The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০১৩, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০ এবং ৪ শাবান ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ শনিবার একযোগে চার সিটি নির্বাচনে ভোট গ্রহণ | নোয়াখালীর চরে গণপিটুনিতে পাঁচ জলদস্যু নিহত | হোটেল থেকে ১০ বুয়েট শিক্ষার্থীসহ ২০ জন আটক | বরিশালে পুলিশ দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের হয়রানির অভিযোগ | নির্বাচনে জালিয়াতি হলে সরকারের প্রতি অনাস্থা:মওদুদ | কেন্দ্রগুলোতে যাচ্ছে ভোটের সরঞ্জাম

নতুন মেয়রই জাতীয় নির্বাচনের নিয়ামক?

হুমায়ূন রশিদ চৌধুরী, সিলেট অফিস

দেশের উত্তর-পূর্ব অঞ্চলে অবস্থিত সিলেট। শহরটি দেশের অন্যতম ও বৃহত্তম শহর। ঐতিহাসিক ও ভৌগোলিক কারণে এই বিভাগীয় শহরের গুরুত্ব ভিন্ন। হযরত শাহজালাল (র:) ও হযরত শাহপরাণ (র:) এর পূণ্যভূমি সিলেট। ১৭৭৮ সালে ব্রিটিশ কলেক্টর রবার্ট লিন্ডসে বর্তমান সিলেট শহরের চালিবন্দরে এসে তার লোকজনকে জিজ্ঞেস করেছিলেন শহর কোথায়। তখন এই শহর ছিল গহীন গাছ-গাছালি আর পাহাড়- টিলায় সমৃদ্ধ। তা দেখে তিনি বলেছিলেন এখানে বসবাস করা যাবে। তারপরে ১৮৮৭ সালে এই শহরে পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয় । আর এ হিসাবে সিলেট নগরীর বয়স ১৩৫ বছর।

২০০১ সালের ৯ এপ্রিল সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করা হয়। ২০০২ সালে এর কার্যক্রম শুরু হয়। জৈন্তা, খাসিয়া এবং ত্রিপুরা পাহাড় বেষ্টিত এ শহরের মধ্য দিয়ে বয়ে গেছে সুরমা নদী। এই নগরীর জনসংখ্যা দিন দিন বেড়ে বর্তমানে প্রায় ৬ লক্ষ । আর ভোটার হচ্ছে মোট ২ লক্ষ ৯১ হাজার ৪৬। এর মধ্যে পুরুষ এক লক্ষ ৫৭ হাজার ১৮১ এবং মহিলা এক লক্ষ ৩৩ হাজার ৮৬৫।

সিলেট অনেক আগে থেকেই চা বাগান এবং ক্রান্তীয় বনজঙ্গলের জন্য পরিচিত ছিলো। তবে বর্তমানে ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্যও এটি বিশেষ পরিচিতি পাচ্ছে। বলা হয় বাংলাদেশে আর্থিকভাবে অগ্রসর এই নগরী। বিশেষ করে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত সিলেটী জনগোষ্ঠীর বিনিয়োগের মাধ্যমে নগরীতে গড়ে উঠছে বড় বড় শপিং মল, হোটেল এবং আবাসন ব্যবসা।

প্রথমদিকে সিলেট পৌরসভার আয়তন ছিলো ১০ দশমিক ৪৯ বর্গকিলোমিটার এবং ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত ওয়ার্ড ছিলো ৫টি। পরের বছরেই অর্থাত্ ১৯৯৬ সালে ওয়ার্ড সংখ্যা ১৫তে উন্নীত হয়। সাড়ে ২৬ বর্গকিলোমিটার বিস্তৃত এই নগরীতে বর্তমানে মোট ২৭টি ওয়ার্ড এবং ২১০টি মহল্লা রয়েছে। সিলেট নগরী জেলা এবং বিভাগীয় হেড কোয়ার্টার।

সিলেট পৌরসভার প্রথম পৌর চেয়ারম্যন রায় বাহাদুর দুলাল চন্দ্র সরকার এবং শেষ পৌর চেয়ারম্যান ছিলেন বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। ২০০৩ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বদর উদ্দিন আহমদ কামরান প্রথম মেয়র নির্বাচিত হন। বদর উদ্দিন কামরান ২০০৮ সালে দ্বিতীয় মেয়াদেও বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। এবারও কামরান ১৪ দল মনোনীত মেয়র প্রার্থী এবং ১৮ দলের আরিফুল হক চৌধুরীর সাথে নির্বাচনী লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়েছেন। স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসাবে সালাউদ্দিন রিমনও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে কামরান-আরিফের তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্যে রিমনকে খুঁজেও পাওয়া যায় না। বিশেষ করে এই নগরীতে দুই ওলির মাজার এবং পর্যটন এলাকা বিধায় এখানে দেশ-বিদেশের মানুষের আগমন ঘটে সারা বছর। গত কয়েক দশক থেকে এখানে যে কথাটি চালু আছে তা হচ্ছে সিলেট-১ আসনে যে দলের প্রার্থী জয়লাভ করেন তার দল সরকার গঠন করে। তাই প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়ে থাকে সিলেটে মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে।

এবার ২০১৩ সালে দেশের এক অস্থির রাজনৈতিক পরিস্থিতির মধ্যে সিলেটসহ চারটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন আগামীকাল ১৫ জুন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সিলেটে এ নির্বাচনকে ঘিরে ইতিমধ্যে যে উত্তাপ ছড়িয়েছে-তা খোদ রাজধানীতেও লেগেছে। প্রার্থী মনোনয়ন থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত দলের উচ্চ পর্যায় পর্যন্ত সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ে রয়েছেন। তাই দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের সমর্থিত প্রার্থীদের পক্ষে প্রচার-প্রচারণায় নেমেছেন দলের বাঘা-বাঘা নেতারাও । তারা যে কোন মূল্যে নিজ প্রার্থীর বিজয় চান। কারণ সম্ভবত: তারা মনে করছেন এই নির্বাচন তাদের জন্য 'চ্যালেঞ্জ' কিংবা 'প্রেসটিজ ইস্যু'। এই পবিত্র মাঠির প্রার্থীতো বটেই, তারা আরো মনে করছেন 'সিলেটের মেয়র বিজয়ে'র উপর অনেকটা রচিত হবে সামনের জাতীয় নির্বাচনের ভবিষ্যত্। সিলেট সিটি কর্পোরেশনে রয়েছে নানা ইস্যু, নানা ফ্যাক্টর।

জাতীয় রাজনৈতিক ইস্যুও এবার যোগ হয়েছে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে। সরকারের সফলতা-ব্যর্থতা, বিরোধী দলের কার্যক্রম ইত্যাদির বিশ্লেষণ হচ্ছে চুলচেরা ভাবে। হেফাজত, সংখ্যালঘু, সিলেটের বাহিরের বিভিন্ন সংগঠন, সমিতি এই নির্বাচনে বিশেষ ভূমিকায় রয়েছে। আবার কেউ কেউ বলছেন স্থানীয় নির্বাচনে 'ব্যক্তি ইমেজ' কাজ করবে। অবশ্য প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দুই মেয়র প্রার্থীর মধ্যে কামরান তার প্রতীক আনারস মার্কা নিয়ে ভোটারদের বলছেন—উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে মডেল নগরী গড়তে চাই। আর আরিফুল হক চৌধুরী তার প্রতীক টেলিভিশন মার্কা নিয়ে বলছেন: নগরীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিয়ে ছাড়া-খালকে লেকে পরিণত করে পরিবর্তিত উন্নত নগরী গড়তে চাই।

অন্যদিকে বিরোধী দলের নেতারা এ নির্বাচনে সেনাবাহিনী নিয়োগের দাবি জানিয়ে অভিযোগ করে বলেছেন যে, বর্তমান নির্বাচন কমিশন সরকার দ্বারা প্রভাবিত। তবে নির্বাচন কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাবেদ আলী সিলেটে ইত্তেফাককে বলেছেন তারা এমন একটা নির্বাচন উপহার দেবেন যাতে কেউ নির্বাচন নিয়ে কথা বলতে না পারে। তিনি আরো বলেন প্রভাবমুক্ত, অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিতে কমিশন প্রস্তুত ।

অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় স্থানীয় এ নির্বাচনের বিষয়ে সরকারও বেশ সতর্ক। কারণ এই সিটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক দলগুলো আগামীতে যেন কোন ইস্যু সৃষ্টি করতে না পারে। এদিকে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান তারা কোন চাপে নেই। পুলিশের কর্মকর্তারা বলেছেন ভোটাররা যাতে স্বাধীনভাবে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে সে জন্য নিরাপত্তাসহ সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ৫ হাজার সদস্য দায়িত্ব পালন করবে

শান্তিপূর্ণ নির্বাচন সম্পন্ন করতে সিলেটে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ৫ হাজার সদস্য দায়িত্ব পালন করবে নির্বাচনের দিন। এর মধ্যে পুলিশ ফোর্স থাকবে ৩ হাজার ২শ। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার রোকন উদদৌলা জানান, তারা ইতিমধ্যে অপরাধী, অস্ত্রধারীদের ধরতে মাঠে পুলিশ নামিয়েছেন। চিহ্নিত অপরাধীদের তালিকা অনুযায়ী তাদের ধরার চেষ্ট চলছে। নির্বাচন নির্বিঘ্ন করতে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

প্রতি কেন্দ্রে ২৫ জনের ফোর্স থাকবে। ৪টি কেন্দ্রের জন্য একটি মোবাইল টিম। চার কেন্দ্রের মধ্যখানে একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স এবং সরাক্ষণ পরিদর্শনের জন্য সিনিয়র অফিসারদের নিয়ে একটি বিশেষ টিম মাঠে থাকবে। রোকন উদদৌলা জানান এছাড়া ম্যাজিস্ট্রেট, র্যাব, বিজিবি, আনসার দায়িত্ব পালন করবে। ইতিমধ্যে বেশকিছু অবৈধ অস্ত্রও উদ্ধার হয়েছে বলে তিনি জানান। মোট ১২৭টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৪৫টি কেন্দ্রকে বেশি গুরুত্বপুর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
চার সিটি নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। আপনি কি মনে করেন এই দাবি যৌক্তিক?
2 + 8 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
অক্টোবর - ১৭
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫৩
মাগরিব৫:৩৪
এশা৬:৪৬
সূর্যোদয় - ৫:৫৭সূর্যাস্ত - ০৫:২৯
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :