The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, ১ ফাল্গুন ১৪১৯, ২ রবিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ সেমিফাইনালে চিটাগং কিংস | মহিলা বিশ্বকাপ ক্রিকেট: প্রথমবারের মতো ফাইনালে উইন্ডিজ | জামায়াতের বিষয় নিয়ে কাল ইসির বৈঠক | জাবি ভিসির পদত্যাগের সিদ্ধান্ত | আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সংশোধন বিল সংসদীয় কমিটিতে অনুমোদন | ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ও জেলা জজকে হাইকোর্টে তলব | মতিঝিল এলাকায় জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডব | মোশতাকের নির্দেশে কিছু সেনাকর্মকর্তা জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করেছে: এটর্নি জেনারেল | বিপ্লবী বসন্তে আগুন ঝরছে শাহবাগে | কাদের মোল্লা ও কামারুজ্জামানের প্রেসক্লাবের সদস্যপদ বাতিল

মন্ত্রী এমপি সচিব ও সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের সংহতি

ইত্তেফাক রিপোর্ট

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে গণজাগরণ মঞ্চ থেকে দেয়া আহবানে সাড়া দিয়ে সারাদেশের মানুষের সঙ্গে মন্ত্রী, এমপি, সচিব ও সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীরাও গতকাল রাস্তায় সামিল হন। তারা বিকেল চারটায় রাস্তায় দাঁড়িয়ে তিন মিনিট নীরবতা পালন করে প্রজন্ম চত্বরের সংগ্রামীদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী: যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে শাহবাগে তরুণ প্রজন্মের ডাকে গতকাল তিন মিনিটের নীরবতা পালন করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল চারটা বাজার সঙ্গে সঙ্গে দপ্তর থেকে বেরিয়ে আসেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সঙ্গে ছিলেন পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক, অতিরিক্ত সচিব মোস্তফা কামাল ও রিয়ার এডমিরাল (অব.) খুরশেদ আলম, সকল মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা- কর্মচারীরা। তারা চারটা থেকে চারটা তিন মিনিট পর্যন্ত মন্ত্রণালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে থাকেন। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা ও সংহতি প্রকাশ করেন।

এমপিসহ কর্মকর্তাবৃন্দ: যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে নতুন প্রজন্মের আহ্বানে সারাদেশের মতো জাতীয় সংসদের শতাধিক এমপি, সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও পার্লামেন্ট বিটে কর্মরত সাংবাদিকরা মঙ্গলবার বিকাল ৪টা থেকে ৩ মিনিট নিরবতা পালন করেন।

জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় গতকাল বিকাল সাড়ে ৩টা থেকেই মহাজোটের এমপিরা সমবেত হতে থাকেন। পৌনে ৪টায় গোটা প্লাজার ৪টি সারিতে তারা অবস্থান নেন। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিসহ বিভিন্ন ধরনের শ্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে উঠে পুরো এলাকা। নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী মঙ্গলবার ঠিক বিকাল ৪টা থেকে ৪টা ৩ মিনিট পর্যন্ত মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় হাত উঁচিয়ে নিরবতা পালন করেন এমপিরা। এ সময় 'বঙ্গবন্ধুর বাংলায় রাজাকারের ঠাঁই নেই', 'জামায়াত-শিবির রাজাকার এই মুহূর্তে বাংলা ছাড়', 'তোমার-আমার ঠিকানা পদ্মা মেঘনা যমুনা', 'একাত্তরের হাতিয়ার গর্জে উঠুক আরেকবার' এবং 'চোর-বাটপার রাজাকার এই মুহূর্তে বাংলা ছাড়' ও 'জয়বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু' এসব নানা শ্লোগান দিতে থাকেন মহাজোট এমপিরা। নিরবতা পালন শেষে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য প্রবীণ পার্লামেন্টারিয়ান তোফায়েল আহমেদ এমপি, জাসদের মইন উদ্দিন খান বাদল এমপি তাদের বক্তব্যে এই স্বতস্ফূর্ত আন্দোলনের সফলতা কামনা করেন।

সচিবসহ কর্মকর্তাবৃন্দ: যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে গণজাগরণ মঞ্চের ডাকে সমগ্র জাতির সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেছেন প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। বিকেল ৪টা বাজার সঙ্গে সঙ্গে একাকার হয়ে যায় সচিবালয়ের ভেতরে ও বাইরের সড়ক। মন্ত্রী ও সচিবদের অনেকেই সচিবালয়ের বাইরের রাস্তায় দাঁড়িয়ে আবার অনেকে সচিবালয়ের ভেতর নিজ নিজ মন্ত্রণালয় ও বিভাগের করিডোরে দাঁড়িয়ে যান। তিন মিনিটের জন্য কর্মচঞ্চল সচিবালয় নিস্তব্ধ হয়ে যায়।

প্রথমে বের হয়ে আসেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবু আলম মো. শহীদ খান। সচিবালয়ের সামনের রাস্তায় অবস্থান নেন তিনি। একে একে সেখানে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে যান ধর্ম সচিব কাজী হাবিবুল আওয়াল, তথ্য সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, শিক্ষা সচিব ড. আবু নাসের মো. কামাল চৌধুরী, খাদ্য সচিব মুশফিকা ইকফাত্, পূর্ত সচিব ড. খোন্দকার শওকত হোসেন, যোগাযোগ সচিব এম এন সিদ্দিক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব এম এম নিয়াজউদ্দিন, নৌ-পরিবহন সচিব সৈয়দ মঞ্জুরুল ইসলাম, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা, প্রবাসী কল্যাণ সচিব জাফর আহমেদ। উপস্থিত ছিলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টার কার্যালয়ের সচিব কাজী আমিন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসেন ভূঞা, জনপ্রশাসন সচিব আবদুস সোবহান সিকদার কর্মচারীদের নিয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের করিডোরে দাঁড়িয়ে সংহতি প্রকাশ করেন। অন্যান্য মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কর্মচারীরা কাজ বন্ধ রেখে সংহতি প্রকাশ করেন। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিব রেলভবনের সামনের রাস্তায় কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে দাঁড়ান। যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, পরিবেশ ও বনমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান সচিবালয়ের সামনের রাস্তায় কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিয়ে দাঁড়িয়ে যান। মন্ত্রীদের অবস্থান ঘিরে যুদ্ধাপরাধবিরোধী শ্লোগান দেয়া হলেও প্রজাতন্ত্রের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা নীরবে দাঁড়িয়ে ছিলেন। বিআইডব্লিউটিএ শ্রমিক ইউনিয়নের কর্মচারীরা মন্ত্রীদের ঘিরে শ্লোগান দেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব ইত্তেফাফকে বলেন, শাহবাগের অরাজনৈতিক অবস্থান থেকে সংহতি প্রকাশের ডাক দেয়া হয়েছে। এটি কোনো সরকারি সিদ্ধান্ত নয়। যে যেখানে সুবিধা মনে করেছেন তারা সেখানেই সংহতি প্রকাশ করেছেন। এটি স্বতস্ফূর্ততার বিষয়। তিনি তার বিভাগে জনপ্রশাসন সচিবকে নিয়ে সংহতি প্রকাশ করেন বলেন জানান।

বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস এডমিনিস্ট্রেটিভ এসোসিয়েশনের সভাপতি আবু আলম সাংবাদিকদের বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবির সঙ্গে প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ঐকবদ্ধভাবে সংহতি প্রকাশ করেছেন। সকলেই স্বতস্ফূর্তভাবে এ কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন।

ব্যাংক কর্মচারী: একাত্মতা প্রকাশ করেছেন সর্বস্তরের ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও। বিকাল ৪টার আগেই বাংলাদেশ ব্যাংক প্রাঙ্গণে হাজির হন গভর্নর ড. আতিউর রহমান, ডেপুটি গভর্নররা, নির্বাহী পরিচালকসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের কয়েকশ কর্মকর্তা-কর্মচারী। পরে তিন মিনিট দাঁড়িয়ে থেকে সংহতি জানান তারা। একইভাবে এ সময় কাজ বন্ধ রেখে সকল যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির দাবিতে দাঁড়িয়ে সংহতি জানিয়েছেন বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর কর্মরতরাও।

সংহতি প্রকাশের বিস্তৃতি: বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটের সামনে থেকে শুরু ধরা হলে এটির শেষ সীমানা ছিল শিক্ষাভবনের সামনে রাস্তায় চার লেনে ভাগ হয়ে পুরো রাস্তাজুড়ে মানুষ আর মানুষ। বিপরীত দিকের রাস্তায় চালাচলকারী সকল যানবাহন-পথচারীও দাঁড়িয়ে যান।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি বলেছে শাহবাগের কিছু ঘটনা ফ্যাসিবাদের প্রতিধ্বনি। দলটির বক্তব্য আপনি সমর্থন করেন?
4 + 9 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুন - ২১
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :