The Daily Ittefaq
ঢাকা, সোমবার, ০৩ মার্চ ২০১৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪২০, ০১ জমা. আউয়াল ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ প্রাণনাশের হুমকিতেও লাভ হবে না: রিজভী | এশিয়া কাপ: আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ১২৯ রানের জয় পেল শ্রীলঙ্কা | পাকিস্তানে আদালতে হামলা, বিচারকসহ নিহত ১১

প্রজন্ম প্রত্যাশা

হর্টিকালচারিস্ট

মাটির উর্বরতা ও কৃষকের নিরলস শ্রমের ফসল আমাদের দিয়েছে খাদ্যনিরাপত্তা। আর বিশাল এই কর্মযজ্ঞে কৃষকের বন্ধু হয়ে কাজ করছেন মেধাবী কৃষিবিদগণ। কৃষি নিয়ে গবেষণার একটি উল্লেখযোগ্য অংশ হলো উদ্যান তত্ত্ব বা হর্টিকালচার। যা পেশা হিসেবে এই প্রজন্মের পছন্দের তালিকার প্রথম সারিতে উঠে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। প্রজন্মের মেধাবী হর্টিকালচারিস্টরা জানালেন এই পেশা নিয়ে তাদের প্রত্যাশার কথা। অনুলিখন করেছেন আহসান রনি

অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান

জাতীয় পরামর্শক, বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, জাতিসংঘ



দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতেই পুরোনো ধ্যানধারণাকে ভেঙে দিয়ে এখন অনেকেই দেশপ্রেম থেকেই কৃষিবিদ হওয়ার প্রতি আগ্রহী হচ্ছে। অনেকে ভাবেন মাটি ও ফসলের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা মানেই পিছিয়ে পড়া। কৃষিকে উচ্চশিক্ষা ও পেশা হিসেবে বেছে নেবেন—এমন কথা চিন্তাও করতে পারতেন না শহুরে আধুনিক তরুণ-তরুণীরা। এ ভাবনা থেকে ক্রমে ক্রমে সবাই বেরিয়ে আসবে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি। তার বিশ্বাস, কৃষি খাত শিক্ষিত তরুণদের কাছে আকর্ষণীয় ক্ষেত্র হয়ে উঠবে একদিন। কারণ বিশ্বজুড়ে কৃষি খাতকে বলা হচ্ছে সম্ভাবনাময় 'সবুজ পেশা'র ক্ষেত্র। কৃষি এমন একটি ক্ষেত্র, যা থেকে আমাদের মৌলিক চাহিদার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি পূরণ হচ্ছে। আমাদের মতো ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার দেশে খাদ্য ঘাটতি পূরণ একটি কঠিনতম চ্যালেঞ্জ। আর সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে এই কৃষিবিদরা। তারা বিভিন্ন গবেষণা, প্রযুক্তি আর তথ্যের সমন্বয় ঘটিয়ে নতুন নতুন সব তথ্য উপস্থাপন করছেন। এসব বিষয়ে জনগণের মধ্যে সচেতনতার অভাব রয়েছে, কিন্তু সময়ের সাথে সাথে এই বিষয়ে যখন সবার সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে তখন সকলে এই পেশায় আগ্রহী হবেন বলে প্রত্যাশা করেন তিনি। উদ্যানতত্ত্বে দারুণ কাজের সুযোগ রয়েছে এবং তিনি আশা করেন খুব অল্প সময়ের মধ্যে এ কাজের সুযোগ অনেক বাড়বে।

০০০

মো. ফারুক বিন হোসেন

অধ্যাপক, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

কৃষিপ্রধান বাংলাদেশে কৃষিতে ভালো কিছু কাজ করার জন্য তরুণ প্রজন্ম এই পেশায় আসতে দিনে দিনে আরো বেশি আগ্রহী হবে বলে আশা করেন হর্টিকালচারের এই অধ্যাপক। কারণ সাধারণ নার্সারি থেকেও প্রচুর রোজগার করার সুযোগ রয়েছে। একজন উদ্যানবিজ্ঞানী শিল্পাঞ্চল, সরকারি বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অথবা ব্যক্তি মালিকানা প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পারেন। তাই তরুণরা এই পেশা সম্পর্কে জানলে তারা এই পেশায় আসবে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি। শস্যাদি উত্পাদন প্রকৌশলী, পাইকারি বা খুচরা ব্যবসায়ী ম্যানেজার, ফল-শাক-সবজি-ফুল-চারাগাছের টিস্যু কালচার স্পেশালিস্ট, ক্রপ পরিদর্শক বা উত্পাদন উপদেষ্টা, প্রোডাকশন, কৃষি সম্প্র্রসারণ বিশেষজ্ঞ, বৃক্ষ বংশবিদ, গবেষণা বিজ্ঞানী বা শিক্ষক হিসেবে কর্মস্থলে তরুণরা যোগ দিতে পারেন, যদি তারা এই বিষয়ে ভালোভাবে পড়াশোনা করেন। তাই তিনি আশা করেন এত সুযোগ যেখানে আছে সেখানে তরুণ প্রজন্ম অবশ্যই আগ্রহী হবে। যেহেতু বাংলাদেশ একটি কৃষিপ্রধান দেশ সেহেতু এই খাতে উন্নতি না হলে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ঘটবে না বলে মনে করেন তিনি। সুতরাং অল্প কিছুদিনের মধ্য তরুণ প্রজন্ম এই পেশায় আগ্রহী হবে এবং কৃষির দেশ বাংলাদেশে এই পেশাকে অন্যতম সেরা পেশা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করবে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি।

০০০

মো. আমিনুল ইসলাম

অধ্যাপক, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়

কাজের পরিবেশ, নিরাপত্তা ও কাজের ক্ষেত্র বিবেচনায় এ পেশায় আসার সিদ্ধান্ত নিতে যে কাউকে উত্সাহিত করে। অনেক ক্ষেত্রে নিজের পরিবারেরই সম্প্রসারিত অংশ কৃষি বিভাগ। আর এই কথা স্পষ্ট, যখন কোনো প্রতিষ্ঠানে শুধুই কাজের খাতিরে কাজ করা নয়, মনোভাবের সাথে আন্তরিকতা যোগ করা যায়, তখন নিজের পাশাপাশি সেই প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় সহজে। এমনই ভাবনায় পথ চললে এই পেশায় ভালো করা যায় সহজে। এই পেশায় মেধা ও মনন এক সুতোয় গাঁথা। কানাডা, চীন, থাইল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশে এ বিষয়ে প্রশিক্ষণের সুযোগ আছে, তিনি চান তরুণরা এইসব প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের আরও বেশি দক্ষ করে তুলবে। কৃষিবিদ হিসেবে কৃষিভিত্তিক কাজের সাথে নিজেকে জড়িয়ে রাখতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন আমিনুল। হয়তো একটু চেষ্টা করলে প্রশাসন বা পুলিশ সার্ভিসের মতো পেশায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারতেন কিন্তু কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের আলো-বাতাসে বড় হয়ে নিজেকে নিজের পেশার বাইরে কখনও কল্পনায় আনতে পারেননি। তিনি প্রজন্মের কাছে তাই এই প্রত্যাশাই করেন, যেন তারা নিজ দেশ, নিজ মাটিকে ভালোবেসে কাজ করে।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেছেন, 'এখন আমরা অনেক সুসংগঠিত। আমাদের পতন ঘটবে না।' আপনি কি তার সাথে একমত?
9 + 7 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
আগষ্ট - ১১
ফজর৪:১১
যোহর১২:০৪
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৩৮
এশা৭:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৩২সূর্যাস্ত - ০৬:৩৩
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :