The Daily Ittefaq
ঢাকা, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০১৩, ৩ চৈত্র ১৪১৯, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮ ও ১৯ মার্চের সকল পরীক্ষা স্থগিত | রাজধানীতে ৮ গাড়িতে আগুন: জনমনে আতঙ্ক | জুবায়ের গ্রেপ্তার: সিলেটে বুধবার জামায়াতের হরতাল | কলম্বো টেস্টে দ্বিতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ২৯৪/৬ | রাজধানীতে প্রথম কালবৈশাখী | হরতালে পুলিশ র্যাব বিজিবি প্রস্তুতি নিয়ে মাঠে | জামালপুরে বাঘ শাবক আটক | সরকারই জুজুর ভয় দেখাচ্ছে : মির্জা ফখরুল | খালেদা জিয়ার সংলাপ নাকচের সিদ্ধান্ত দুর্ভাগ্যজনক : হানিফ | বাংলার মাটিতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকর হবেই:টুঙ্গীপাড়ায় প্রধানমন্ত্রী

খুনিদের উত্সাহ দেয়া ও রক্ষা করা বিএনপির চরিত্র : প্রধানমন্ত্রী

ইত্তেফাক রিপোর্ট

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, খুনিদের রক্ষা করা, লালন-পালন করা, উত্সাহ দেয়া জন্মলগ্ন থেকেই বিএনপির চরিত্র। দলটির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুখোশ এখন খুলে গেছে। তিনি যে এই দেশের স্বাধীনতা চাননি এবং স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাস করেন না এটা প্রমাণ হলো। দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি তার পছন্দ নয় বলেই যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়ে দেশকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যেতে দেশে তাণ্ডব চালাচ্ছেন। স্বাধীনতাবিরোধীদের স্থানে চলে যাওয়ায় খালেদা জিয়াকে এখন দেশের জনগণ বিচার করবে।

গতকাল শনিবার রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সভায় সূচনা বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। যুদ্ধাপরাধীর দায়ে অভিযুক্ত দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায়কে কেন্দ্র করে যে সহিংস ঘটনা ঘটেছে তাকে 'গণহত্যা' আখ্যায়িত করে ক্ষমতায় গেলে ট্রাইব্যুনাল করে বর্তমান সরকারের শীর্ষ পর্যায়সহ সকলের বিচার করা হবে বলে খালেদা জিয়া যে বক্তব্য দিয়েছেন তার সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া ক্ষমতায় থাকতে ২০০৪ সালের ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগের ২৪ জনকে হত্যা করা হয়। আহসানউল্লাহ মাস্টার, কিবরিয়াসহ অনেক মানুষকে হত্যা করা হয়েছিল। ২০০১ সালের পর তারা যে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তার সমস্ত ডকুমেন্ট আছে। এখন একদিকে মানুষ হত্যা করছেন, আরেকদিকে বিচারের কথা বলছেন। সাঈদীর ফাঁসির রায়ের পর সারাদেশে সংখ্যালঘুদের ওপর যে হামলা হয়েছে, পুলিশসহ নিরীহ মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে এসবের দায়ভারও খালেদা জিয়াকে নিতে হবে। এসবের বিচার হওয়া উচিত।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, বিরোধী দলীয় নেত্রীর ভালো একটা গুণ হলো 'সর্প হয়ে দর্শন করে ওঝা হয়ে ঝাড়া'। নিজেই তাণ্ডব সৃষ্টি করে আবার নিজেই সহানুভূতি বিতরণের কাজ করছেন। তবে জনগণ তার এই নাটক বুঝতে সক্ষম হয়েছে। জামায়াতের সঙ্গে হাত মিলিয়েই বিরোধী দলীয় নেত্রী যে এই অপকর্ম করছেন তা আর কারো অজানা নেই। সাম্প্রাতিক তাণ্ডবের দায়ভার খালেদা জিয়াকেই নিতে হবে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জুমার নামাজ শেষে সালাম ফেরানোর আগেই যারা তাণ্ডব শুরু করে তারা কেমন মুসলমান? দেশের তরুণ সমাজ একাত্তরের ঘাতকদের বিচার চাইছে একারণে খালেদা জিয়া তাদের যা ইচ্ছা বলেছেন। দেশবাসীকে বলবো, যারা অপরাধী তাদের বিচার বাংলার মাটিতে হবেই। সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরে বিরোধী দলীয় নেত্রী আমার ওপর প্রচণ্ড ক্ষেপে গেছেন! কেননা সিঙ্গাপুরে ওনার ছেলেদের পাঁচার করা দুর্নীতির টাকা আমরা ফিরিয়ে এনেছি। উনি সিঙ্গাপুরে গিয়েও সেটা রক্ষা করতে পারেননি। টাকার শোকে যুদ্ধাপরাধীদের পক্ষ নিয়ে তাদের রক্ষার জন্য দেশকে ধ্বংস করতে চাইছেন তিনি। তবে টাকা ফেরত্ আসছে, আরও আসবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, তরুণ প্রজন্ম শিক্ষিত ও মেধাবী। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় তাদের মধ্যে জাগরণ ঘটেছে। অথচ বিরোধীদলীয় নেতা এই তরুণদের বিরুদ্ধেও বলছেন, যাচ্ছেতাই গালিগালাজ করছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বমন্দা সত্ত্বেও বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। সার্বিকভাবে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের মানুষ শান্তিতে থাকুক, বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াক এটা বিরোধী দলীয় নেত্রী চান না। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদসহ অধিকাংশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা থেকে মুক্তি পেতে জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কয়েকজন ব্রিটিশ আইন প্রণেতা। এতে সমস্যার সমাধান হবে বলে মনে করেন?
8 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
অক্টোবর - ১৯
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫২
মাগরিব৫:৩৩
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৮
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :