The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৩, ১০ জৈষ্ঠ্য ১৪২০, ১৩ রজব ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ অচিরেই দেশে আন্দোলন-সংগ্রামের নেতৃত্ব দেবেন তারেক : শামসুজ্জামান দুদু | ঢাকা-চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগে অতিভারী বর্ষণের আশঙ্কা | আগামী রবিবার ১৮ দলের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল

চাঁই বুনে সচ্ছল রামকৃষ্ণপুরবাসী

অনল কুমার দে, শরীয়তপুর প্রতিনিধি

মাছ ধরার সবচেয়ে পুরনো ও আদি উপকরণগুলোর একটি হচ্ছে চাঁই। আর এই চাঁই বুনে (তৈরি করে) সচ্ছল হয়েছে শরীয়তপুর জেলার জাজিরা উপজেলার বড়কান্দি ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামের প্রায় সকল (৮০ ভাগ) বাসিন্দা।

রামকৃষ্ণপুর গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, এই গ্রামের ১০ বছর বয়সী শিশু থেকে শুরু করে আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা সকলে মিলে চাঁই বুনছেন। কেউ বাঁশ কাটছে, কেউ শলা তুলছে, কেউ শলা চাঁছছে আবার কেউবা ব্যস্ত চাঁই বুনা ও বাধার কাজে। ঘরের বারান্দা, উঠান, গাছের ছাঁয়ায় যে যেখানে পারে সেখানে বসেই চাঁই বুনার কাজ করছেন। রামকৃষ্ণপুর গ্রামের প্রায় ২০০টি পরিবারের মধ্যে ১ শত ৫০টি পরিবারের শিশু, নারী ও পুরুষ জড়িত চাঁই বুনার কাজে। প্রায় ২০ বছর ধরে এই গ্রামে চাঁই বানানোর কাজ চললেও ব্যাপকভাবে শুরু হয়েছে ৩/৪ বছর যাবত্।

রামকৃষ্ণপুরের আঃ রব মাদরব, লাল মিয়া মাদবর, দুলাল সরদার, তোতা মিয়া খান, মোমিন বেপারি, ঠান্ডু দেওয়ান, রিপন মাদবরসহ ২০/২৫ জন লোক বাণিজ্যিক ভিত্তিতে তাদের বাড়িতে চাঁই বুনার প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। এ সকল ব্যবসায়ী মূলধন খাটিয়ে গ্রামের সকল দরিদ্র পরিবারকে সম্পৃক্ত করেছেন চাঁই বানানোর কাজে। প্রতি সপ্তাহে এই গ্রামে ৫/৬ হাজার চাঁই উত্পাদন করা হয়। চাঁইগুলো প্রতি বৃহস্পতিবার বিক্রি হয় স্থানীয় কাজীর হাটে। জেলার চাহিদা পূরণ করে মুন্সীগঞ্জ, চাঁদপুর, মাদারীপুর, ফরিদপুর ও বরিশালের পাইকারদের কাছে বিক্রি করা হয় এই চাঁই।

চাঁই তৈরির জন্য তল্লাবাশ সবচেয়ে বেশি উপযোগী। এই বাঁশ যশোর থেকে আনা হয়। প্রতিটি বাঁশে ৬টি চাঁই হয়। প্রতি ১০০টি চাঁই বানাতে খরচ হয় ১০ হাজার টাকা। বিক্রি হয় ১৫ থেকে ১৭ হাজার টাকা। শ্রমিকরা প্যাকেজ আকারে চাঁই বানানোর কাজ করে। প্রতি শ্রমিক গড়ে দৈনিক আয় করে ২০০ টাকা। রামকৃষ্ণপুর গ্রামের বাইরেও মানিক নগর, ডুবিসায়বর ও মোল্যাকান্দি গ্রামের ৩/৪ শত লোক চাঁই বুনার ছুটা শ্রমিক হিসেবে কাজ করে । মাঘ মাস থেকে এই গ্রামে চাঁই বুনার কাজ শুরু হয়। চলে আশ্বিন মাস পর্যন্ত।

চাঁই বুনন শ্রমিক শহিদুল কাজী ও তার স্ত্রী রুজিনা বেগম বলেন, আমরা স্বামী-স্ত্রী রাত-দিন চাঁই বুনি। সপ্তাহ শেষে আমরা ৩ থেকে সাড়ে ৩ হাজার টাকা পাই। বছরের ৯ মাস চাঁই বুনার কাজ করে আমরা ভালো আছি। আমাদের সংসারে অভাব নাই।

নিলুফা বেগম (৩৮) বলেন, আমি প্রতিদিন ১০০টি করে পাড় বাধাই করি। প্রতিটিতে ২ টাকা করে পাই। রোজ ২০০ টাকা আয় করে আমি খুব সচ্ছল ভাবে দিন কাটাই।

বড়কান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম সরদার জানান, রামকৃষ্ণপুর গ্রামের চাঁই তৈরির উদ্যোক্তাদের সরকারিভাবে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা গেলে তারা আরো লাভবান হতে পারতো। এই শিল্পকে এগিয়ে নেয়ার জন্য সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সহায়তা একান্ত প্রয়োজন বলেও তিনি জানান।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
স্থায়ী কমিটির বিবৃতিতে বিএনপি সরকারকে অনতিবিলম্বে সংলাপ আয়োজনের আহ্বান জানিয়েছে। আপনি কি মনে করেন সংলাপ দ্রুত সময়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে?
1 + 1 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৩
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৮
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :