The Daily Ittefaq
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ১ ফাল্গুন ১৪২০, ১২ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ মানিকগঞ্জে বাসে ধর্ষণ : চালক-সহকারীর যাবজ্জীবন | লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ কর্মীকে গুলি করে হত্যা | বাতিল হওয়া সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ১৪ মার্চ | কোপা দেল রে'র ফাইনালে বার্সেলোনা

দুই আসামির যাবজ্জীবন একজনের সাজা বহাল

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার সাক্ষী হত্যা

ইত্তেফাক রিপোর্ট

বঙ্গবন্ধু ও জেলহত্যা মামলার সাক্ষী কমোডর (অব.) গোলাম রাব্বানী হত্যায় আসামি আবু নাসের চৌধুরী ও হুমায়ূন কবির চৌধুরীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে হাইকোর্ট। একইসঙ্গে নিম্ন আদালতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মো. সেলিমের দণ্ড বহাল রেখেছে উচ্চ আদালত। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. আকরাম হোসেন চৌধুরীর ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল বুধবার এ রায় দেন।

এর আগে বিচারিক আদালত আবু নাসের চৌধুরী ও হুমায়ূন কবির চৌধুরীকে ৫ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছিলো। নিম্ন আদালতে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কারাবন্দি আসামি সোহেল ওরফে আব্দুল মালেককে খালাস দিয়েছে হাইকোর্ট। তবে নিম্ন আদালতে খালাস পাওয়া আসামি মো. সাইফুল ইসলামের ক্ষেত্রে হাইকোর্টের অভিমত সাপেক্ষে নতুন করে রায় দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। একইসঙ্গে রায়ের কপি প্রাপ্তির ছয় সপ্তাহের মধ্যে চার আসামিকে (নাসের, হুমায়ুন, সেলিম ও সাইফুল) বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আসামিদের আপিল এবং সাজা বাড়াতে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনের ওপর শুনানি শেষে গতকাল হাইকোর্ট এ রায় প্রদান করে।

রায়ের পর এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সাংবাদিকদের বলেন, নিহত গোলাম রাব্বানী একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। যখন বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় সাক্ষী হতে কেউ রাজি হচ্ছিল না তখন গোলাম রাব্বানী সাহস করে সাক্ষী হন। এমন ব্যক্তিকে হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি (মৃত্যুদণ্ড) হওয়াটাই কাম্য। সর্বোচ্চ শাস্তি হলেই আমি ব্যক্তিগতভাবে খুশি হতাম।

উল্লেখ্য, কোরিয়ান এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোনের (কেইপিজেড) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) পদে কর্মরত কমোডর (অব.) গোলাম রাব্বানী ২০০৪ সালের ১১ এপ্রিল গুলিবিদ্ধ হন। ওই ঘটনায় কেইপিজেডের সাবেক পরিচালক আবু নাসের চৌধুরী ও কর্মচারী হুমায়ূন কবির চৌধুরীর নাম উল্লেখ করে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় সেদিনই হত্যা চেষ্টার অভিযোগে মামলা করেন কেইপিজেড-এর সাইট ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম ইমতাজুল ইসলাম। ওই বছরের ২৪ এপ্রিল চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা যান গোলাম রাব্বানী। এরপর মামলাটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হয়। পরবর্তীতে তদন্ত শেষে একই বছরের ২৮ আগস্ট আবু নাসের চৌধুরী, হুমায়ূন কবির চৌধুরী, সাইফুল ইসলাম ওরফে বিলাই সাইফুল, মনছুর আলম, মো. সেলিম, সোহেল ওরফে আব্দুল মালেক ও মো. হাশেমকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। মামলার বিচার শেষে ২০০৫ সালের ৭ এপ্রিল চট্টগ্রামের দ্রুত বিচার আদালত রায় ঘোষণা করেন। এ রায়ে মো. সেলিম, মো. হাশেম ও সোহেলকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। এছাড়া আবু নাসের চৌধুরী ও হুমায়ূন কবির চৌধুরীকে হত্যার ষড়যন্ত্র করার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে প্রত্যেককে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। অপর দুই আসামি সাইফুল ইসলাম ওরফে বিলাই সাইফুল ও মনছুর আলমকে খালাস দেয়া হয়। নিম্ন আদালতের রায়ের পর যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল করেন আসামি মো. হাশেম। শুনানি শেষে ২০০৮ সালের ৭ আগস্ট হাইকোর্ট তাকে খালাস দিয়ে রায় দেন।

অপরদিকে সাজাপ্রাপ্ত অপর চার আসামি আবু নাসের চৌধুরী, হুমায়ূন কবির চৌধুরী, মো. সেলিম ও সোহেল নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে ২০০৫ সালে পৃথকভাবে আপিল করেন। পাশাপাশি নিম্ন আদালতে সাজাপ্রাপ্ত আসামিদের সাজা বাড়াতে এবং নিম্ন আদালতের রায়ের খালাসপ্রাপ্ত মো. সাইফুলের খালাসের রায় পুনর্বিবেচনা করতে বাদীপক্ষ হাইকোর্টে পৃথক আবেদন করে। আদালতে আসামিপক্ষে ছিলেন এডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, এডভোকেট মনসুরুল হক চৌধুরী, এডভোকেট নুরুল ইসলাম সুজন, এডভোকেট ফরিদউদ্দিন খান, এডভোকেট মোহাম্মদ রেজাউল হক ও ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এটর্নি জেনারেল এডভোকেট মাহবুবে আলম, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোশাররফ হোসেন সরদার এবং বাদীপক্ষে ছিলেন এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, আব্দুর রেজাক খান, শেখ মোহাম্মদ আলী।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, ৫ বছর পর একাদশ সংসদ নির্বাচন হবে এবং তা হবে বর্তমান সংবিধান আলোকেই। আপনি কি তার সাথে একমত?
6 + 7 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ২২
ফজর৪:৫৯
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৮সূর্যাস্ত - ০৫:১০
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :