The Daily Ittefaq
ঢাকা, রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০১৪, ১৩ মাঘ ১৪২০, ২৪ রবিউল আওয়াল ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ নাদালের স্বপ্ন ভেঙে দিয়ে চ্যাম্পিয়ন ওয়ারিঙ্কা | তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরীকে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা নিয়োগ | শাবিতে শিবির-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ, ভাংচুর | সংখ্যালঘু নির্যাতনের বিচার বিশেষ ক্ষমতা আইনেই: আইনমন্ত্রী | যুক্তরাষ্ট্রের শপিং মলে হামলা, নিহত ৩ | মওদুদসহ বিএনপির ৪ নেতার জামিন

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রস্তুতি

হিমন এডওয়ার্ড গমেজ, সহকারি শিক্ষক

সেন্ট গ্রেগরী'জ হাই স্কুল, ঢাকা

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

প্রিয় শিক্ষার্থীরা শুভেচ্ছা জানবে, আশা করি তোমরা পঞ্চম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়ে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার প্রস্তুতি নেয়া শুরু করে দিয়েছ। তোমাদের প্রতি অধ্যায়ের সর্বোচ্চ প্রস্তুতির জন্য আজ বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বিষয়ের প্রথম অধ্যায়ের রচনামূলক প্রশ্নসমূহ দেওয়া হলো। তোমাদের প্রস্তুতি সর্বোচ্চ করার জন্য অবশ্যই পাঠ্যবইটি ভালো ভাবে পড়তে হবে।

প্রথম অধ্যায়- আমাদের মুক্তিযুদ্ধ

ক. মুজিবনগর সরকার কখন ও কোথায় গঠিত হয়েছিল? এ সরকারে কারা ছিলেন?

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ আমাদের জাতীয় জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। ২৫মার্চ, ১৯৭১ সালের বাঙালির জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী গ্রেপ্তার করলে সমগ্র জাতি দিশাহার হয়ে পরে। তার পরে বাঙালি কয়েকজন নেতার সাহসী সিদ্ধান্তে মুজিবনগর সরকার গঠন করা হয়।

মুজিবনগর সরকারের গঠন: মুক্তিযুদ্ধের কিছুদিনের মধ্যেই ১৯৭১ সালের ১০ই এপ্রিল গঠিত হয় প্রথম বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার যা মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিত। ১৭ই এপ্রিল মেহেরপুর জেলার বৈদ্যনাথতলা (বর্তমান উপজেলা মুজিবনগর) গ্রামের আমবাগানে এই সরকার শপথ গ্রহণ করে।

মুজিবনগর সরকারে যাঁরা ছিলেন: বঙ্গবন্ধু পাকিস্থানে কারাবন্ধী অবস্থায় মুজিবনগর সরকার গঠন করা হয়। মুজিবনগর সরকারে যেসকল নেতারা ছিলেন তাঁরা হলেন-

রাষ্ট্রপতি: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান

উপরাষ্ট্রপতি: সৈয়দ নজরুল ইসলাম

প্রধানমন্ত্রী: তাজউদ্দিন আহমেদ।

এছাড়া বেশ কয়েক জন সাহসী নেতা এই সরকারের বিশেষদায়িত্বে ছিলেন। তাঁরা হলেন- ক্যাপ্টেন(অব) এম. মনসুর আলী ও এ.এইচ. এম কামরুজ্জামান।

মুজিবনগর সরকারে যাঁরা ছিলেন তাঁরা আমাদের এই বাংলাদেশের বীর সন্তান। তাঁদের অবদান ও আত্নত্যাগের কথা বাঙালি জাতি কোনদিন ভুলবেনা।

খ. আমাদের মুক্তিযুদ্ধে মুজিবনগর সরকারের গুরুত্ব বর্ণনা কর।

১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ আমাদের জাতীয় জীবনে একটি অতিগুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। ২৫মার্চ, ১৯৭১ সালের বাঙালির জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী গ্রেপ্তার করলে সমগ্র জাতি দিশাহারা হয়ে পরে। তার পরে বাঙালি কয়েকজন নেতার সাহসী সিদ্ধান্তের মুজিব নগর সরকার গঠন করা হয়।

মুজিবনগর সরকারের গঠন: মুক্তিযুদ্ধের কিছুদিনের মধ্যেই ১৯৭১ সালের ১০ই এপ্রিল গঠিত হয় প্রথম বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার যা মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিত। ১৭ই এপ্রিল মেহেরপুর জেলার বৈদ্যনাথতলা (বর্তমান উপজেলা মুজিবনগর) গ্রামের আমবাগানে এই সরকার শপথ গ্রহণ করে।

মুজিবনগর সরকারের মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্ব:

মহান মুক্তিযুদ্ধে মুজিবনগর সরকারের গুরুত্ব অপরিসীম। এই সরকারের সাহসী মনোভাব ও সিদ্ধান্ত বাঙালি জাতিকে একটি লাল সবুজের পতাকা ও সোনার বাংলাদেশ উপহার দিয়েছে।

মুজিবনগর সরকারের গুরুত্ব নিম্নরূপ:

মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা এবং দেশ ও বিদেশে এ যুদ্ধের পক্ষে জনমত গড়ে তোলা ও সমর্থন আদায় করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

এই সরকারের আহবানে অগণিত দেশ প্রেমিক মানুষ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পরে।

মুক্তিযুুদ্ধকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য দেশকে ১১টি সেক্টরে ভাগ করেছিল। মুক্তিযুদ্ধাদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছিল। দেশের বাইরে এই দেশের নিরীহ জনগণের আশ্রয়ের ব্যবস্থা করেছিল।

যু্দ্ধ পরবর্তী দেশে মানুষের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করেছিল। মুজিবনগর সরকারে যাঁরা ছিলেন তাঁরা আমাদের এই বাংলাদেশের বীর সন্তান। তাঁদের অবদান ও আত্নত্যাগের জন্য আমরা পেয়েছি

স্বাধীনতা। তাই বাংলাদেশ যত দিন থাকবে, তত দিনই এই দেশেরমানুষ অবনত মস্তকে মুজিবনগর সরকারের ছিলেন তাঁদের শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে।

গ. কাদের নিয়ে মুক্তিবাহিনী গঠিত হয়েছিল?

যাঁদের নিয়ে মুক্তিবাহিনী গঠন করা হয়:

মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনার জন্য মুজিবনগর সরকারের উদ্যোগে ১৯৭১ সালে ১১ই জুলাই মুক্তিবাহিনী গঠন করা হয়। কর্নেল মুহম্মদ আতাউল গনি ওসমানিকে মুক্তিবাহিনীর প্রধান সেনাপতি এবং গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ.কে. খন্দকারকে মু্ক্তিবাহিনীর উপপ্রধান সেনাপতি নিযুক্ত করা হয়। লে. কর্ণেল আব্দুর রবকে সেনাবাহিনীর প্রধান নিযুক্ত করা হয়। মুক্তিযুদ্ধকে সফল করার জন্য বাংলাদেশকে ১১টি সেক্টরে ভাগ করা হয়।

মুক্তিবাহিনী গঠন করা হলে ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট, ইপিআর এর বাঙালি সদস্য, পুলিশ, আনসার, ছাত্র, যুবক, নারী, কৃষক, শ্রমিক, বুদ্ধিজীবী সর্বস্তরের জনগণকে নিয়ে মুক্তি যুদ্ধে যোগ দান করে। বাঙালি সামরিক ও বেসামরিক জনগণের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছিল মুক্তিবাহিনী। বাঙালি সামরিক অফিসার ও সৈন্যদের নিয়ে গঠিত হয়েছিল মুক্তিযুদ্ধের নিয়মিত বাহিনী। তাঁরা মুক্তিফৌজ নামে পরিচিত ছিল। বেসামরিক জনগণকে নিয়ে গড়ে উঠেছিল অনিয়মিত বাহিনী। মুক্তিযুদ্ধে যারা অংশ গ্রহণ করে আমাদের উপহার দিয়েছেন এই সোনা বাংলা, আমরা তাঁদের ভুলব না। তাদের মত আমরা ও দেশকে সর্বশক্তি ও মন প্রাণ দিয়ে ভালোবাসবো।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
সিপিডির ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেছেন সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন না হলে রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা কাটবে না। এতে অর্থনীতি দীর্ঘ মেয়াদি সংকটে পড়বে।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
8 + 1 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
মে - ২৫
ফজর৩:৪৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪১
এশা৮:০৩
সূর্যোদয় - ৫:১৩সূর্যাস্ত - ০৬:৩৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :