The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৩, ২২ চৈত্র ১৪১৯, ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ | কাওড়াকান্দি-মাওয়া নৌ চলাচল বন্ধ | চট্টগ্রামকে বিচ্ছিন্ন করার হুমকি হেফাজতের | সারা দেশ থেকে হেঁটে লংমার্চে যোগ দেয়ার আহবান হেফাজতে ইমলামের | লংমার্চে বাধা দিলে লাগাতার হরতাল:হেফাজতে ইসলাম | লংমার্চে পানি ও গাড়ি দিয়ে সহায়তা করছেন ফেনীর মেয়র | ঢাকার প্রবেশমুখে অবস্থান নেবে গণজাগরণ মঞ্চ | বিমানবন্দরের কার্গো ভিলেজে অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে | সীতাকুণ্ডে বাস খাদে, নিহত ৩ | উত্তরের ক্ষেপণাস্ত্র মোকাবেলায় দক্ষিণ কোরিয়ার যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন | ইন্দোনেশিয়ার কারাগারে বৌদ্ধ-মুসলিম দাঙ্গায় নিহত ৮ | টেস্ট দলে ফিরলেন সাকিব নাফীস | মুম্বাইয়ে ভবন ধসে নিহত ৪১

ভারতে ইলিশ রপ্তানির উপর নিষেধাজ্ঞা

আটকা পড়েছে হাজার টন

সালাহউদ্দিন মো. রেজা, চট্টগ্রাম অফিস

এবার কলকাতার লোকজন পহেলা বৈশাখে বাংলাদেশের ইলিশের রসনা তৃপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশ থেকে কোন ইলিশ রপ্তানি হচ্ছে না। এই নিষেধাজ্ঞার কারণে ভারতে রপ্তানির জন্য প্রায় ১ বছর ধরে মজুদ করা ১ হাজার মেট্রিক টন ইলিশ আটকা পড়েছে। শুধুমাত্র চট্টগ্রামের মাসুদ ফিশ নামক একটি প্রতিষ্ঠান প্রায় ৪০০ মেট্রিক টন ইলিশ নিয়ে বিপাকে পড়েছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া এক নির্দেশে বলা হয়, ইতিমধ্যে যে সকল ইলিশ মজুদ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ বেআইনী এবং রপ্তানি নীতিমালার পরিপন্থি। অবিলম্বে মজুদকৃত ইলিশ স্থানীয় বাজারে বিক্রির নির্দেশ দেয়া হয়। জানা যায়, মজুদকৃত ইলিশের বাজার মূল্য প্রায় ৬০ কোটি টাকা।

জানা যায়, গত বছরের জুলাই মাসে এফবিসিসিআই'র পক্ষ থেকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে দেয়া এক পত্রে রমজান মাসে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ রাখার আবেদন করা হয়। এর প্রেক্ষিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ইলিশসহ সকল সাদা মাছ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। অনেক চেষ্টা তদ্বিরের পর গত ডিসেম্বর মাসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় অপর এক সার্কুলেশনে জানায়, ইলিশ ছাড়া অন্যান্য সাদা মাছ রপ্তানি করা যাবে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, ইলিশ বিদেশে রপ্তানি হওয়ায় দেশের লোক কম মূল্যে ইলিশ মাছ পায় না। তাই জনগণের স্বার্থে ইলিশ রপ্তানির বন্ধ করা হয়।

হিমায়িত মত্স্য রপ্তানিকারকের পক্ষ থেকে জানা যায়, বিভিন্ন দেশের আমদানিকারকের অর্ডারের প্রেক্ষিতে নিষেধাজ্ঞার পূর্বেই বিভিন্ন রপ্তানিকারকগণ বিপুল পরিমাণ ইলিশ মাছ স্টক করে। তাছাড়া তাদের ধারণা ছিল অন্যান্য সাদা মাছের ন্যায় ইলিশ মাছের রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হয়ে যাবে। এদিকে পহেলা বৈশাখ ঘনিয়ে আসায় বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস এক্সপোর্টাস এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ইলিশ মাছ রপ্তানির ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, মত্স্য মন্ত্রণালয় ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোতে পত্র দেয়াসহ বিভিন্নভাবে ধরনা দেয়। এমনকি এফবিসিসিআই এক সময় ইলিশ মাছ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা চাইলেও গত মার্চ মাসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে একপত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ জানায়।

অপরদিকে বিদেশি আমদানিকারকগণ ইতিপূর্বে মাছের জন্য এলসি এবং নগদ টাকা পাঠানোর কারণে রপ্তানিকারকদের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে থাকে। বিশেষ করে ভারতের আমদানিকারকগণ পহেলা বৈশাখকে সামনে রেখে এ দেশীয় ব্যবসায়ীদের তাগাদা দিতে থাকে। কিন্তু গত মঙ্গলবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ইস্যু করা এক পত্রে ইলিশ রপ্তানির আবেদন প্রত্যাখ্যান করে দেয়। একই সাথে বাংলাদেশে পহেলা বৈশাখে ইলিশের চাহিদা মেটানোর জন্য স্থানীয় বাজারে তা বিক্রির নির্দেশ দেয়া হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ওই পত্র পেয়ে হিমায়িত মত্স্য রপ্তানিকারকগণ ক্ষোভ প্রকাশ করে। এমনকি অনেকে সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ মামলা করার হুমকি দেয়। তারা জানায়, যেহেতু ব্যাংকের টাকায় এ সকল মাছ কিনে মজুদ করা হয়েছে, তাই সরকারকে এর ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। জানা যায়, গত কয়েকমাস পূর্বে বিডি ফুড নামক একটি প্রতিষ্ঠান উচ্চ আদালতে মামলা করে প্রায় ১০০ মেট্রিক টন ইলিশ বিদেশে রপ্তানি করেছে।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
রাশেদ খান মেনন বলেছেন, সরকার যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করছে আবার হেফাজতের সঙ্গে আলোচনা করছে। এর ফলে সরকারের আমও যাবে ছালাও যাবে। তার বক্তব্যের সঙ্গে আপনি একমত?
4 + 3 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
সেপ্টেম্বর - ২১
ফজর৪:৩১
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৫
মাগরিব৫:৫৯
এশা৭:১২
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৪
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :