The Daily Ittefaq
ঢাকা, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ৫ ফাল্গুন ১৪২০, ১৬ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ ১৩ রানে হারল বাংলাদেশ | নাইজেরিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ১০৬ জন | আল-কায়েদার ভিডিও বার্তার সঙ্গে বিএনপির যোগসূত্র নেই: মির্জা ফখরুল | চট্টগ্রামের অপহৃত স্বর্ণ ব্যবসায়ী উদ্ধার

আমি ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিতে যেমন জানি, দিতেও জানি

তিনি শাকিব খান। চলচ্চিত্রের গত দুই দশক ধরে ঢালিউডের মূল ড্রাইভিংয়ের চেয়ারে আসীন হয়ে আছেন তিনি। চলচ্চিত্রের সবচেয়ে জনপ্রিয় তারকার আসনটির পাশাপাশি শিল্পী সমিতির সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করছেন। কিন্তু অভিনেতা হিসেবে যতটা সাফল্য ঠিক ততটাই ব্যর্থতার দায় তার সাংগঠনিত নেতা পরিচয়ের। এসব বিষয়েই নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো খণ্ডন করেছেন, সাম্প্রতিক কাজের কথা বলেছেন বিনোদন প্রতিদিন-এর কাছে। সাক্ষাত্কার নিয়েছেন

তারিফ সৈয়দ

সোজাসাপ্টা প্রশ্ন করি, চলচ্চিত্র প্রযোজনায় এলেন কী ভেবে?

আপনারাই তো বলেন, অনেক সিনিয়র অভিনেতারা চলচ্চিত্র থেকে শুধু নিতেই জানে। দিতে জানে না। আমি ইন্ডাস্ট্রি থেকে নিতে যেমন জানি, দিতেও জানি। এই শাকিব খানকে যারা তৈরি করেছেন তাদের নিয়েই থাকতে চাই আজীবন। এ কারণেই চলচ্চিত্র প্রযোজনা করছি। আমরা সম্পৃক্ত না থাকলে ফিল্মের কোনো উন্নতি হবে না। আমার সমসাময়িক অনেকেই ইন্ডাস্ট্রির খারাপ সময় দেখে কর্পোরেট অফিসার হয়েছেন, কেউ অন্য ব্যবসায় টাকা খাটিয়েছেন। আমারও সেই সুযোগ আরও বেশি ছিল। কিন্তু আমি আজন্ম এই অভিনেতা শাকিব খান হয়েই বাঁচতে চাই। মরতেও চাই।

কিন্তু অভিনেতা শাকিব আর নেতা শাকিবের তো বিস্তর ফারাক। এ প্রসঙ্গে গোটা শাকিব খান কী বলবে?

(হেসে) দেখুন ভাই, আমি মানুষ, রোবট নই। গত দুই দশক ধরে এই ইন্ডাস্ট্রি একা আমিই টানছি। অবশ্যই ভক্তরা আমার ছিল বলেই। কিন্তু এটাই তো আমার বড় দায়িত্ব। আমি কিন্তু দু'টি ছবির শিডিউল একসাথে নিতে চাইনি কোনোদিন। কিন্তু জোর করে যখন টাকা ফেলে চাইবেন। নানান জনের মাধ্যমে আমার শিডিউল নেওয়ার দেন দরবার করবেন। তখন তো আমি সবার শত্রু হতে চাই না। তাই খুব সিম্পলি এড়ানোর চেষ্টা করি। কিন্তু আমার কাছে প্রডিউসার বায়না ধরে অনুরোধের সুরে বলেন, আপনার সময়মতো যেকোনো শিডিউল দিলেই হবে। এরপর তার মুখ রক্ষার্থে শিডিউল দেওয়ার একমাসের মাথায় আমার নিজেরই নিউজ দেখি পত্রিকায় সেই পরিচালক বা প্রডিউসারের বরাত দিয়ে, তাকে নাকি আমি ভোগাচ্ছি। এটা তো ভাই একরকম ব্ল্যাকমেইল। এরপরও কারও বিরুদ্ধে একটু টু শব্দ করিনি। কারণ আমি জানি ওই ভদ্রলোক আবার আমার সামনে এসেই কাঁচুমাঁচু হয়ে বলবে, 'বুঝেনই তো সাংবাদিকরা নিজের মতো করে লিখে দেয়। আমি কিন্তু বলিনি। এরপরে আবার শিডিউলটা বের করে দিয়েন।' আমি বুঝি সে মিথ্যে বলছেন।

কিন্তু এই যে অন টাইম সেটে না থাকার জনপ্রিয় অভিযোগ আপনার বিরুদ্ধে এটার বিষয়ে কী বলবেন?

হা হা হা। এটারও জনপ্রিয় সত্য ব্যাখ্যা আছে। দেখুন একসাথে অনেকগুলো কাজ করি বাধ্য হয়ে। কারণ না হলে অন্যদের নিয়ে টেবিল ক্যাশ ওঠে না। মিনিমাম গ্যারান্টি নেই কারও ছবিতে। এটা আমি বাস্তবতা বলছি। কাউকে কটাক্ষ করছি না। এখন দুই শিফট শুটিং শেষ করে কোনো ছবির পার্টি কল বা প্রডিউসারের সাথে আলাপে বসলেই রাত হয়। পরদিন দেরি হয়। আমি বাসায় ফিরতে চাইলেও পারি না। রাতে আটকে রাখে। হয়তো কোনো ওপেনিং। কোনো কোম্পানির ডিনার প্রোগ্রাম। এগুলো থেকে আমি পালিয়েও তো বাঁচতে পারি না।

আর শিল্পী সমিতির নেতা হিসেবে অভিযোগগুলো কিন্তু অনেক।

এই অভিযোগগুলোর ব্যাখ্যা অনেক। একা সভাপতির দায়িত্ব না সাংগঠনিক ব্যর্থতা গোনার। এরপরও আমি বলব প্যানেলের আমিসহ কয়েকজনই নিয়মিত ইন্ডাস্ট্রির লাইটম্যান থেকে শুরু করে প্রোডাকশন বয়ের খোঁজ নিই। বা দেখা হয়। সুখ দুঃখের কথা হয়। কারণ এটাই আমার ঘর-সংসার, এর ভেতরে আমি কোথায় কোন কাজে কী পরিস্থিতিতে ব্যস্ত, সেটা কিন্তু আমি বা ওই প্রোডাকশনই বুঝে। এর ব্যখ্যা দিলে দেওয়াই যায়। কিন্তু অমানবিক আমি নই। আর সে কারণেই নিজের আয় রোজগার এই ইন্ডাস্ট্রিতেই আবার ইনভেস্ট করছি। কারণ এই ইন্ডাস্ট্রিই আমার সব।

নিজের প্রযোজনা নিয়ে বলুন। অপু বিশ্বাসেরর প্যারালালি ববিকে রাখলেন বলে অনেকেই বিষয়টি অন্যভাবে দেখছে। নিজের পরীক্ষিত জুটির প্রতিও কি তবে প্রযোজক শাকিব আস্থা রাখতে পারছেন না?

এটুকু রহস্য থাকুক না। এ রহস্য দেখতে হলেই হলে আসতে হবে। কারণ প্রযোজক হিসেবে আমি নতুন কিছু না দিলে তো কেন প্রযোজক হলাম। হা হা হা। দেখুন যত অভিযোগের কথাই মানুষ বলুক। আমি টিকে আছি বা শীর্ষে আছি আমার অভিনয়ের জন্য। কারণ আমি আর যাই করি অভিনেতা শাকিব শতভাগ সত্। এখানে কোনো ফাঁকি দেয় না সে।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল শফিকুর রহমান বলেছেন, 'আল-কায়েদার সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের কোন সম্পর্ক নেই'। আপনিও কি তাই মনে করেন?
6 + 4 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুলাই - ১৮
ফজর৩:৫৬
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৩
সূর্যোদয় - ৫:২১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :