The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার, ০৮ মার্চ ২০১৪, ২৪ ফাল্গুন ১৪২০, ০৬ জমা. আউয়াল ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ ২৩৯ যাত্রী-ক্রুসহ মালয়েশীয় নিখোঁজ বিমানটি ভিয়েতনাম সাগরে বিধ্বস্ত | বগুড়ার আদমদিঘীতে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে সোনালী ব্যাংকের ৩০ লাখ টাকা লুট | এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কা অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন | নিজেরাই অধিকার আদায় করুন : নারীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী

বোলিং আর ফিল্ডিংয়েই ডুবেছে বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার

টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেরা রান সংগ্রহ বাংলাদেশের

টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী প্রথম চারজনের দুইজন বাংলাদেশি

সেরা সাতটি ইনিংসের দুটিই বাংলাদেশের

এই চারটি লাইনই আসলে বলে দেয় বাংলাদেশের শূন্য হাতে দ্বাদশ এশিয়া কাপ শেষ করার জন্য আর যাই হোক, ব্যাটিংটা দায়ী নয়। খুব ধারাবাহিক না হলেও প্রায় প্রতি ম্যাচে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা রান পেয়েছেন। শেষ ম্যাচটা ছাড়া প্রতি ম্যাচে দু'-চারটে বড়-মাঝারি ইনিংস এসেছে টপ অর্ডার থেকে।

ব্যাটসম্যানদের এই পারফরম্যান্সের পরও দলের প্রাপ্তির ভারটা শূন্য থাকার কারণ বোঝা যাবে, বোলিং বিশ্লেষণে চোখ বোলালেই। পুরো টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের হয়ে প্রতিপক্ষের ওপর দাঁত বসিয়েছেন, এমন কোনো বোলারই খুঁজে পাবেন না। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩টি করে উইকেট পেয়েছেন দুই ম্যাচ খেলা আরাফাত সানি এবং একেবারেই পার্টটাইম বোলার মুমিনুল হক। তার মানে, হিসাব পরিষ্কার—দলের আক্রমণভাগের আগে থাকা বোলাররা কেউ সফল হননি।

ফিল্ডিংয়ে দলের অধারাবাহিকতা পরিসংখ্যান দিয়ে বোঝানো শক্ত। কারণ সেখানে ক্যাচ নেয়াটা লেখা থাকলেও গন্ডায় গন্ডায় ক্যাচ ফেলাটা লেখা থাকে না। প্রায় প্রতিটা ম্যাচে বাংলাদেশি ফিল্ডারদের হাত থেকে যে পরিমাণে ক্যাচ ফেলেছে, বোলাররা বলতে পারেন, তাদের ব্যর্থতার কারণ আসলে ফিল্ডিং মিসই!

ব্যাটিং দিয়ে শুরু করা যাক। এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের 'নিউক্লিয়াস' হয়ে ছিলেন এনামুল হক বিজয় ও মুশফিকুর রহিম। দু' জনই একটি করে সেঞ্চুরি করেছেন। ভারতের বিপক্ষে ফিফটি দিয়ে শুরু করেছিলেন বিজয়, পরে পাকিস্তানের বিপক্ষে সেঞ্চুরি এবং শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪৯ রানের ইনিংস মিলিয়ে ৪ ম্যাচে ৫৬.৭৫ গড়ে ২২৭ রান করে গতকাল পর্যন্ত টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেরা রান সংগ্রাহক বিজয়; ২৪৮ রান নিয়ে সর্বোচ্চ জায়গাটা ধরে রেখেছেন সাঙ্গাকারা।

বিজয়ের চেয়েও মুশফিকের আবার গড় ও স্ট্রাইকরেট অনেক বেশি। ৬৫ গড়ে ১৯৫ রান করে গতকাল পর্যন্ত চার নম্বরে ছিলেন মুশফিক। তিনি ভারতের বিপক্ষে সেঞ্চুরি এবং পাকিস্তানের বিপক্ষে ঝড়ো এক ফিফটি করে ফর্ম ধরে রেখেছেন। এছাড়াও দুটি ফিফটি করা মুমিনুল হকও আছেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায়।

এর মাঝে এক ম্যাচ খেলেই ফিফটি করা ইমরুল, ঝড় তোলা সাকিবরা তো আছেনই।

কিন্তু এইসব পরিসংখ্যানের বিপরীতে একেবারে দীনহীন অবস্থা বোলারদের। আগেই বলা হয়েছে টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের সেরা বোলার হচ্ছেন মুমিনুল ও আরাফাত সানি; যারা কেউই ফ্রন্টলাইন বোলার নন। এরা পেয়েছেনও মাত্র ৩টি করে উইকেট। যেখানে গতকাল পর্যন্তই মেন্ডিস, অশ্বিন ও শামি ৯টি করে এবং আজমল ৮টি উইকেট নিয়েছেন! বাংলাদেশের মূল বোলার বলে বিবেচিত রাজ্জাক, রুবেল ও আল আমিন পেয়েছেন ২টি করে উইকেট। আর অলরাউন্ডার জিয়া ও মাহমুদউল্লাহর শিকারও ২টি করে উইকেট। এরা দু' জন আবার পুরো টুর্নামেন্ট বল করারই সুযোগ পাননি!

তাহলে মীমাংসা দাঁড়ালো এই যে, যাদের ওপর মূল ভরসা ছিল বা স্ট্রাইক বোলার যারা, সেই রাজ্জাক-রুবেলরা চরম হতাশ করেছেন দলকে। শুধু উইকেট নেয়ার দিক থেকে নয়, দু' হাতে রান খরচ করেও এরা দলকে বিপাকে ফেলেছেন।

এই পরিসংখ্যানের বাইরে আরেকটা ব্যাপার মাথায় রাখা দরকার—যতই রাজ্জাক-রুবেলদের আমরা স্ট্রাইক বোলার বলি, আসলে বাংলাদেশের বোলিং ভার টানতে হয় সাকিব আল হাসানকেই। সেই সঙ্গে ইনজুরিকে হারিয়ে দলে ফিরতে পারলেই দায়িত্বটা ভাগ করে নেন মাশরাফি। নিষেধাজ্ঞার কারণে সাকিব প্রথম দুই ম্যাচ এবং ইনজুরির কারণে মাশরাফি শেষ দুই ম্যাচ খেলতে পারেননি।

তাহলে এদের অনুপস্থিতিই কী ভাগ্য ঠিক করে দিলো?

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ

ব্যাটিং

ব্যাটসম্যান ম্যাচ রান সেরা গড় ১০০/৫০

এনামুল হক ৪ ২২৭ ১০০ ৫৬.৭৫ ১/১

মুশফিকুর রহিম ৪ ১৯৫ ১১৭ ৬৫.০০ ১/১

মুমিনুল হক ৪ ১২৫ ৫১ ৩১.২৫ ০/২

নাসির হোসেন ৩ ৭২ ৪১ ২৪.০০ ০/০

জিয়াউর রহমান ৩ ৭১ ৪১ ২৩.৬৬ ০/০

সাকিব আল হাসান ২ ৬৪ ৪৪* ৬৪.০০ ০/০

ইমরুল কায়েস ১ ৫৯ ৫৯ ৫৯.০০ ০/১

বোলিং

বোলার ম্যাচ রান উইকেট সেরা ইকোনমি

আরাফাত সানি ২ ৯০ ৩ ২/৪৪ ৫.২৯

মুমিনুল হক ৪ ৮৮ ৩ ২/৩৭ ৪.১৯

আবদুর রাজ্জাক ৩ ১৮৪ ২ ১/৫৫ ৬.৩৪

আল আমিন ২ ৯২ ২ ২/৪২ ৫.৪৬

মাহমুদউল্লাহ ২ ৭৭ ২ ১/৩০ ৫.৯২

রুবেল হোসেন ৩ ১৪৯ ২ ১/৬১ ৫.৭৩

জিয়াউর রহমান ৪ ৯৩ ২ ১/২০ ৪.১৯

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, 'উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণের মাধ্যমে বিএনপি সরকারকে স্বীকৃতি দিয়েছে।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
5 + 6 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুন - ২০
ফজর৩:৪৩
যোহর১২:০০
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৬
সূর্যোদয় - ৫:১১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :