The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৩, ১১ পৌষ ১৪২০, ২১ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিদায় নিচ্ছেন ক্যালিস | বাগদাদে চার্চের সন্নিকটে গাড়িবোমা বিস্ফোরণ, নিহত ১৫ | কাল সারাদেশে ১৮ দলের বিক্ষোভ সমাবেশ | রাজধানীতে পেট্রোল বোমায় দগ্ধ হয়ে পুলিশের মৃত্যু | আগুনে প্রাণ গেল আরও দুই পরিবহন শ্রমিকের

মির্জাপুর পৌরসভার উন্নয়ন কাজে অনিয়মের অভিযোগ

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা

মির্জাপুর পৌরসভার উন্নয়ন কাজে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। টেন্ডারের নামে এখানে চলছে প্রহসন। পৌরসভার দালাল চক্র ও একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আঁতাত করে ভাগিয়ে নিচ্ছেন কোটি টাকার কাজ। পরে রাতের অন্ধকারে কাজ করে তুলে নিচ্ছেন বিল। জানা গেছে, মির্জাপুর বাজার ও বিভিন্ন ওয়ার্ডে উন্নয়ন কাজের জন্য জার্মানির একটি সংস্থা (ইউজিআইআইপি-টু) প্রকল্পের আওতায় ২ কোটি টাকা বরাদ্দ করে। গত ২২ অক্টোবর দুইটি জাতীয় পত্রিকায় টেন্ডার আহ্বান করা হয়। টেন্ডারে আটটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়।

পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের দর কম হলেও পৌরসভা কাজ দিয়েছে পছন্দের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে। ঊর্ধ্ব দরে কাজ দেয়ায় সরকারকে প্রায় ৪০ লাখ টাকা ভতুর্কি দিতে হবে। পুনরায় দরপত্র আহ্বান করে কাজ না পাওয়া ঠিকাদাররা অভিযোগ দিলেও মেয়র তা গ্রহণ করেননি। এর আগে পৌরসভায় এডিবির অর্থায়নে পৌরভবন নির্মাণের জন্য এক কোটি ৪৩ লাখ টাকা এবং রাস্তা, ড্রেন ও একটি কমিনিউটি সেন্টার নির্মাণের জন্য প্রায় ৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়। এসব কাজও পায় একই সংস্থা। পৌরভবনের কাজ নিম্নমানের হওয়ায় এক বছরের মধ্যেই ফাঁটল দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর পৌরসভার ইউজিআইআইপির জুনিয়র মিনিসিপাল প্রকৌশলী সুমিত সরকার বলেন, এই প্রকল্পের অধীনে কাজের অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। তাদের টাকা কর্তন হবে। পৌরসভার টেন্ডার আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব আব্দুল হাই ও সদস্য মঞ্জুর হোসেন অভিযোগের বিষয়ে বলেন, 'সব বিষয়ে মেয়র বলবেন। আমাদের কিছু করার নেই।' মেয়র মো. শহিদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পৌরসভার কাজে কোন প্রকার অনিয়ম ও দুর্নীতির সুযোগ নেই। অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট। এ ব্যাপারে ওই মালিক বলেন, লাইসেন্সের মাধ্যমে আমি কাজ পেয়েছি। অনিয়ম করলে পৌরসভা করেছে।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, 'সরকারের অনড় অবস্থানের কারণে সঙ্কটের সমাধান হয়নি।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
5 + 8 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৫
ফজর৪:৫৪
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১২সূর্যাস্ত - ০৫:১১
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :