The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, ১ ফাল্গুন ১৪১৯, ২ রবিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ সেমিফাইনালে চিটাগং কিংস | মহিলা বিশ্বকাপ ক্রিকেট: প্রথমবারের মতো ফাইনালে উইন্ডিজ | জামায়াতের বিষয় নিয়ে কাল ইসির বৈঠক | জাবি ভিসির পদত্যাগের সিদ্ধান্ত | আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সংশোধন বিল সংসদীয় কমিটিতে অনুমোদন | ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ও জেলা জজকে হাইকোর্টে তলব | মতিঝিল এলাকায় জামায়াত-শিবিরের তাণ্ডব | মোশতাকের নির্দেশে কিছু সেনাকর্মকর্তা জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করেছে: এটর্নি জেনারেল | বিপ্লবী বসন্তে আগুন ঝরছে শাহবাগে | কাদের মোল্লা ও কামারুজ্জামানের প্রেসক্লাবের সদস্যপদ বাতিল

নির্বাচিত হলে সব মানবতাবিরোধীর বিচার করবো

তরুণ প্রজন্মের প্রতি বিএনপি

শাহবাগের তরুণ প্রজন্মের সমাবেশের উদ্দেশ্যে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, বিএনপি যদি নির্বাচিত হয়ে রাষ্ট্রীয় দায়িত্বে আসে তাহলে বিচার বিভাগের পূর্ণ স্বাধীনতা নিশ্চিত করবে এবং অবশ্যই মানবতাবিরোধী অপরাধসহ সকল ধরনের অপরাধের নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করবে।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে সোমবার রাতে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এই বিবৃতি প্রস্তুত করা হয়। এতে স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, বিগত এক সপ্তাহ ধরে বিপুল সংখ্যক তরুণ-তরুণী ১৯৭১ সালের মানবতাবিরোধী অপরাধীদের ফাঁসি প্রদানের দাবিতে ঢাকার শাহবাগে অবস্থান করছেন। তাদের সমাবেশে অবশ্য আরও কিছু অতিরিক্ত বিষয় নিয়ে প্রস্তাব পাঠ করা হয়েছে। দেশের তরুণ প্রজন্ম জাতির বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে আগ্রহী হবেন এবং যৌক্তিক ও কার্যকর অবস্থান নেবেন এটাই কাঙ্খিত। তাই তারুণ্যের এই উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। সমাবেশ মঞ্চ থেকে সমাবেশটিকে দল নিরপেক্ষ বলে দাবি করলেও ক্রমান্বয়ে এটা প্রতীয়মান হচ্ছে একটি বিশেষ রাজনৈতিক ঘরানার ব্যক্তিদের হাতেই এর নেতৃত্ব কুক্ষিগত করার প্রয়াস চলছে। সমাবেশ মঞ্চ থেকে মুক্তিযুদ্ধের সময় বহুলভাবে উচ্চারিত একটি শ্লে¬াগান স্বাধীনতা উত্তরকালে চরমভাবে দলীয়করণ করার ফলে যা সর্বজনগ্রাহ্যতা হারায় সেই শ্লোগান বার বার উচ্চারিত হওয়ার ফলে জনমনে চরম সংশয় এবং সমাবেশের নিরপেক্ষতা সম্পর্কে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে আরো বলা হয়, জনগণ আজ ১৯৭১ এর মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচারের দাবিতে ঐক্যবদ্ধ। বিএনপি সর্বদা এই বিচারের পক্ষে। একই সঙ্গে বিচারটি যাতে স্বচ্ছ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন হয় বিএনপি সে দাবিও জানিয়ে আসছে। বিএনপি'র এই দাবীর প্রতি সম্মান দেখালে বিচারটি প্রশ্নবিদ্ধ হত না। দেশের মানুষের আকাঙ্খা বিবেচনা করে অভিযুক্তদের মৃত্যুদণ্ড দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়াজেদ বিচারকদের অনুরোধ জানিয়ে সমগ্র জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে আন্দোলনকারীদের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে সমাবেশ মঞ্চের ঘোষণা বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। অথচ মানবতাবিরোধীসহ যে কোন অপরাধে অভিযুক্তদের যথাযথ ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকার প্রধানের। বিচারকরা তাদের নিজস্ব মূল্যায়ন, যুক্তিতর্ক ও সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে স্বাধীনভাবে যদি রায় ঘোষণা করতে না পারেন তা হলে সমগ্র বিচারিক প্রক্রিয়া প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়বে। এটা আইনের শাসন ও ন্যয়বিচার এর পরিপন্থী। শাহবাগের সমাবেশ থেকে কিছু মিডিয়া ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধেও অনাকাংখিত হুমকি উচ্চারিত হয়েছে। বহুদলীয় গণতন্ত্রে ভিন্নমত ও পথের প্রতি এ ধরনের অসহিষ্ণুতা নৈরাজ্যকে অনিবার্য করে দেশকে গভীর সংকটে নিপতিত করতে পারে। এটা কারও কাম্য হতে পারে না। তরুণ প্রজন্ম দেশের ভবিষ্যত্। তারা অন্যায়, অত্যাচার ও অবিচারের বিরুদ্ধে কথা বলবে, অবস্থান নেবে এবং প্রয়োজনে আন্দোলনে নামবে এটাই স্বাভাবিক। আমরা বিশ্বাস করি, তরুণ-তরুণীরা সকল ধরনের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধকে ধারণ করবে এবং এদেশে সংগঠিত মানবতাবিরোধী সকল অপরাধের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবে। স্বাধীনতার অব্যবহিত পর পরই সিরাজ সিকদার, অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধা ও অগণিত তরুণ-তরুণী যেভাবে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন এবং সামপ্রতিককালে ইলিয়াস আলী ও চৌধুরী আলমসহ যারা গুম হয়েছেন, গার্মেন্টস শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলামের হত্যা এবং এডভোকেট এম.ইউ. আহমেদসহ যারা পুলিশ হেফাজতে মৃত্যুবরণ করেছেন সেই সব মানবাধিকার লংঘনের বিষয়গুলো, শিশু ও নারী নির্যাতন, বিশ্বজিত্-এর হত্যাকাণ্ড, সাগর-রুনী হত্যাকাণ্ড, দুর্নীতির অভিযোগে পদ্মা সেতুর জন্য বিশ্বব্যাংকের অর্থায়ন প্রত্যাহার, হলমার্ক, ডেসটিনি, শেয়ার-বাজার, কুইক রেন্টাল কেলেংকারী, শাসক দলের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনসমূহের সন্ত্রাস বাংলাদেশের কপালে কলংকের তিলক এঁকে দিয়েছে। এই বিষয়গুলো শাহবাগে সমেবত তরুণ সমাজের হূদয় ও আবেগকে স্পর্শ করলে এবং তাদের উদ্বেগ ও প্রতিবাদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করলে বর্তমানের আন্দোলন আরও মহিমান্বিত হতো। আমরা আশা করব, শাহবাগে সমবেত তরুণ-তরুণীরা দেশবাসীর এ সকল উদ্বেগ ও উত্কণ্ঠা ধারণ করবেন।

স্থায়ী কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ১৯৭১ সনে হানাদারমুক্ত হওয়ার পর থেকেই বাংলাদেশের জনগণ বহুদলীয় গণতান্ত্রিক অধিকার, ন্যায় বিচার, মানবাধিকার, সুশাসনসহ বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলন করে আসছে। এসব অধিকার প্রতিষ্ঠিত হলেই মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়িত হবে। বাংলাদেশের জনগণ বর্তমানে নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সকল দলের অংশগ্রহণে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য আন্দোলন করছেন। আমরা বিশ্বাস করি, দেশের এই ক্রান্তিকালে গণতন্ত্রকে রক্ষা এবং অব্যাহত রাখার জন্য আগামী নির্বাচন হতে হবে অবাধ, সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ। একমাত্র নির্দলীয়, নিরপেক্ষ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে। তাই আমাদের সকলের প্রত্যাশা নতুন প্রজন্ম বহুদলীয় গণতন্ত্রকে রক্ষা এবং অব্যাহত রাখার জন্য একটি বলিষ্ঠ ভূমিকা গ্রহণ করবে। আজ সময় এসেছে, দেশের ভবিষ্যত্ প্রজন্মের স্বার্থে বাংলাদেশকে একটি গণতান্ত্রিক, শক্তিশালী, আত্মমর্যাদা সম্পন্ন ও সমৃদ্ধ রাষ্ট্রহিসেবে গড়ে তোলার। বাংলাদেশের জনগণ এই স্বপ্নকে লালন করেই মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার ঐক্যবদ্ধ সংগ্রামে অংশগ্রহণের জন্য আমরা তরুণ-প্রজন্মসহ দেশের সকল মানুষের প্রতি আহ্বান জানাই।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি বলেছে শাহবাগের কিছু ঘটনা ফ্যাসিবাদের প্রতিধ্বনি। দলটির বক্তব্য আপনি সমর্থন করেন?
7 + 4 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুন - ২১
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :