The Daily Ittefaq
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ মার্চ ২০১৪, ২৯ ফাল্গুন ১৪২০, ১১ জমা. আউয়াল ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে কাল বিএনপির বিক্ষোভ | টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বধোন করলেন প্রধানমন্ত্রী | ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ | বিদ্যুতের দাম বাড়ল ৬.৬৯ শতাংশ, ১ মার্চ থেকে কার্যকর | রাজধানীতে ছয় তলা ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে | আদালত অবমাননা : প্রথম আলোর সম্পাদক-প্রকাশক খালাস | খন্দকার মোশাররফ সরকারের চক্রান্তের শিকার : রিজভী

এই জয় কী আত্মবিশ্বাস বাড়াবে?

দেবব্রত মুখোপাধ্যায়

এমনিতেই ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে এলে কারো মনে হবে, এ যেন এক বিরানভূমি। আশেপাশে বসতি খুঁজে পাওয়া দুষ্কর, নেই তেমন কোনো লোকজনের হট্টগোল। এর মধ্যেও খেলাধুলা হলে লোকজন এসে এই স্টেডিয়ামকে জমিয়ে তোলেন। কিন্তু গতকাল মঙ্গলবার সে দর্শকদেরও অন্তত শুরুতে খোঁজ ছিল না।

সঠিকভাবে তথ্য না জানার জন্য হোক বা অন্য কোনো কারণে, ম্যাচের দুই তৃতীয়াংশ সময় ধরে ফাঁকা পড়ে রইলো স্টেডিয়াম। অবশেষে লোকজন যখন আসতে শুরু করেছেন, ততোক্ষণে বাংলাদেশের তিন উইকেট পড়ে গেছে। শেষ পর্যন্ত ১৪২ রান তাড়া করতে গিয়ে চার উইকেটের কষ্টার্জিত এক জয় পেল বাংলাদেশ।

এই অনুশীলন ম্যাচের হার-জিত এমনিতে তেমন কোনো গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার না। তারপরও জয়টা নিয়ে হয়তো একটু আত্মবিশ্বাসে প্রলেপ লাগাতে পারবে বাংলাদেশ দল।

কিন্তু এই জয় কী আসলেই বাংলাদেশকে কোনো আত্মবিশ্বাস তৈরি করে দিতে পারবে? মাত্র ১২টি ওয়ানডে খেলার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন আরব আমিরাত, যাদের সব খেলোয়াড়ের কাছেই ক্রিকেটটা 'টাইম পাস' ছাড়া কিছু নয়; তাদের বিপক্ষে এই দীনহীন পারফরম্যান্স বাংলাদেশকে আদৌ কতোটা আত্মবিশ্বাসী করবে!

বাংলাদেশের অধুনা খুব বড় দুশ্চিন্তা বোলিং নিয়ে। সে বোলিং যে এখন আরব আমিরাতের মতো দলকেও ভয় দিতে পারে না, তাও প্রমাণ হয়ে গেল গতকাল। বাংলাদেশের বোলারদের বিপক্ষে আমিরাতের শুরুর ব্যাটসম্যানরা অন্তত জলবত্ তরল করে রান তুললেন। সবচেয়ে দুশ্চিন্তার ব্যাপার হতে পারে, ছোট দলগুলোর বিপক্ষে বাংলাদেশের স্পিন যে ভয়ঙ্কর ব্যাপার ছিল; সেটা একদমই আর নেই বলে মনে হচ্ছে।

গতকাল বাংলাদেশের চার জন স্পিনার বল করলেন এই ম্যাচে। এক রাজ্জাক ছাড়া প্রত্যেকে দু হাত ধরে রান দিয়েছেন। এখন দলের সেরা বোলার সাকিব ৪ ওভারে ২৮ রান দিয়ে উইকেটশূন্য ছিলেন। মাহমুদউল্লাহ ২ ওভারে দিয়েছেন ১৯ রান। আর নাসির ১ ওভার বল করে ১১ রান দিয়ে এসেছেন। রাজ্জাক তার ৩ ওভারে ১৫ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছেন বলে; কিন্তু বলে যে ত্রাস তৈরি করার ব্যাপারটা, সেটা খুঁজে পাওয়া কঠিন ছিল।

এর বাইরে পেসাররা যথারীতি খরচের ডালি খুলে বসেছিলেন। আল আমিন ৪ ওভারে ২৫ ও ফরহাদ রেজা ২ ওভারে ২৫ রান দিয়েছেন! বরং ৪ ওভারে ১৮ রান খরচ করা রুবেল হোসেনই ছিলেন ম্যাচে বাংলাদেশের সবচেয়ে কম খরুচে বোলার।

এইসব পরিসংখ্যান বড় কোনো দলের বিপক্ষে হলে টি-টোয়েন্টির জন্য 'খুব খারাপ নয়' বলে রায় দেয়া যেত। কিন্তু আরব আমিরাতের বিপক্ষে কী তা বলার সুযোগ আছে?

শুধু বোলিং নয়, ব্যাটিংয়েও চরম দীনতা প্রকাশ পেল। দলীয় ১৯ রানের মধ্যেই কোনো রান না করে এনামুল হক বিজয় এবং সাকিব আল হাসান ৯ রান করে ফিরে যান। দু জনেরই আউট হওয়ার ভঙ্গি নিয়েই যথেষ্ট আপত্তি করা যেতে পারে। এরপর উইকেটে সেট হয়ে যাওয়া তামিম ৪৩ রান করে এবং মুশফিক ২৭ রান করে যেভাবে আউট হলেন, তাও বা কিভাবে মেনে নেন। এই দলে যোগ দিয়ে নাসির-মুমিনুলও আত্মহনন করে ফিরলেন।

শেষ পর্যন্ত একটা ব্যাপার অন্তত প্রমাণ হল, ম্যাচের ফলাফল যাই হোক, প্রয়োজনীয় ছন্দটা কিছুতেই মাঠে অন্তত ফেরাতে পারছে না বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

আরব আমিরাত

২০ ওভারে ১৪২/৭ (আলী আমজাদ ১৯, ফাইজান ৩১, খুররম ৪৪, স্বপ্নীল ২, সালমান ১৯, জাভেদ ৬, রোহান ৬*, বিক্রান্ত ১১; আল আমিন ১/২৫, রুবেল ১/১৮, মাহমুদউল্লাহ ১/১৯, ফরহাদ ২/২৫, সাকিব ০/২৮, নাসির ০/১১, রাজ্জাক ১/১৫)।

বাংলাদেশ

১৮.৫ ওভারে ১৪৬/৬ (তামিম ৪৩, বিজয় ০, সাকিব ৯, মুশফিক ২৭, মুমিনুল ৪, নাসির ১৫, মাহমুদউল্লাহ ২৯*, ফরহাদ ১৪*; গুরুগে ২/২৫, সিলভা ০/৩০, জাভেদ ১/২৫, শাহাজাদ ১/২০, মুস্তফা ১/৩৬, খুররম ১/৯)।

ফল: বাংলাদেশ ৪ উইকেটে জয়ী

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ বলেছেন, 'ইঁদুর স্বভাবের কিছু নেতার কারণে সংসদ নির্বাচন প্রতিহতের আন্দোলন ঢাকায় সফল হয়নি।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
9 + 7 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
মে - ২০
ফজর৩:৪৯
যোহর১১:৫৫
আসর৪:৩৪
মাগরিব৬:৩৯
এশা৭:৫৯
সূর্যোদয় - ৫:১৩সূর্যাস্ত - ০৬:৩৪
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :