The Daily Ittefaq
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১০ জানুয়ারি ২০১৩, ২৭ পৌষ ১৪১৯, ২৭ সফর ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ভারতে ট্রাক দুর্ঘটনায় ২৫ জন নিহত | ডিএসই: সূচক বেড়েছে ১০ পয়েন্ট | শ্যাভেজের বিলম্বিত অভিষেক বৈধ: আদালত | আজ বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস | ১০ ঘন্টা পর মাওয়ায় ফেরি চালু

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ক্ষমতা বাড়ানো হচ্ছে: অর্থমন্ত্রী

ইত্তেফাক রিপোর্ট

ব্যাংকিং আইন সংশোধনের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ক্ষমতা বাড়ানো হবে বলে জানালেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদু মুহিত। আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংকের নতুন পরিচালকদের ব্যাংকিং আইন ও নিয়মনীতি সম্পর্কে ধারণা দিতে আয়োজিত এক কর্মশালার উদ্বোধন শেষে অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক আগে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর ধারের কাছে যেতে পারত না। সেখান থেকে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। এখন মোটামুটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। শিগগিরই তাদের ক্ষমতা বাড়িয়ে নতুন ব্যাংক কোম্পানি আইন হচ্ছে। এতে বাংলাদেশ ব্যাংকের দায়িত্ব বাড়ছে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর পর্ষদ এবং ব্যবস্থাপনার দায়বদ্ধতা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হাতে চলে যাবে।

দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ড. এম আসলাম আলম, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মো. রাজী হাসান, এসকে সূর চৌধুরীসহ রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংকগুলোর পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। একই স্থানে অগ্রণী ব্যাংকের লভ্যাংশ প্রদান অনুষ্ঠান হয়।

অর্থমন্ত্রী বলেন, যেসব ক্ষেত্রে আমরা মনে করেছি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ক্ষমতা বাড়ানো দরকার। আমরা সেসব জায়গা ছেড়ে দিচ্ছি। তবে সব জায়গায় তাদের নিয়ন্ত্রণ দেয়ার ক্ষমতা আসেনি।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণ প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, সরকারি ব্যাংকগুলোকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকই নিয়ন্ত্রণ করে। তবে দু-একটি বিষয় শুধু অর্থমন্ত্রণালয় দেখে থাকে। আমাদের ব্যাংকিং খাত অনেক সমপ্রসারিত হয়েছে। এটা এখন দেশের একটা গতিশীল খাত।

রাষ্ট্রায়ত্ত পরিচালক নিয়োগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সরকার কর্তৃক নিয়োগ দেয়ায় কাজের ক্ষেত্রে কোনো অসুবিধা হয় বলে আমি মনে করি না। কারণ যাদের পরিচালক নিয়োগ দেয়া হয়েছে তারা সবাই প্রফেশনাল এবং যোগ্যতার ভিত্তিতেই কেন্দ্রীয় ব্যাংক এদের নিয়োগ প্রদানে সুপারিশ করে।

ভবিষ্যতে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোকে আরো স্বাধীনতা দেয়া হবে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো মোটামুটি স্বাধীনভাবে কাজ করছে। তবে তারা পুরোপুরি স্বাধীন নন। ভবিষ্যতে তাদের আরো স্বাধীনতা দেয়া হবে।

রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাংকের পরিচালকদের কি নির্দেশনা দেয়া হয়েছে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, তাদের বলেছি আপনাদের কাজ হলো জনস্বার্থ রক্ষা করা, সে অনুযায়ী কাজ করবেন।

অন্যদিকে একই অনুষ্ঠানে নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনুসের সমালোচনা করেছেন অর্থমন্ত্রী। বৈঠক সূত্রে জানা যায়, ড. মুহাম্মদ ইউনূসের সামাজিক ব্যবসার সমালোচনা করে তিনি বলেন, পৃথিবীর কোন দেশে সামাজিক ব্যবসার কোন রিজিউম নেই। শুধু বাংলাদেশে কিছুটা হয়েছে। তবে তার ৪০টি সামাজিক বিনিয়োগের প্রতিষ্ঠানের ২০টিই মরে গেছে। এর কিছু দেউলিয়া, কিছু মুনাফা করতে না পারা এবং কিছু মন্দার কারণে। তিনি বলেন, সামাজিক ব্যবসায় দায়িত্বশীলতার অভাব রয়েছে। অনেক ফাঁকি থাকে। কিন্তু পাবলিক বিনিয়োগের ব্যবসায় সেটি হয় না।

সর্বশেষ আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, দেশের মানুষ এখন পরিবর্তন চাচ্ছে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
7 + 5 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুন - ১
ফজর৩:৪৪
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৬
মাগরিব৬:৪৪
এশা৮:০৭
সূর্যোদয় - ৫:১০সূর্যাস্ত - ০৬:৩৯
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :