The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৩, ১০ জৈষ্ঠ্য ১৪২০, ১৩ রজব ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ অচিরেই দেশে আন্দোলন-সংগ্রামের নেতৃত্ব দেবেন তারেক : শামসুজ্জামান দুদু | ঢাকা-চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগে অতিভারী বর্ষণের আশঙ্কা | আগামী রবিবার ১৮ দলের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

আঁধার ঘরে চাঁদের আলো

ইত্তেফাক ডেস্ক

শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ)

আমার ইচ্ছা একজন বড় প্রকৌশলী হওয়ার। কিন্তু দুর্ভাগ্য আর্থিক সংকটের কারণে আমার সে আশা পূরণ হবে না। কান্নাজড়িত কণ্ঠে গোল্ডেন শিবগঞ্জের জিপিএ ৫ প্রাপ্ত মেধাবী ছাত্র মোহাঃ শরিফুল ইসলাম একথা বলে। শরিফুল এ বছরই উপজেলার বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে উপজেলায় চমক সৃষ্টি করেছে। উপজেলার পাঁকাটোলা গ্রামের হতদরিদ্র মোহাঃ বদিউজ্জামান ও মোসাঃ সাবিয়া বেগমের ছেলে শরিফুল । শুধু বসতভিটা ছাড়া জমিজমা না থাকা বদিউজ্জামান শুধু কামলা খেটে ৪ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ ৯ সদস্য বিশিষ্ট পরিবার চালিয়ে ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ যোগাতে না পারায় মা সাবিয়া বেগম গ্রামীণ ব্যাংকসহ কয়েকটি এনজিও থেকে ধার নিয়ে হাঁস-মুরগী ও ছাগল পালন করে কিস্তি দিয়ে সামান্য যা থাকে তাই দিয়ে ছেলে-মেয়েদের লেখাপড়ার খরচ যোগায়।

নীলফামারী:

দিনমজুর হওয়া সত্ত্বেও গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে মাধব রায়। সংসারের অভাব-অনটন আর দারিদ্র্যতা তাকে হার মানাতে পারেনি। সে কচুয়া চৌরঙ্গী সেরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। মাধব জানায়, মানুষের বাড়িতে দিনমজুরের কাজ করে লেখাপড়া করেছে। তার বাবার আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় নিজের পড়াশোনার খরচ তাকে নিজেকেই যোগান দিতে হয়েছে। তার এ সাফল্যে তার পরিবার, শিক্ষক, শিক্ষিকা, প্রতিবেশী সকলেই খুশি। সে বড় হয়ে প্রকৌশলী হতে চায় ।

গোল্ডেন জিপিএ পেয়েও লেখাপড়া অনিশ্চিত জীবননগরের দিনমজুর কন্যা ইয়াসমিনের। ভাল ফলাফল করে উচ্চশিক্ষা নাও হতে পারে বলে বারহাট্টার দিলরুবার। তিনবেলা পেটভরে খাবার খায়নি নান্দাইলের খায়রুন্নাহার। চাঁপাইনবাবগঞ্জের পত্রিকা এজেন্ট সেতাবউদ্দিনের পুত্র শাহ আলমের গোল্ডেন জিপিএ-৫ অর্জন। দামুড়হুদায় দিনমজুরের কন্যা বিলকিছ গোল্ডেন জিপিএ পেলেও পড়াশুনা অনিশ্চিত। এসব মেধাবী মুখের খবর তুলে ধরেছেন আমাদের প্রতিনিধি ও সংবাদদাতারা।

নেত্রকোনা

বারহাট্টা উপজেলার অজপাড়াগাঁয়ের মেয়ে দিলরুবা আক্তার। গ্রামের স্কুল থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে সবাইকে চমক লাগিয়ে দিয়েছে। দিলরুবার বাবা দুলাল মিয়া ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তা কর্মী হিসাবে চাকরি করে। মা হালিমা আক্তার গৃহিনী। অভাব-অনটনের মধ্যদিয়ে তারা মেয়েকে লেখাপড়া করিয়েছেন। কিন্তু টাকা-পয়সার অভাবে হয়তো এখন তার উচ্চশিক্ষা নাও হতে পারে। দিলরুবা জানায়, সে নেত্রকোনা সরকারি মহিলা কলেজে ভর্তি হতে চায়। এজন্য সে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পত্রিকার এজেন্ট আলহাজ্ব সেতাবউদ্দিন ও গৃহিনী মাতা নাসরিন বেগমের পুত্র শাহ আলম আহমেদ এবার বিজ্ঞান বিভাগ থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ অর্জন করেছে। ৬ ভাইবোনের মধ্যে চতুর্থ শাহ আলম পিতা-মাতা, ভাই-বোন ও শিক্ষকদের বিশেষ নজরদারিতে সে এই ফলাফল লাভ করে। পড়াশোনার ফাঁকে পিতা সেতাবউদ্দিনকে সহযোগিতা করে। আরও ভাল লেখাপড়া করে ভবিষ্যতে সে সিভিল অথবা ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার হতে চায়।

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা)

কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে জীবননগরের দিনমজুর কন্যা ইয়াসমিন আক্তারের। পিতা আক্তারুজ্জামান বাদল পরের জমিতে কামলা খেটে যা আয় করে তা দিয়ে তাদের সংসার চালানোই যেখানে দুঃসাধ্য, সেখানে ৪ ভাই-বোনের লেখাপড়ার টাকা জোগাড় করা তার জন্য দুরূহ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। পিতার আর্থিক সংগতি না থাকলেও মেধাবী ইয়াসমিন তার লেখাপড়া চালিয়ে যেতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। তবে শেষ পর্যন্ত কি ইয়াসমিন তার লেখাপড়া চালিয়ে যেতে পারবে, তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে তার পরিবার ।

নান্দাইল (ময়মনসিংহ)

সংসারের নানান অভাব আর দারিদ্র্যকে পিছনে ফেলে এবারের দাখিল পরীক্ষায় উপজেলার রসুলপুর আলিম সিনিয়র মাদ্রাসা থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে খায়রুন্নাহার। অন্যের জমিতে বাবা সালাম মোল্লা শ্রম বিক্রি করেন। আর মা জ্যোত্স্না বেগম করেন আশপাশের বাড়িতে গৃহস্থালির কাজ। মেয়ের সাফল্যে অশ্রুসিক্ত মা বলেন, তিনবেলা পেট ভরে কখনো খাওয়াতে পারিনি মেয়েটিকে। তার চাহিদামতো দিতে পারিনি বই-খাতা-কলম। মেধাবী ছাত্রী খায়রুন্নাহার কৃতিত্ব অর্জন করলেও পরবর্তী অনিশ্চয়তা নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করে ইত্তেফাককে জানায়, দরিদ্র হওয়ার কারণে কি আমার উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে না ?

দামুড়হুদা(চুয়াডাঙ্গা)

দামুড়হুদা পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের মুখ উজ্জ্বলকারী দিনমজুরের কন্যা বিলকিছ খাতুন গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েও তার পড়াশুনা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। পিতার দরিদ্রতায় তার উচ্চশিক্ষার পথ বন্ধ হয়ে যেতে পারে। বিলকিছ জানায়, আমি ডাক্তারী পড়তে আগ্রহী। এজন্য আমি ভাল কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তি হতে ইচ্ছুক। কিন্তু আমার পিতার সামর্থ্য না থাকায় সেটা হয়তো সম্ভব হবে না। মেধাবী এ ছাত্রীর উচ্চ শিক্ষা অর্জনের জন্য এলাকার বিত্তবান ব্যক্তিদের এগিয়ে আসা প্রয়োজন।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
স্থায়ী কমিটির বিবৃতিতে বিএনপি সরকারকে অনতিবিলম্বে সংলাপ আয়োজনের আহ্বান জানিয়েছে। আপনি কি মনে করেন সংলাপ দ্রুত সময়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে?
5 + 7 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুলাই - ১৩
ফজর৩:৫৩
যোহর১২:০৪
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫২
এশা৮:১৫
সূর্যোদয় - ৫:১৯সূর্যাস্ত - ০৬:৪৭
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :