The Daily Ittefaq
ঢাকা, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৪, ৫ ফাল্গুন ১৪২০, ১৬ রবিউস সানী ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ ১৩ রানে হারল বাংলাদেশ | নাইজেরিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ১০৬ জন | আল-কায়েদার ভিডিও বার্তার সঙ্গে বিএনপির যোগসূত্র নেই: মির্জা ফখরুল | চট্টগ্রামের অপহৃত স্বর্ণ ব্যবসায়ী উদ্ধার

দিনে উত্সব রাতে ফেসবুক

সামিহা সুলতানা অনন্যা

পহেলা ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবস এ দুটি দিনই ছোট-বড় সব বয়সীদেরই কেটেছে উত্সবের মধ্যে দিয়ে।

সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও সে উত্সবের আমেজ এখনও থামেনি। ফেসবুক জুড়ে সবার ছবি, স্ট্যাটাস, বিভিন্ন পেইজে লেখার মধ্যে এখনও চলছে তারই প্রকাশ। সারাদিনের আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতেই যেন ফেসবুক

মাত্র দুই দিন আগে ফেসবুকে আপলোড করা ছবিগুলোই দেখছিলাম রাতে বসে বসে। সে সব ছবি জুড়ে রয়েছে উত্সবমুখর সেই দিনগুলোর ছবি। ঋতুচক্রে ঘুরে ঘুরে পহেলা ফাল্গুন আবার এল ফিরে আমাদের মাঝে, নানা রঙ নিয়ে ফিরে এল বসন্ত। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি চারুকলায় বসন্তকে বরণ করতে ভোর সাতটা থেকেই ছিল নানা আয়োজন। সারা দিন জুড়ে গান, রঙ উত্সব, বন্ধুরা একসাথে স্মৃতিচারণ সবই চলেছে এদিনটির জন্য আমাদের অপেক্ষা ও প্রস্তুতি শুরু হয় বহু আগে থেকে। আমরা সব বান্ধবীরা মিলে হল থেকে ভোর ছয়টায় চলে যাই চারুকলায়। আমাদের সবার শাড়ি ছিল একরকম হলুদ শাড়ি, সবুজ পাড়। মাথায় ফুলের মালা। আমরা গান গেয়ে বসন্তকে বরণে অংশ নেই। দিনের বাকি সময় কাটে বইমেলা আর কার্জনের মাঠে আড্ডার মধ্যে দিয়ে। চারদিকে বসন্তের নানা রঙের ছড়াছড়ি। মেয়েরা সবাই প্রায় হলুদ শাড়ি আর ছেলেরা পাঞ্জাবী পরে যার যার বন্ধুদের সাথে নিজেদের মত করে দিনটিকে বরণ করে নিয়েছে। সবার আনন্দে একদিনের জন্য সবাই ভুলে গিয়েছিল মনের সব ক্ষত দুঃখ ব্যথা। পরের দিন ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালবাসা দিবসকে বরণ করা হল নানা উত্সবের মধ্যে দিয়ে। বন্ধুরা মিলে দিনে আনন্দ আর রাত জুড়ে তার স্মৃতিচারণ এভাবে উত্সবের মধ্যে দিয়েই কেটে গেল দিনগুলো। গত সপ্তাহের সে দুই দিনের উত্সবের আমেজ এখনও পর্যন্ত চলছে উত্সবপ্রিয় এ দেশবাসীর মনে। বলছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্সের ছাত্রী মনিকা।

পহেলা ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবস এ দুটি দিনই ছোট-বড় সব বয়সীদেরই কেটেছে উত্সবের মধ্যে দিয়ে। সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও সে উত্সবের আমেজ এখনও থামেনি। ফেসবুক জুড়ে সবার ছবি, স্ট্যাটাস, বিভিন্ন পেইজে লেখার মধ্যে এখনও চলছে তারই প্রকাশ। সারাদিনের আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতেই যেন ফেসবুক। তাই এই আনন্দের দিনগুলো ছোট, বড় সকল বয়সীদের মনে ছিল আনন্দ।

আমার দিনগুলো খুব ভালোই কেটেছে। পহেলা ফাল্গুন প্রতিবারের মত স্কুল বন্ধ ছিল কিন্তু এবার খুবই মজা হয়েছে। ভোর সাতটার দিকে আমরা চারুকলা চলে গিয়েছিলাম। আমি হলুদ পরীর মত সেজে গিয়েছিলাম বসন্তকে বরণ করতে। আমি মাথায় ফুলের তোড়া আর সম্পূর্ণ হলুদ রঙের এক শাড়ি পড়েছিলাম। আমার বয়সী অনেকেই এসেছিল। গান শুনে ডুগডুগি বাজাতে বাজাতে, বেলুন ওড়াতে ওড়াতে আমরা বইমেলা গেলাম। আমি রূপকথার গল্পের বইও কিনি। এই দিনে আমার কোন বাধ্য-বাধকতা ছিল না। সারাদিন বাবা-মা আমাকে নিয়ে ঘুরে। এরপরের দিন ভালোবাসা দিবসে বাবা-মাকে আমি একটা কার্ড গিফট করি। বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে নাগরদোলা চড়া থেকে খেলনা কেনা, ঘোড়ায় চড়া, সব ভাই-বোনরা মিলে খাওয়া-দাওয়ার পার্টি করি। এমনকি কবিতা শুনতেও আমরা গিয়েছি। আর ছবি তোলার পর্বতো চলতেই থাকে। বলছিল ক্লাস থ্রির ছাত্রী প্রমা।

জীবনে অনেক আনন্দকে বাদ দিতে হয় চাকরিজীবনে এসে। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে, গান শুনে বসন্তকে বরণ করার সুযোগ বাদ দেইনি। তবে সে আনন্দ আর মজার দিনকে বাদ দিয়েই চালাতে হচ্ছে চাকরি জীবন। যেহেতু চাকরি জীবনে দিনের বেশিরভাগ অংশ কাটে অফিসে তাই এই সময়কেই আনন্দে কাটাবার চেষ্টা করি। চাকরি জীবনকে আনন্দময় করতে না পারলে এই জীবনের কোন অর্থই থাকে না। সেই প্রচেষ্টায় আমরা সবাই পহেলা ফাল্গুন হলুদ রঙের, নানা ধরনের শাড়ি পরে গিয়েছিলাম।

শুধু আমরা না আশ-পাশে বেশিরভাগ অফিসের নারীরা এদিনটিকে বরণ করতে নানা রঙের ফুল আর হলুদ, সবুজ শাড়ি পড়ে এসেছিল। তাই পহেলা ফাল্গুন অফিসের পরিবেশটিই হয়ে উঠেছিল উত্সবমুখর। অফিস শেষে সবাই নিজেরা, নইলে সন্তানকে নিয়ে বেড়াতে বের হওয়ায় রাস্তায় প্রচণ্ড ভীড় সত্ত্বেও কারও উত্সাহের কোন অভাব ছিল না। বইমেলায় গিয়েও দেখি তা সম্পূর্ণ পরিপূর্ণ। ভিতরে প্রচণ্ড ভীড় তবুও পুরনো বন্ধুদের সাথে বসে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই দিনগুলোতে ফিরে যাবার মধ্যে দিয়েই কাটে বসন্ত বরণের দিনটি। রাতে বাড়ি ফিরে ফেসবুকে নিজেদের ছবি, বন্ধুদের ছবি দেখতে দেখতেই কেটে যায় রাত। ভালোবাসা দিবস ছুটির দিন হওয়ায় তার অনুভূতি ছিল অন্যরকম। সংসারের নতুন জীবনে, নতুন স্বপ্ন চোখে দু'জনে মিলে গাছ তলায় বসে পূর্ণিমার রাতে লাল গোলাপ হাতে কবিতাবৃত্তি শুনতে শুনতে কাটানো সন্ধ্যাটির কথা বলে বুঝাতে পারব না। সারা বিকেল জুড়ে টিএসসিতে বন্ধুদের সাথে ফূর্তি, হইচই মজাও কোন অংশে কম নয়। এভাবেই মনের কথা বলছিলেন ব্যাংকার সেলিনা।

এভাবেই দিনে উত্সব আর রাতজুড়ে ফেসবুকে সে আনন্দ বিস্তৃত, দেশের বাইরেও ছড়িয়ে দেয়ার মধ্যে দিয়েই কাটে গত সপ্তাহ। ফেসবুকের মধ্যে দিয়ে যারা বিদেশে রয়েছেন তারা প্রবাসে থেকেও এসব ছবি, অভিজ্ঞতার মধ্যে দিয়ে দিনটিকে তারা উপভোগ করেন। এভাবেই উত্সবের দিনগুলো সব বয়সীদের জন্য ব্যতিক্রমি অনুভূতির মধ্যে দিয়েই পালিত হয়।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল শফিকুর রহমান বলেছেন, 'আল-কায়েদার সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের কোন সম্পর্ক নেই'। আপনিও কি তাই মনে করেন?
5 + 1 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুন - ২৫
ফজর৩:৪৫
যোহর১২:০১
আসর৪:৪১
মাগরিব৬:৫২
এশা৮:১৭
সূর্যোদয় - ৫:১২সূর্যাস্ত - ০৬:৪৭
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :