The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ২ ফাল্গুন ১৪২০, ১৩ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ গোপালগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫, আটক ১১ | ২-০ তে সিরিজ জিতল লঙ্কানরা | লন্ডনে বাংলাদেশি নারী খুন, ছেলে গ্রেফতার | যশোরের অভয়নগরে চৈতন্য হত্যার আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

হূদয়ের উচ্ছলতা ঢেলে বসন্ত বরণ

ইত্তেফাক রিপোর্ট

পলাশ-শিমুলের ডালে ডালে আগুন রাঙা ফুলের সমাহার। সেই সঙ্গে শীতের রুক্ষতা ঝেড়ে ফেলে গাছেরা সেজেছে নতুন সবুজ-সজীব পাতায়। সেই পাতার আড়ালে কোকিলের ব্যাকুল কুহুতান। এই তো বসন্তের আগমনী বারতা। বহু বর্ণে বর্ণিল, আলোক উজ্জ্বল, প্রাণপ্রাচুর্য্যময় সেই ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করতে হূদয়ের সকল উচ্ছ্বলতা ঢেলে দেয় রাজধানীবাসী। গতকাল বৃহস্পতিবার বসন্তের প্রথম দিনে পূর্ব আকাশে ভোরের আলো ফুটতে না ফুটতেই শিশু থেকে বৃদ্ধ- সব বয়সী নর-নারীর ঢল নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের বকুল তলায়। মেয়েরা রঙিন শাড়ি, চুড়ি, জামা আর বাহারী ফুলের সাজে সাজিয়ে ছিল নিজেদের। কোকিলের সুমধুর সুর ধ্বনি আর প্রকৃতির রঙিন সাজ যেন ফুঁটে ওঠে তরুণ-তরুণীদের মাঝে। প্রকৃতির এ আমেজ দেখে সহজেই অনুমেয় হয় 'বসন্ত এসেছে দ্বারে দ্বারে...'।

পঞ্জিকার নিয়ম অনুসারে বসন্তের আগমনী দিনকে স্বাগত জানাতে জাতীয় বসন্ত উদযাপন পরিষদ-১৪২০ আয়োজন করে বসন্ত বরণ উত্সবের। বেহালার সুর, গান, কবিতা, নৃত্য ও কথনে সাজানো হয়েছিল বসন্ত উত্সব। প্রতিবছরের মতো এবারও বকুলতলায় সকাল সোয়া ৭টায় যন্ত্র সংগীত শিল্পী আকরাম হোসেন এর 'এসরাজ' এর সুরের মূর্ছনায় শুরু হয় বসন্তবরণ।

খ্রিস্টীয় ক্যালেন্ডারে ফেব্রুয়ারি মাসে বসন্ত আসে বলে, একে বলা হয় আন্দোলনের ঋতু। এ ঋতুতেই বাঙালি করেছিল ভাষার জন্যে আন্দোলন। ফুল ফোটানো এই বসন্তে ফুটেছে বাঙালির আন্দোলনের ফুল। তাইতো এ বসন্তকে তারুণ্যের অভিবাদন।

লাল, হলুদ আর কমলা রঙের ছটায় সাজানো হয় উত্সবের মঞ্চ। ঋতু বন্দনায় শিল্পীরা পরিবেশন করেন গান, নৃত্য ও আবৃত্তি। দলীয় সংগীত পরিবেশন করে সুরের ধারা, সত্যেন সেন ও সুরসপ্তক, ধ্রুবতান শিল্পীগোষ্ঠী। নৃত্যশিল্পী শর্মিলী বন্দোপাধ্যায় এর পরিচালনায় 'নৃত্যনন্দন' পরিবেশন করে 'দোল ফাগুনের দোল লেগেছে আমার বনে দোল...' গানের সঙ্গে দলীয় নৃত্য। নৃত্যশিল্পী প্রেমার পরিচালনায় 'ধৃতি'র পরিবেশিত নৃত্য 'যাও যাও যাওগো/ এবার যাবার আগে রাঙিয়ে দিয়ে যাও...'। নটরাজ পরিবেশন করে লায়লা হাসান পরিচালিত 'আজ সবার রঙে রং মিশাতে হবে, ওগো আমার প্রিয় তোমার রঙিন উত্তরীয়...' গানের সঙ্গে দলীয় নৃত্য। একক সংগীত পরিবেশন করেন চন্দনা মজুমদার ও খায়রুল আনাম শাকিল।

বসন্ত কথনে মঞ্চে আসেন সংস্কৃতি সচিব রণজিত্ কুমার বিশ্বাস, বসন্ত উত্সব উদযাপন পরিষদেরসহ সাধারণ সম্পাদক স্থপতি সফিউদ্দিন, সহসভাপতি কাজল দেবনাথ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মানজার চৌধুরী সুইট, অভিনয় শিল্পী ও নারীনেত্রী রোকেয়া রফিক প্রমুখ।

এ সময় সংস্কৃতি সচিব বলেন, 'আজ এখানে এসে মনে হচ্ছে আমরা মানুষের বাগানে এসেছি। বসন্ত ঋতুর সঙ্গে রঙের মেলা, প্রাণের মেলা লেগেছে। যতদিন বাঙালির মধ্যে এই আন্তরিকতা থাকবে, ততোদিন কোন সাম্প্রদায়িকতা আমাদের ছুঁতে পারবে না।'

একই স্থানে বিকেল সাড়ে তিনটায় অনুষ্ঠিত হয় বসন্তবরণ উত্সবের দ্বিতীয় পর্ব, চলে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যে ৭টা পর্যন্ত ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরে এবং বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে সন্ধ্যে ৭টা পর্যন্ত পুরনো ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কেও অনুষ্ঠিত হয় বসন্ত উত্সব। উত্সবকে ঘিরে ঢাবাবাসী সংগঠন আয়োজন করে মেহেদী শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, 'উপজেলা নির্বাচনেও ভাগ বাটোয়ারার ষড়যন্ত্র করছে আওয়ামী লীগ।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
8 + 4 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৪
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৮
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :