The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৪, ০৯ মাঘ ১৪২০, ২০ রবিউল আওয়াল ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ চাঁপাইনবাবগঞ্জে নারী ইউপি সদস্যের রগ কর্তন | জাহাঙ্গীরনগরের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য এম এ মতিন | ৭ মন্ত্রী-এমপির সম্পদ তদন্তে দুদকের অনুসন্ধান কর্মকর্তা নিয়োগ | ট্রাফিক ব্যারাকে লাশ, পুলিশ কন্সটেবল গ্রেফতার

দক্ষিণাঞ্চলের জয় ছিনিয়ে নিলেন মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস রিপোর্টার

সকালে তীব্র কুয়াশায় খেলা শুরু হতে দেরি হওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলের ব্যাটসম্যানরা হয়তো আবহাওয়াকে মনে মনে অভিশাপ দিচ্ছিলেন। দিনশেষে সেই অভিশাপ আফসোসে পরিণত হল—ইস, কেন খেলা শুরু হল! হ্যা, শেষ পর্যন্ত খেলা হওয়াটাই বরং দক্ষিণাঞ্চলের জন্য 'অভিশাপ' হয়ে গেল। কারণ বাকি সময়ের মধ্যে নিজেদের অবশিষ্ট ৭ উইকেট খুইয়ে অপ্রত্যাশিত এক হার নিয়ে মাঠ ছাড়ল দক্ষিণাঞ্চল।

বলা ভালো মধ্যাঞ্চল অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ প্রায় একা হাতে দক্ষিণাঞ্চলের কাছ থেকে ছিনিয়ে আনলেন এক জয়। জাতীয় দলের এই অলরাউন্ডারের আবারও ইনিংসে ৫ ও ম্যাচে ১২ উইকেটে ভর করে মধ্যাঞ্চল পেল ৩৭ রানের রোমাঞ্চকর এক জয়।

অথচ আগের বিকালে সমীকরণটা নিজেদের পক্ষে নিয়েই দিনশেষ করেছিল দক্ষিণাঞ্চল। দৃশ্যত বেশ কঠিন ৩১০ রানের লক্ষ্যে ছুটতে গিয়ে ৩ উইকেট হারিয়ে তৃতীয় দিনই ১৫৯ রান তুলে ফেলেছিল। কাল শেষ দিনে দক্ষিণাঞ্চলের জয়ের জন্য ৭ উইকেট হাতে নিয়ে দরকার ছিল ১৫১ রান। কিন্তু সেটাকেই দূরের ব্যাপার বানিয়ে দিলেন মাহমুদউল্লাহ ও ইলিয়াস সানি।

বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে এই ম্যাচটি সবচেয়ে বেশি দোলাচলে ভুগেছে শুরু থেকেই। প্রথম ইনিংসে মধ্যাঞ্চল অলআউট হয়েছিল মাত্র ১৬৫ রানে। জবাবে ২৩০ রান করে প্রথম ইনিংসে ৬৫ রানের লিড নিয়ে ফেলে দক্ষিনাঞ্চল। কিন্তু মার্শাল আইয়ুব এই রাউন্ডে একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে আবার মধ্যাঞ্চলকে বেশ শক্ত অবস্থায় পাঠিয়ে দেন। শেষ পর্যন্ত মধ্যাঞ্চলের দ্বিতীয় ইনিংসের শেষটা হঠাত্ করে ধসে পড়ার পরও জয়ের জন্য দক্ষিণাঞ্চলের সামনে ৩১০ রানের লক্ষ্য দাঁড়ায়।

শুরুতেই সে লক্ষ্যকে সহজ করে ফেললেও গতকাল বাকি থাকা দৃশ্যমান জয়ের পথটা হঠাত্ করেই বন্ধুর হয়ে যায় দক্ষিণাঞ্চলের জন্য।

আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান মিথুন ও তাইয়াবুর খুব বেশিদূর টেনে নিয়ে যেতে পারেননি দলকে। সকাল বেলাতেই ইলিয়াস সানি মিথুন ও শুভগতকে পরপর ফিরিয়ে মধ্যাঞ্চলকে খেলায় ফেরান। পাশাপাশি শোয়েদ ফেরান অন্যপ্রান্তে আগের দিনের অপরাজিত তাইয়াবুরকে। এরপর বাকিটা মাহমুদউল্লাহ বনাম জিয়ার রহমানের দ্বৈরথও বলা যায়। একপ্রান্তে মাহমুদউল্লাহ পরপর উইকেট নিয়ে প্রায় জয়ের কাছে নিয়ে যাচ্ছিলেন মধ্যাঞ্চলকে। অন্য প্রান্তে জিয়া ৪৫ রানের এক ইনিংস খেলে দক্ষিণাঞ্চলকে একটু আশার আলো দেখাচ্ছিলেন। শেষ পর্যন্ত ওই জিয়াকেই আউট করে নিজের পঞ্চম উইকেট শিকার ও দলের জয় নিশ্চিত করেন মাহমুদউল্লাহ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

মধ্যাঞ্চল—দক্ষিণাঞ্চল

মধ্যাঞ্চল ১ম ইনিংস: ৩৯.৪ ওভারে ১৬৫/১০

এবং মধ্যাঞ্চল ২য় ইনিংস: ৭১ ওভারে ৩৭৪/১০

দক্ষিণাঞ্চল ১ম ইনিংস: ৬৪.২ ওভারে ২৩০/১০

এবং দক্ষিণাঞ্চল ২য় ইনিংস: ৮১.৪ ওভারে ২৭২/১০ (মিথুন ১৪, তাইয়াবুর ২৩, শুভাগত ১, জিয়া ৪৫, সোহাগ ২৩, রাজ্জাক ৭, রুবেল ০, রবিউল ১*; শাহাদাত ১/৪২, শোয়েদ ১/৩২, আরাফাত ০/১৫, মাহমুদউল্লাহ ৫/৯৬, ইলিয়াস সানি ৩/৮১, মার্শাল ০/১)।

ফল: মধ্যাঞ্চল ৩৭ রানে জয়ী

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: মাহমুদউল্লাহ

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, 'সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অভিযান নিয়ে খালেদা জিয়া যা বলেছেন, তা দেশের জন্য অপমানজনক। এ জন্য জনগণের কাছে তার মাফ চাইতে হবে।' আপনি কি তার সাথে একমত?
9 + 1 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুলাই - ১৯
ফজর৩:৫৭
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫০
এশা৮:১২
সূর্যোদয় - ৫:২২সূর্যাস্ত - ০৬:৪৫
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :