমন্বয় করেই করা হচ্ছে বলে বলেছেন বিসিবি প্রধান নির্বাহী, 'আইসিসির ঢাকা অফিসের সঙ্গে আমরা সমন্বয় করেই কাজ করছি। আমরা সব বিভাগের সঙ্গে সমন্বয় করেই কাজ করবো। এটা একটা যৌথ প্রক্রিয়া।' শেষ পর্যন্ত এই যৌথ প্রক্রিয়ার ফল বাংলাদেশের পক্ষে এলেই সুখবর।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, 'সরকারের অনড় অবস্থানের কারণে সঙ্কটের সমাধান হয়নি।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
4 + 7 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ২৩
ফজর৪:৫৯
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৮সূর্যাস্ত - ০৫:১০
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :