The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, ১১ ফাল্গুন ১৪১৯, ১২ রবিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ধর্ম নিয়ে কাউকে খেলতে দেয়া হবে না : প্রধানমন্ত্রী | খুলনায় ট্রেনের ধাক্কায় ট্রাকের দুই শ্রমিক নিহত | কুমিল্লা, ফরিদপুর ও ফেনীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ | ইসলামী ১২ দল চট্টগ্রামে সোমবারের হরতাল প্রত্যাহার করেছে | চট্টগ্রাম তাণ্ডবে মামলা: ২৩ নামসহ সাড়ে তিন হাজার আসামি | আগারগাঁও ইসলামী ব্যাংকের বুথ ভাংচুর | নেজামে ইসলাম পার্টির কেন্দ্রীয় কার্য়ালয়ে হামলা ভাংচুর | ইসলামী দলগুলোর ডাকা হরতালে বিএনপির সমর্থন | ২৬ মার্চের আগেই জামায়াত নিষিদ্ধের প্রক্রিয়া শুরু হবে : আইনমন্ত্রী | রাতে মাঠে নামছে বিজিবি | আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদকের বিরুদ্ধে পাঁচ মামলা | পাবনায় পিকেটার-পুলিশ সংঘর্ষ, নিহত ২ | রবিবারের এসএসসি পরীক্ষা শুক্রবার ৯টায় ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা ২৬ ফেব্রুয়ারি

বাংলাদেশে উদার গণতান্ত্রিক রাজনীতির ভবিষ্যত্

ন তু ন প্র জ ন্মে র ভা ব না

রাজনীতিতে থাকবে

প্রতিদ্বন্দ্বিতা,

প্রতিহিংসা নয়

রাজনীতি মানে নীতির রাজা। তাই যারাই এই নীতি নিয়ে ভাবে তাদের থাকতে হবে সহনশীলতা এবং সুন্দর ও সর্বগৃহীত নীতি। রাজনীতি মানে হিংসা নয়, বরং থাকবে দেশ সেবার মনভাব, থাকবে উদার মনমানসিকতা। আজকে যুক্তরাষ্ট্রের দিকে তাকালে দেখতে পাই হার-জিত যাই হোক দুই দলের মধ্যে থাকে সুসম্পর্ক। আমাদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকতে পারে, তাই বলে প্রতিহিংসা নয়।

আমাদের দেশে সরকারি দলের কেউ কেউ রাজনীতিকে পুঁজি বানিয়ে নেয়, আবার কেউ কেউ সততা নিয়ে চলে। পাশাপাশি কিছু লোকের ব্যবহারে সাধারণ মানুষ আস্থা হারিয়ে ফেলে। অন্যদিকে বিরোধী দলকে পালিয়ে বেড়াতে হয় এবং ক্ষমতাসীন দলের দোষ-ত্রুটি খুঁজে, হরতাল, ভাংচুর, রক্তপাত ঘটায় এবং এতে অনেক অর্থ হরাসের মুখে পড়তে হয়। প্রতিহিংসার রাজনীতিতে অনেক মায়ের বুক খালি হয়ে যায়।

তাই, বাংলাদেশে উদার গণতান্ত্রিক রাজনীতির ভবিষ্যত্ কোন পথে আছে তা সবাই ভেবে দেখা দরকার। আসল কথা সমঝোতাই আসল পথ।

মো. আতিকুর রহমান সোহাগ

বামনা সারওয়ার জান মডেল স্কুল এন্ড কলেজ

শ্রেণি-একাদশ, বাণিজ্য বিভাগ।

বাংলাদেশের গণতন্ত্র কি চিরকাল সোনার হরিণ হিসাবে কল্পনার খাঁচায় আবদ্ধ থাকবে

আমরা জানি 'গণ' অর্থ জনগণ আর 'তন্ত্র' অর্থ শাসন। সুতরাং গণতন্ত্র বলতে জনগণের শাসন ব্যবস্থাকে বুঝায়। এটি এমন একটি শাসন ব্যবস্থা যা জনগণের সংখ্যাধিক্যের স্বনির্বাচিত ব্যবস্থা এবং প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জনগণ কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত হয়। গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা জনসাধারণের অধিকাংশের কাছে কল্যাণকর এবং জনগণের নিজস্ব সরকার ব্যবস্থা। তাই আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকন বলেন "Democracy is the government of the people by the people and for the people"। তাই এদেশের রাজনীতি প্রতিহিংসার কারণে গণতন্ত্র আজ সুদৃঢ় ভিত্তির উপর দাঁড়াতে পারেনি। এর ভবিষ্যত্ কোথায় কেউ কি বলতে পারবে? তাই বলা যায়, গণতন্ত্র কোন চাওয়া-পাওয়ার বিষয় নয়। এটা কেউ কাউকে দিতে পারে না। আর এ কারণে গণতন্ত্রের ভিত্তি রচিত হতে হবে পারস্পরিক সহনশীলতা, শ্রদ্ধাবোধ, শান্তি ও সম্প্রীতির সহাবস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে। কিন্তু শাসক ও বিরোধী দলের অগণতান্ত্রিক এবং অবৈধ হস্তক্ষেপের দরুন স্বাধীনতার ৪২ বছর পরও এদেশের গণতন্ত্র এক গোলকধাঁধার বৃত্তে আবর্তিত হচ্ছে। তাই আমি মনে করি শাসক ও বিরোধী দলের মধ্যে নেতিবাচক মনোভাবের পরিবর্তন না হলে অদূর ভবিষ্যতে এ দেশের গণতন্ত্রে কোন ইতিবাচক সুফল বয়ে আনার সুযোগ সৃষ্টি হবে না। আর এভাবে চলতে থাকলে এ দেশের গণতন্ত্র চিরকাল সোনার হরিণ হিসাবে কল্পনার খাঁচায় আবদ্ধ থাকবে। তাই আসুন সকলে মিলে শাসক এবং বিরোধী দলের মধ্যে প্রতিহিংসার রাজনীতি চলছে তার অবসান ঘটিয়ে এক নতুন ঠিকানা তৈরি করি।

মো. আলমগীর হোসেন সুমন

বিএসএস (১মবর্ষ)

ঈশ্বরগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ।

ভবিষ্যত্ উজ্জ্বল করতে হলে নীতির পরিবর্তন চাই তাহলে উদার গণতান্ত্রিক রাজনীতি হবে

আমাদের দেশের যে প্রায় ষোল কোটি মানুষ রয়েছে তা এখন নির্ভর করছে বড় দুটি রাজনৈতিক দলের ওপর। তাদের বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগের ওপর দেশ তথা আজকের বাংলাদেশের ভবিষ্যত্ অনেকাংশেই নির্ভরশীল। কিন্তু বাংলাদেশের সর্বত্র আজ অস্থিরতা বিদ্যমান। দেশে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানে চলছে সংঘাত, কারখানাগুলোতে শ্রমিক সংঘর্ষ, গার্মেন্টস সেক্টরে নৈরাজ্য, প্রশাসনে দুর্নীতিসহ মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটছে। নির্দলীয় সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন করার ঘোষণার ফলে দেশে একটি রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে গোটা বাংলাদেশের মানুষ আজ চরম হতাশায় ভুগছে। রাজনীতির মূল উদ্দেশ্য জনসেবা করা। কিন্তু বাংলাদেশের রাজনীতি অনেকের নিকট একটি লাভজনক ব্যবসায় পরিণত হয়েছে। তাই উদার গণন্ত্রের আসল রূপ আমরা তখনই দেখতে পাব যখন রাজনীতি পরিবারকেন্ত্রিক না হয়ে তার ঊর্ধ্বে কাজ করছে।

অমিতাভ কুমার বিশ্বাস

প্রকৌলশ বিভাগ (সার্ভেয়ার)

আল-হেরা ইনস্টিটিউট, ঢাকা।

ভবিষ্যত্ প্রজন্ম গণতন্ত্র

রক্ষা করবে

গণতন্ত্র হলো জনগণ কর্তৃক পরিচালিত শাসন ব্যবস্থা, যেখানে জনগণের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ লক্ষণীয়। দেশ ও জাতি রক্ষার একটি অন্যতম রক্ষাকবচ হলো গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীলতা। গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থায় রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য আইন প্রণয়নের ক্ষেত্রে জনগণ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে অংশগ্রহণের মাধ্যমে সর্বজনীন ক্ষমতা লাভ করে। গণতন্ত্রের চরম ক্ষমতা হলো এই জনগণই। ভবিষ্যতে এই গণতন্ত্রকে টিকিয়ে রাখার জন্য দরকার হলো ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষেধ করা। ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করে পৃথিবীতে অনেক যুদ্ধ, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, সংঘাত, ধর্মযুদ্ধ, এমনকি দেশ ভাগ পর্যন্ত হয়েছে। এদেশে ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করেছিল প্রথমে ইংরেজরা। হিন্দু এবং মুসলমানদের মধ্যে ধর্মীয় বিভেদ সৃষ্টি করে তারা ভারত দখল করে। দুইশ বছর শাসনের পরও এই বিভেদ যাতে চলমান থাকে সে প্রচেষ্টার অংশ হিসাবে ধর্মীয় ভিত্তিতে ভারত- পাকিস্তান রাষ্ট্রের জন্ম দেয়। সীমানা নির্ধারণের সময় বিভিন্ন দেশ বা প্রদেশকে এমনভাবে ভাগ করে দেয় যাতে ধর্মীয় সংঘাত লেগে থাকে। একটি দেশকে বিভক্ত করতে আগে জনগণের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে হয়। জনগণের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির সবচেয়ে মোক্ষম অস্ত্র ধর্মকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করা। ধর্মীয় গোঁড়ামি, মৌলবাদ এবং ধর্মান্ধতাকে পুঁজি করে ও জনগণকে বিভ্রান্ত করে দাবার ঘুঁটি হিসাবে ব্যবহার করবার উদ্দেশ্য হাসিল করাই তাদের আসল উদ্দেশ্যে। রামু এবং উখিয়ায় যখন নরপশুদের তাণ্ডব চলছিল তখন অনেক ধর্মপ্রাণ মুসলমান ভাই বৌদ্ধবিহার এবং অনেক ঘরবাড়ি রক্ষা করেছে জীবনের ভয় উপেক্ষা করে। এসব ধর্মপ্রাণ মুসলমান ভাই প্রমাণ করেছে ইসলাম শান্তির ধর্ম। অন্য ধর্মের উপর আঘাত কোরআন সমর্থন করে না। আমরা এসব মুসলমান ভাইকে ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানাই।

শুভংকর বড়ুয়া

বিএ (অর্নাস) ২য় বর্ষ, কবি নজরুল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, সদরঘাট, ঢাকা।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিরোধী দলীয় নেত্রী সম্পর্কে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফের বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারবর্জিত। বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুলের এই অভিযোগ যৌক্তিক বলে মনে করেন?
9 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ৬
ফজর৫:০৭
যোহর১১:৫০
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:২৭সূর্যাস্ত - ০৫:১০
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :