The Daily Ittefaq
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ১ ফাল্গুন ১৪২০, ১২ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ মানিকগঞ্জে বাসে ধর্ষণ : চালক-সহকারীর যাবজ্জীবন | লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ কর্মীকে গুলি করে হত্যা | বাতিল হওয়া সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৪ মার্চ | কোপা দেল রে'র ফাইনালে বার্সেলোনা

অতিমানবিক ফিল্ডিংয়ের দিন

 স্পোর্টস রিপোর্টার

শুরুটা করেছিলেন ফরহাদ রেজা। দিনেশ চান্দিমালের উইকেট ছেড়ে বেরিয়ে এসে লং অফ দিয়ে তুলে মারলেন। ফরহাদ রেজা 'অ্যাক্রোবেটিক' ভঙ্গিতে শরীর বাকিয়ে দড়ির ওপর থেকে বল ধরে নিলেন। এরপর নাসির হোসেন হলেন 'ঝন্টি রোডস', এনামুল হক বিজয় 'ক্রিস কেয়ার্নস' হয়ে আবার মাঠের বাইরে থেকে যেন ক্যাচ ধরে আনলেন। আর শেষ পর্যন্ত অ্যাঞ্জোলো ম্যাথুস মিড অন থেকে দৌড়ে বাউন্ডারির কাছে গিয়ে ধরে ফেললেন তামিম ইকবালের ক্যাচ!

এটাকে ফিল্ডারদের ম্যাচ ছাড়া আর কী বলবেন? ও হ্যা, বলতে পারেন—ক্যাচারদের ম্যাচ!

বাংলাদেশের হয়ে আক্রমণের শুরুটা অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজাই করেছিলেন। নিজের প্রথম ওভারের শেষ বলে তিলকরত্নে দিলশানকে ফিরিয়েছিলেন বোল্ড করে; দিলশান তখনও রানের খাতা খুলতে পারেননি। এরপর থেকে একপ্রান্তে কুশল পেরেরা আক্রমণ চালিয়ে গেলেও বাংলাদেশের ফিল্ডারদের অসাধারণ ফিল্ডিং, ভালো করে বললে, অসাধারণ ক্যাচিং শ্রীলঙ্কাকে আর কখনোই ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিতে দেয়নি।

কুশলের সঙ্গে চান্দিমাল যখন ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছিলেন, তখনই সাকিবের বলে ফরহাদের ওই অবিশ্বাস্য ক্যাচ। ক্যাচ এরপর টানা তিনটি ধরেছেন বাংলাদেশি ফিল্ডাররা। তবে নাসির ও এনামুলের ক্যাচ দুটিকে অবিশ্বাস্য বললেও আসলে কম বলা হয়। সাকিবের বলে নাসির শূন্যে শরীরকে একেবারে মাটির সমান্তরাল করে ফেলে যে ক্যাচ ধরলেন, তা বিজ্ঞাপনেই সম্ভব বলে মনে হয়।

সাঙ্গাকারা অনেকটা বোলারের মাথার ওপর দিয়েই পুল করে দিয়েছিলেন। এমনিতে ওই জায়গাটাই ফিল্ডার ছিল না। কিন্তু পুরো স্প্রিন্ট টেনে এসে শূন্যে উড়ে গিয়ে নাসির বল নিয়ে নিলেন হাতের মধ্যে। অবিশ্বাসের চোখে বেশ খানিক্ষণ নাসিরের দিকে চেয়ে রইলেন সাঙ্গা। এই দৃশ্য বিশ্বাস করাটা তো কঠিনই বটে।

নাসির এর পরপরই বাউন্ডারি লাইনে এসে প্রসন্নর ক্যাচ ধরলেন। তবে সবই ম্লান হয়ে গেল এনামুল হক বিজয়ের ক্যাচের কাছে। উইকেটের পেছনে এই ম্যাচে দাঁড়াননি। দাঁড়িয়েছিলেন বাউন্ডারিতে। আর সেখানেই ধরে ফেললেন সর্বোচ্চ স্কোরার কুশলের ক্যাচ। কুশল উইকেট ছেড়ে বেরিয়ে এসে মিড উইকেট দিয়ে ছক্কা বলেই মেরেছিলেন। ক্যামেরাও ছক্কা ভেবে গ্যালারিতে চলে গেল; কিন্তু বল এলো না। আসবে কী করে? এনামুল তাকে আটকে দিলেন বাউন্ডারি লাইনের ঠিক ওপরে। লাফ দিয়ে শূন্যে উঠে বল হাতে নিয়ে এক পায়ে নামলেন। তারপর দড়ি থেকে ইঞ্চিখানেক ব্যবধানে ভারসাম্যটাও সামলে নিলেন। আরেকটা 'ওয়াও ক্যাচ'।

এর বিপরীতে শ্রীলঙ্কা শুরু থেকেই বেশ ফিল্ডিং মিস করছিলো। মনে হচ্ছিল, এটাই পার্থক্য। কিন্তু টেস্ট অধিনায়ক ম্যাথুস সেই পার্থক্যটা কমিয়ে দিলেন। দুর্দান্ত খেলতে থাকা তামিম পুল করলেন। বল ম্যাথুসের অনেক দূর থেকে শূন্যে ভাসছিল। ম্যাথুস মিড অন থেকে সেই লং পর্যন্ত ছুটে এসে উল্টো ঘুরে তালুতে নিয়ে নিলেন ক্যাচ।

এখানেই শেষ করা যেত; গেল না। খেলার ১৬তম ওভারের ঘটনা। অজন্তা মেন্ডিসের বলে নাসির হোসেন সেই লং অন থেকেই তুলে মারলেন। ঠিক এনামুলের মতো করে লাফ দিয়েছিলেন পেরেরা। কিন্তু বল হাতে লেগেও ছক্কা হয়ে গেল।

পার্থক্যটা তাহলে এখানেই?

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, ৫ বছর পর একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে এবং তা হবে বর্তমান সংবিধান আলোকেই। আপনি কি তার সাথে একমত?
7 + 9 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
মে - ২০
ফজর৩:৪৯
যোহর১১:৫৫
আসর৪:৩৪
মাগরিব৬:৩৯
এশা৭:৫৯
সূর্যোদয় - ৫:১৩সূর্যাস্ত - ০৬:৩৪
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :