The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার, ১৫ মার্চ ২০১৪, ১ চৈত্র ১৪২০, ১৩ জমা. আউয়াল ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ শরীয়তপুরে ব্যালট ছিনতাইকালে গুলিতে যুবক নিহত | ভোট গ্রহণ সম্পন্ন, চলছে গণনা | ২৬ কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত: ইসি | জাল ভোট ও কেন্দ্র দখলের মহোৎসব চলছে: বিএনপি | ময়মনসিংহে বাস খাদে, নিহত ৫ আহত ৪০

'শুকনো মৌসুমে তিস্তায় পানি প্রবাহ অস্বাভাবিক কম'

ইত্তেফাক ডেস্ক

বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলেছেন, এবছর শুকনো মৌসুমে তিস্তা নদীতে পানি প্রবাহ অস্বাভাবিকহারে কমে গেছে এবং ভারতের দিক থেকে একতরফাভাবে পানি প্রত্যাহারই এর কারণ বলে তারা ধারণা করছেন। খবর বিবিসি বাংলার।

দুই দেশের মধ্যে যৌথ নদী কমিশনের বাংলাদেশের সদস্য মীর সাজ্জাদ হোসেন জানিয়েছেন, এবার শুষ্ক মৌসুমে তিস্তা নদীর বাংলাদেশ অংশে পানি প্রবাহ সর্বনিম্ন পাঁচশ কিউসেকে এসে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশের এই উদ্বেগের বিষয়ে চিঠির মাধ্যমে ভারতকে আবার জানানো হবে বলে তিনি বলছেন। অন্যদিকে, তিস্তা নদীর পানির উপর নির্ভরশীল কৃষকরা তাদের বোরো আবাদ নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। তিস্তা নদীর পানি প্রবাহ বাংলাদেশকে উদ্বেগের মধ্যে ফেলেছে কারণ দেশটির কর্মকর্তারা বলেছেন, শুষ্ক মৌসুমে এই সময়টাতে তিস্তা নদীতে পানি প্রবাহ থাকে সাধারণত পাঁচ হাজার কিউসেকের মতো। এবার তা অনেক নীচে নেমে এসেছে।

যৌথ নদী কমিশনের বাংলাদেশের সদস্য মীর সাজ্জাদ হোসেন তিস্তার নদীর এখনকার পানি প্রবাহকে অস্বাভাবিক বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি বলছেন, ১৯৭৩ থেকে ৮৫ সাল পর্যন্ত দুই দেশে ব্যারেজ নির্মাণের পূর্বে ঐতিহাসিকভাবে ন্যাচারাল পানি প্রবাহ যা ছিল, এবার তা নেই। গত বছরই ফেব্রুয়ারি মাসে পানি প্রবাহ ছিল পাঁচ হাজার কিউসেক। সেই পানি এবার পাঁচশ' কিউসেকে নেমে এসেছে। গত বছর আমরা আড়াই হাজার থেকে তিন হাজার কিউসেক পানি পেয়েছি। যা শতকরা ৫০ ভাগ। কিন্তু এবার মাত্র সাত থেকে ১০ ভাগ পানি পেয়েছি। গত ৯ই মার্চ পানি প্রবাহ ছিল ৪০৯ কিউসেক। অস্বাভাবিকভাবে এটা সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে এসেছে। তিস্তা নদীতে ভারতের অংশে যেমন সেচ প্রকল্প বা ব্যারেজ রয়েছে, বাংলাদেশের অংশেও তেমনি রয়েছে তিস্তা ব্যারেজ বা সেচ প্রকল্প।

বাংলাদেশের এই সেচ প্রকল্পকে ভরসা করে এবার রংপুর, নীলফামারি এবং লালমনিরহাট, তিনটি জেলার প্রায় ৬৫ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হয়েছে। গঙ্গাচড়া উপজেলার কৃষিকর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলছিলেন, তিস্তা ব্যারেজের কারণে কৃষকরা তাদের শ্যালো মেশিন বেশ আগে বিক্রি করে দিয়েছিলেন। এখন নতুন করে সেই ব্যবস্থা করতে হচ্ছে। এতে খরচও বেড়ে যাচ্ছে। তিস্তা নদীর পানির প্রবাহ এ বছর আর বাড়বে কিনা, সে ব্যাপারে বাংলাদেশ ভারতের কাছ থেকে নিশ্চিত কিছু জানতে পারছে না। মীর সাজ্জাদ হোসেন জানিয়েছেন, পরিস্থিতি সম্পর্কে চিঠি লিখে এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বিষয়টি ভারতকে জানানো হয়েছে। এছাড়া কিছুদিন আগে যৌথ নদী কমিশনের কারিগরি কমিটির বৈঠকেও সর্বনিম্ন পানি প্রবাহের বিষয়ে জানানো হলে ভারত বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করার কথা বলেছিল। মীর সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন, ভারত একতরফাভাবে পানি প্রত্যাহার করছে বলে এখন ধারণা করা হচ্ছে। ফলে আবার চিঠি দিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কয়েকদিনের মধ্যে ভারতকে বাংলাদেশের উদ্বেগের কথা জানানো হবে। বিশেষজ্ঞদের অনেকেই বলেছেন, চুক্তি না হওয়ার কারণে পরিস্থিতি এই পর্যায়ে যাচ্ছে।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, 'নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে সরকার।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
8 + 6 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
সেপ্টেম্বর - ৩০
ফজর৪:৩৪
যোহর১১:৪৯
আসর৪:০৮
মাগরিব৫:৫১
এশা৭:০৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৯সূর্যাস্ত - ০৫:৪৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :