The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার, ৪ মে ২০১৩, ২১ বৈশাখ ১৪২০, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নির্দলীয় সরকার ঘোষণা দেয়ার আল্টিমেটাম : মতিঝিলে ১৮ দলের সমাবেশে খালেদা জিয়া | প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অন্তসারশূন্য, অবরোধ হবেই: হেফাজত | দয়া করে আর মানুষ হত্যা করবেন না: খালেদা জিয়ার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী

আদালতের নির্দেশে ৮ মাস পর মা ফিরে পেলেন সন্তানকে

কালীগঞ্জ সংবাদদাতা

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বালিয়াডাঙ্গা গ্রামে এক মা দীর্ঘ ৮মাস আইনী লড়াইয়ের পর তার আদরের ধনকে বুকে ফিরে পেয়ে তার নাম রাখলেন জেহাদ। আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১২ সালের ৩১ আগষ্ট ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের বালিনগর গ্রামের দিনমজুর আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী রোজিনা খাতুন মহেশপুর সীমা ক্লিনিকে সিজার অপারেশনের মাধ্যমে একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। দারিদ্র্যের কারণে তার ঘরে আরও দুটো পুত্রসন্তান থাকায় জন্মের পরই বাচ্চাটিকে পার্শ্ববর্তী বলরামপুর গ্রামের নিঃসন্তান দম্পতি সবজেল হোসেনের স্ত্রী মাজেদা বেগমকে দত্তক দেন। কিন্ত বিধি বাম! কাকতালীয়ভাবে কালীগঞ্জ ডক্টর ক্লিনিকে একই দিন অর্থাত্ ২০১২ সালের ৩১ আগষ্ট কালীগঞ্জ উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা গ্রাামের বিপুলের স্ত্রী সীমা জন্ম দেন একটি পুত্রসন্তান। কিন্তু জন্ম নেয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই শিশুটি চুরি হয়ে যায় ক্লিনিক থেকে। কালীগঞ্জ থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক হারাধন কুমার মহেশপুরের পুলিশের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে সীমা ক্লিনিকে জন্ম নেয়া রোজিনা খাতুনের (দু'দিনের) পুত্র সন্তানটিকে উদ্ধার করেন এবং সন্তান চুরির অপরাধে বলরামপুর গ্রামের নিঃসন্তান সবজেল হোসেনের স্ত্রী মাজেদা বেগম এবং মহেশপুর সীমা ক্লিনিকের ম্যানেজার আশাদুল ইসলামকে আটক করে জেল-হাজতে প্রেরণ করেন। এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মহেশপুর থেকে উদ্ধার হওয়া রোজিনা খাতুনের শিশুপুত্রকে কালীগঞ্জ উপজেলার বিপুলের স্ত্রী সীমার শিশুসন্তান মনে করে তার কোলে তুলে দেন। সেই থেকে শিশুটিকে নিজের সন্তান মনে করে দীর্ঘ ৮ মাস যাবত্ পরম যত্নে লালন-পালন করতে থাকেন সীমা এবং হারানো বুকের ধন ফিরে পেয়ে নাম রাখেন হারাধন। এদিকে এই ঘটনায় কালীগঞ্জ থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের হয় এবং দীর্ঘ আইনী লড়াই চলতে থাকে। একপর্যায়ে সন্তান ফিরে পেতে রোজিনা খাতুন আদালতে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য আবেদন জানান। আদালত তার মায়ের আবেদন আমলে নিয়ে বাচ্চাটির ডিএনএ পরীক্ষার নির্দেশ দেন। গতবছরের ৩০ ডিসেম্বর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ডিএনএ বিভাগ থেকে পরীক্ষার রিপোর্টে প্রমাণিত হয় শিশুপুত্রটি মহেশপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের বালিনগর গ্রামের আশরাফুল ইসলামের স্ত্রী রোজিনা খাতুনের সন্তান। এরপর আদালত হাজতে থাকা দত্তক মা মাজেদা খাতুন ও ক্লিনিক ম্যানেজার আসাদুল ইসলামের জামিন মঞ্জুর করেন। গত রবিবার ঝিনাইদহ জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালত-১-এর বিচারক পারভেজ শাহারিয়ার শিশুপুত্রকে তার প্রকৃত মায়ের কাছে ফেরত দেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। আসামিপক্ষের মামলাটি পরিচালনা করেন এ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম লাল। এদিকে রোজিনা জানান, তার ছেলেকে আর দত্তক দেবেন না। তিনি নিজেই লালন-পালন করবেন।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
বিএনপি বলেছে, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি মেনে নিলে প্রধানমন্ত্রীর আলোচনায় বসার আহ্বানে সাড়া দেবে। দলটির এই সিদ্ধান্ত যৌক্তিক বলে মনে করেন?
2 + 3 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ২৬
ফজর৫:০১
যোহর১১:৪৬
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩০
সূর্যোদয় - ৬:২০সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :