The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৩, ১১ পৌষ ১৪২০, ২১ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ টেস্ট ক্রিকেট থেকে বিদায় নিচ্ছেন ক্যালিস | বাগদাদে চার্চের সন্নিকটে গাড়িবোমা বিস্ফোরণ, নিহত ১৫ | কাল সারাদেশে ১৮ দলের বিক্ষোভ সমাবেশ | রাজধানীতে পেট্রোল বোমায় দগ্ধ হয়ে পুলিশের মৃত্যু | আগুনে প্রাণ গেল আরও দুই পরিবহন শ্রমিকের

তথ্যপ্রযুক্তি ২০১৩

ফিরে দেখা বাংলাদেশ

বছর শেষে নতুন বছরের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে রয়েছি আমরা। চলে যাওয়া ২০১৩ সালে বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও প্রযুক্তি খাতে ঘটে গেছে গুণগত পরিবর্তন, ঘটে গেছে নানা ধরনের ঘটনা। পুরো বছরে প্রযুক্তি খাতে আমাদের অর্জন যেমন ছিল, তেমনি ছিল আক্ষেপ। প্রযুক্তি খাতে চলতি এই বছরের সবচেয়ে আলোচিত কয়েকটি ঘটনার কথা এই লেখায় তুলে ধরেছেন তরিকুর রহমান সজীব

দেখতে দেখতে পেরিয়ে গেল আরও একটি বছর। বর্তমান বিশ্ব যে দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে, তার পেছনে বড় একটি ভূমিকা রাখছে তথ্যপ্রযুক্তি। তার ছোঁয়া এসে লেগেছে আমাদের জীবনেও। তথ্যপ্রযুক্তিতে বরাবরই বাংলাদেশকে অত্যন্ত সম্ভাবনাময় বলে মনে করা হচ্ছিল। সেই সম্ভাবনার অনেক কুঁড়িই শেষ পর্যন্ত ফুল হয়ে ফুটতে পারেনি এ বছরে। এমন আক্ষেপের বিপরীতে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সাফল্যের অর্জনও রয়েছে বেশ কিছু। বছরের প্রত্যাশা আর প্রাপ্তির ঘেরাখাতার আলোচিত কয়েকটি ঘটনা তুলে ধরা হলো এই লেখায়।

পূর্ণাঙ্গ থ্রিজির যাত্রা

গত বছরেই রাষ্ট্রায়ত্ত্ব টেলিটকের মাধ্যমে প্রথমবারের মতো তৃতীয় প্রজন্মের সেলুলার নেটওয়ার্ক ব্যবহারের অভিজ্ঞতা পেতে শুরু করে দেশবাসী। এরপর বাকি মোবাইল অপারেটরগুলোকেও থ্রিজি নেটওয়ার্কের সেবা প্রদানের জন্য বেশ কয়েকবার নিলাম ডাকা হলেও নানা জটিলতায় নিলামের তারিখ পিছিয়ে যাচ্ছিল। অবশেষে ৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হয় সেই কাঙ্ক্ষিত নিলাম। এর ফলে বেসরকারি চার মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবি এবং এয়ারটেল চূড়ান্ত অনুমোদন পায় থ্রিজি নেটওয়ার্ক সেবা দেওয়ার। ইতোমধ্যেই চারটি অপারেটরই গ্রাহকদের জন্য থ্রিজি ইন্টারনেট সেবা প্রদান করা শুরু করেছে। ভয়েস কলের পাশাপাশি তাই উচ্চ গতির ইন্টারনেট, ভিডিও কল, মোবাইলে টিভি দেখার মতো সব সেবার সাথে অভ্যস্ত হয়ে উঠতে শুরু করেছে মানুষ। থ্রিজির আবির্ভাবে দেশের মোবাইল বাজারেও স্মার্টফোনের বিক্রি হু হু করে বাড়তে শুরু করেছে।

স্বপ্নই রয়ে গেল হাইটেক পার্ক

এক যুগেরও বেশি সময় ধরে আমরা স্বপ্ন দেখে আসছি কালিয়াকৈরের হাইটেক পার্ক নিয়ে। তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নানা ধরনের অবকাঠামোগত সক্ষমতা বৃদ্ধি ও এই খাতের সমৃদ্ধিতে এই হাই-টেক পার্কের বিকল্প নেই—এমনটি স্বীকার করেন সকলেই। কিন্তু স্বপ্নের সেই হাইটেক পার্ক এখনও অধরাই রয়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছিল, মহাজোট সরকারের শেষ বছরের এসে এই হাইটেক পার্কের কাজের গতিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হবে। কিন্তু নানা ধরনের পরিকল্পনা নিয়েও শেষ পর্যন্ত এগোয়নি এর কাজ। এই এক হাইটেক পার্ক তৈরি নিয়ে এত জটিলতার মাঝেও চমক হিসেবে বিভাগীয় শহরগুলোতে আলাদা আলাদা হাইটেক পার্ক গড়ে তোলার ঘোষণা দেওয়া হয় আইসিটি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসকদের জায়গা নির্বাচনের নির্দেশনাও দেওয়া হয়। তবে হাইটেক পার্ক নির্মাণের জন্য উপযোগী জমি খুঁজে পেতে নাকাল হতে হয়েছে জেলা প্রশাসকদের। বিভাগীয় হাইটেক পার্কগুলোও এখনও তাই কাগজে কাগজেই রয়ে গেছে। ফলে এই বিষয়ে খুব বেশি আশার আলো দেখা যাচ্ছে না।

১০ কোটিতে সফটওয়্যার ও আইসিটি খাত

প্রথমবারের মতো সফটওয়্যার ও আইসিটি খাতের রপ্তানি থেকে আয় পেরিয়ে গেছে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বা ১০ কোটি ডলারের ল্যান্ডমার্ক। বছর জুড়ে নানা ধরনের অস্থিরতার মধ্যে এটি ছিল প্রকৃতই সুসংবাদ। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) আনুষ্ঠানিকভাবেই এই সুসংবাদটি জানিয়েছে দেশবাসীকে। বিভিন্ন প্রতিকূলতাকে অতিক্রম করে সফটওয়্যার ও আইটি সেবা খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোর এই অর্জনকে অত্যন্ত সন্তোষজনক হিসেবেই চিহ্নিত করেছেন সকলে। তাদের সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালের মধ্যে এই খাতের রপ্তানি আয়কে দশগুণ বাড়িয়ে ১০০ কোটি মার্কিন ডলারে পৌঁছানোর লক্ষ্যও নির্ধারণ করা হয়েছে।

ব্লগিংয়ে স্ফুরণ :সক্রিয় সামাজিক যোগাযোগ

বাংলাদেশেও ব্লগিং বিষয়টি নতুন নয়। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতেও বাংলাদেশিদের পদচারণা ছিল শুরু থেকেই। তবে চলতি বছরে এসে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো এবং ব্লগিং ভিন্ন এক মাত্রা পেয়েছে। বছরের শুরুর দিকেই মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত কাদের মোল্লাকে বিচারে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হলে এর প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠে তরুণ সমাজ। একদিকে তারা সক্রিয় হয়ে ওঠে শাহবাগে গণজাগরণ মঞ্চে। অন্যদিকে তাদের সমান সক্রিয়তা লক্ষ করা যায় ফেসবুক এবং ব্লগগুলোতে। স্বাধীনতাবিরোধীরাও ফেসবুক এবং ব্লগকে ব্যবহার করে অপপ্রচার চালিয়ে যাওয়ার মিশনে নামে। তাদেরকে রুখতেও সক্রিয় ভূমিকা রেখে সমানতালে অগ্রসর হন প্রগতিশীল ব্লগাররা। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে 'আরব বসন্ত' গড়ে ওঠায় ব্লগ এবং অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো যেমন সক্রিয় থেকেছে, একইরকমভাবে আমাদের দেশেও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রসঙ্গে ব্লগ এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে সংশোধন

তথ্যপ্রযুক্তির সাথে সংশ্লিষ্ট মানুষদের মধ্যে বছরের অন্যতম আলোচিত ঘটনা ছিল তথ্যপ্রযুক্তি আইন ২০০৬-এর সংশোধনী। অক্টোবর মাসের প্রথম সপ্তাহে এই বিলটি পাস করা হয় সংসদে। এই সংশোধনীতে যুক্ত ধারা এবং বিধানগুলোকে বিতর্কিত হিসেবেই মনে করছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। এসব ধারার সমালোচনাও করা হয়েছে। তবে তাতে কর্ণপাত করেনি সরকার। সংশোধনীতে মূল আইনের ৫৪, ৫৬, ৫৭ ও ৬১ ধারায় বর্ণিত অপরাধগুলোকে আমলযোগ্য করা হয়েছে। ফলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কোনো ধরনের গ্রেফতারি পরওয়ানা ছাড়াই গ্রেফতারের ক্ষমতা লাভ করবে এসব অপরাধে অভিযুক্তদের। অপরাধগুলোকে অজামিনযোগ্যও করা হয়েছে। এই আইনের আওতায় সংঘটিত অপরাধের শাস্তির মেয়াদও বাড়িয়ে ন্যূনতম ৭ বছর এবং সর্বোচ্চ ১৪ বছর করা হয়েছে। তাছাড়া সংশ্লিষ্ট ধারাগুলোতে অপরাধের বিবরণেও অনেক ক্ষেত্রেই অস্পষ্ট। ফলে এই আইনের অপপ্রয়োগ করার সুযোগ রয়েছে বলেই প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। এই আইন সাইবার স্পেসে বাক-স্বাধীনতাকে অনেকটাই ক্ষুন্ন করবে বলে মন্তব্য তাদের।

উড়তে পারেনি মুখ থুবড়ে পড়া দোয়েল

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য দেশিয় প্রযুক্তি পণ্য উত্পাদনের অংশ হিসেবে টেলিফোন শিল্প সংস্থার (টেশিস) মাধ্যমে শুরু হয় 'দোয়েল' ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ উত্পাদন ও বাজারজাতকরণ। ২০১১ সাল থেকে যাত্রা করা দোয়েল গত বছরেই মুখ থুবড়ে পড়ে। অভ্যন্তরীণ নানা ধরনের দুর্নীতি আর মূলধনের অভাবকেই এর মূল কারণ হিসেবে পাওয়া গেছে। ক্রেতাদের মাঝে 'দোয়েল' নিয়ে অগ্রহ থাকায় ধারণা করা হচ্ছিল সরকারি উদ্যোগে প্রাণ ফিরবে 'দোয়েল'-এর। কিন্তু সে আশার গুড়ে বালি। 'দোয়েলে' প্রাণ সঞ্চার করতে কোনো ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। দেশিয় ব্র্যান্ডের এই ল্যাপটপের ভবিষ্যত্ তাই অন্ধকার।

ভিএসপি লাইসেন্স পেল ৮৬৫ প্রতিষ্ঠান

আন্তর্জাতিক কল অবৈধভাবে টার্মিনেশন হওয়ায় বিপুল পরিমাণ রাজস্ব হারায় সরকার। এটা রোধ করতেই এক হাজার চারটি প্রতিষ্ঠানকে ভিওআইপি সার্ভিস প্রোভাইডার (ভিএসপি) লাইসেন্স প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয় টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়। শেষ পর্যন্ত ৮৬৫টি প্রতিষ্ঠান আবেদন করে ভিএসপি লাইসেন্সের জন্য। ভিএসপি নীতিমালার আওতায় এই প্রতিষ্ঠানগুলো আন্তর্জাতিক কল অপারেট করছে। এতে অবৈধ আন্তর্জাতিক কল অনেকাংশে হরাস পেয়েছে।

খুলল ইউটিউবের দরজা

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইউটিউব বন্ধ করে দেওয়া হয় বাংলাদেশে। ইউটিউবে প্রকাশিত মার্কিন চলচ্চিত্র 'ইনোসেন্স অব মুসলিম' প্রকাশের পর থেকে বিটিআরসি দেশে ইউটিউব বন্ধ করে। প্রায় দীর্ঘ চার মাস পর চলতি বছরের শুরুর দিকেই পুনরায় দেশে চালু করা হয় ইউটিউব। উল্লিখিত চলচ্চিত্রটিতে ইসলাম ধর্ম ও মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)কে অবমাননার অভিযোগে মুসলিম বিশ্বের অনেক দেশই ইউটিউব বন্ধ করে দেয়। ইউটিউবকে খুলে দেওয়ার দাবি ছিল সকলেরই। শেষ পর্যন্ত তা খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তকেও স্বাগত জানিয়েছেন মুক্তমনা সকলেই।

প্রথম অনলাইন বাণিজ্য মেলা :ই-কমার্সের প্রসার

উন্নত বিশ্বের দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও ই-কমার্সের প্রসার ঘটছে দ্রুতগতিতে। কাঁচাবাজার, পোশাক থেকে শুরু করে দৈনন্দিন জীবনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রায় সকল পণ্যের জন্যই এখন নাগরিক সমাজের কর্মব্যস্ত মানুষ নির্ভর করতে শুরু করেছে অনলাইন শপগুলোর উপর। বই থেকে শুরু করে উপহার সামগ্রীতেও এখন ভরসা ই-শপগুলো। অনলাইনে পুরোনো পণ্যের বিকিকিনিও জোরালো হয়েছে এ বছরে। বিভিন্ন ওয়েবসাইট নবীন ব্যবসায়ীদেরও নিজেদের পণ্যকে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছানোর সুযোগ করে দিচ্ছে। ই-কমার্সকে আরও বেশি জনপ্রিয় করে তুলতে চলতি বছরে দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হয় ই-বাণিজ্য মেলা। 'ঘরে বসে কেনাকাটার উত্সব' স্লোগান নিয়ে ফেব্রুয়ারি মাসে রাজধানী ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয় তিন দিনের ই-বাণিজ্য মেলা। পরবর্তী সময়ে ঢাকার বাইরে এবং লন্ডনেও অনুষ্ঠিত হয় এই মেলার ধারাবাহিকতা।

অনলাইনে নজরদারি

সারাবিশ্বে যখন অনলাইনে নজরদারির ঘটনার তীব্র সমালোচনা চলছে, তখন চলতি বছরে এসে বাংলাদেশেও অনলাইন নজরদারি শুরু হয়। অনলাইনে সাম্প্রদায়িকতা বিনষ্টকারী, ধর্মীয় মূল্যবোধ আঘাতকারী কিংবা কোনো ধরনের উস্কানির সাথে সংশ্লিষ্টদের সনাক্ত করতে শুরু হয় এই নজরদারি। আসছে জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষেও এই নজরদারি অব্যাহত থাকবে বলে জানা গেছে। এদিকে এই বছরেই প্রথমবারের মতো ব্লগিংয়ের কারণে গ্রেপ্তারের ঘটনা ঘটে দেশে। ব্লগার আসিফ মহিউদ্দিন প্রথম গ্রেপ্তার হন। পরে আরও কয়েকজন ব্লগারকে গ্রেপ্তার করা হয় ব্লগিংয়ের মাধ্যমে উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে।

কিছু উজ্জল অর্জন

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নানা ধরনের ঘটনার ঘনঘটার মধ্যে ব্যক্তি এবং প্রাতিষ্ঠানিক বেশকিছু অর্জন ও উদ্যোগ উজ্জ্বল করেছে দেশের মুখ। চলতি বছরেই এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রযুক্তি বিষয়ক সংগঠন অ্যাসোসিও'র চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বগ্রহণ করেন দেশের প্রযুক্তি খাতের পরিচিত মুখ আব্দুল্লাহ এইচ কাফি। এ বছরেই বাংলা লেখার প্রথম সফটওয়্যার 'বিজয়' পদার্পণ করে রজতজয়ন্তীতে। আইটি খাতে অবদান রাখায় মোস্তফা জব্বারকে অ্যাসোসিও'র পক্ষ থেকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়। এর বাইরে বছরেজুড়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছে প্রোগ্রামার, ডেভেলপাররা। এ বছরে মাইক্রোসফটের লার্নিং পার্টনার হিসেবে মনোনীত হয়েছে একটি স্কুল এবং একজন শিক্ষক। বছরের শেষের দিকে আইসিটি মন্ত্রণালয় কর্তৃক দেশব্যাপী মোবাইল অ্যাপস নির্মাণের উদ্যোগও আশার আলো সঞ্চার করেছে। উদ্ভাবনী বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রকল্পে এটুআইয়ের সহায়তাও ছিল একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ।

প্রযুক্তির এসব ঘটনা নিঃসন্দেহে প্রযুক্তি খাতে নানা মাত্রার তাত্পর্য বহন করে। তথ্যপ্রযুক্তিতে আমাদের পরবর্তী অগ্রযাত্রার দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে এসব ঘটনা সহায় হবে, এমন প্রত্যাশাই প্রযুক্তি বিশ্লেষকদের।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, 'সরকারের অনড় অবস্থানের কারণে সঙ্কটের সমাধান হয়নি।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
6 + 6 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
অক্টোবর - ১৮
ফজর৪:৪১
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫২
মাগরিব৫:৩৪
এশা৬:৪৫
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৯
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :