The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০১৩, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০ এবং ৪ শাবান ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ শনিবার একযোগে চার সিটি নির্বাচনে ভোট গ্রহণ | নোয়াখালীর চরে গণপিটুনিতে পাঁচ জলদস্যু নিহত | হোটেল থেকে ১০ বুয়েট শিক্ষার্থীসহ ২০ জন আটক | বরিশালে পুলিশ দিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের হয়রানির অভিযোগ | নির্বাচনে জালিয়াতি হলে সরকারের প্রতি অনাস্থা:মওদুদ | কেন্দ্রগুলোতে যাচ্ছে ভোটের সরঞ্জাম

বরিশালে প্রাধান্য পাবে স্থানীয় না জাতীয় ইস্যু?

নাসিম আলী ও লিটন বাশার, বরিশাল থেকে

ব্যক্তি ইমেজে প্রবল শক্তিধর মেয়র প্রার্থী শওকত হোসেন হিরনকে মোকাবিলা করতে জাতীয়তাবাদী মেয়র প্রার্থী আহসান হাবিব কামালকে মাঠে রাখতে সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে বিএনপি। বরিশালের আরেক হেভিওয়েট নেতা বিএনপি'র স্থানীয় সংসদ সদস্য মজিবর রহমান সরোয়ারের জন্য সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচন এখন অগ্নিপরীক্ষা। সাবেক মেয়র কামালের অপেক্ষাকৃত অনুজ্জ্বল ভাবমূর্তিকে ঘষে- মেজে শেষ মুহূর্তের ভোট প্রচারণায় এমপি সরোয়ার তথা কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় বিএনপি নেতারা যেন হাঁপিয়ে উঠছেন। প্রায় ৫ বছরের মেয়র পদে হিরন বরিশালে ইতিমধ্যে আধুনিক মহানগরী গড়ার রূপকার হিসেবে সর্বমহলে স্বীকৃতি পেয়েছেন। এ সময়কালে তিনি প্রাচ্যের ভেনিস বলে খ্যাত বরিশালকে তিলোত্তমা নগরীতে পরিণত করার সাফল্যে অনেকটা আত্মবিশ্বাসী মেয়র প্রার্থী। আধুনিক বরিশালের রূপকার হিরন ভোটার ছাড়াও মহানগরীর সকল বাসিন্দা তথা বৃহত্তর বরিশালের মানুষের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্থান করে নিয়েছেন। তার উপরে সরকারি দল আওয়ামী লীগের মহানগর সভাপতি পদে আসীন থেকে সংগঠন গোছানোর ক্ষেত্রে যে পারদর্শিতার পরিচয় দিয়েছেন তাতে নিজ দলের নেতা-কর্মীদের কাছে তার অবস্থানও সুসংহত। স্বাধীনতা পরবর্তীকালে প্রথম সংসদ নির্বাচনের পর একে একে ৮টি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বরিশাল সদর আসনে কখনো এমপি পদে জিততে না পারায় যে সাংগঠনিক পশ্চাত্পদতা এ দলটিকে পেয়ে বসেছিল গত সাড়ে ৪ বছরে তা অনেকাংশে পুষিয়ে দিয়েছেন শওকত হোসেন হিরন। এ কারণে ব্যক্তিত্ব ও রাজনৈতিক নেতা হিসেবে স্বীয় গ্রহণযোগ্যতা ও অবস্থান অনেক সুদৃঢ় বলে হিরনের সমর্থকরা মনে করেন। স্থানীয় আওয়ামী লীগের প্রবীণ সংগঠক তরুণ চন্দ (৬১) ইত্তেফাককে বলেন, হিরন বরিশাল আওয়ামী লীগের অতীতের নানা শূন্যতা দূর করে দলকে শক্ত ভিত্তির উপর দাঁড় করিয়েছেন। সাধারণত মেয়র নির্বাচনে দলীয় বিবেচনার চাইতে নাগরিক সেবা তথা উন্নয়নের কথা ভেবেই ভোটাররা ভোট দেন। তাই আগামী শনিবারের বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিশেষত মেয়র পদে এই চিন্তা-চেতনা-প্রত্যাশার প্রতিফলন ঘটবে।

জাতীয়তাবাদী নাগরিক কমিটির প্রার্থী আহসান হাবিব কামাল ১৯৯১ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ এক যুগ বরিশাল পৌরসভার প্রশাসক ও চেয়ারম্যান এবং নবগঠিত সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন। যদিও ২০০৮ সালে সিটি কর্পোরেশনের দ্বিতীয় নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৩য় অবস্থানে ছিলেন। তারপরও বরিশাল পৌরসভা-সিটি কর্পোরেশনে দীর্ঘকাল নগরপিতার দায়িত্বে থেকে শহরবাসীর কাছে ব্যাপক পরিচিতি পেলেও নিজের ব্যক্তি ইমেজের ক্ষেত্রে কিছুটা পিছিয়ে আছেন। পাশাপাশি বরিশাল জেলা বিএনপি'র সভাপতিসহ স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে সক্রিয় থাকলেও দলীয় কাজে নিরবচ্ছিন্ন ছিলেন না। মাঝে দলীয় শৃংখলা ভঙ্গ করে সিটি নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হওয়ায় বেশ কিছুদিন দল থেকে বহিষ্কৃত থাকায় নেতা-কর্মীদের কাছ থেকে অনেকটা দূরে থাকতে হয়েছে তাকে। বর্তমান নির্বাচনে বিএনপি'র কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে তিনি যখন একক প্রার্থী হিসেবে মাঠে এলেন তখন থেকে এ বিচ্ছিন্নতা বহুলাংশে দূর হয়ে যায়। কর্মীদের কাছে আবার ঘনিষ্ঠ হতে আহসান হাবিব কামাল নিজে যখন পেরে উঠছিলেন না এ সময় তার নিজ দলের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বরিশাল সদর আসনের একাধিকবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য মজিবর রহমান সরোয়ার নির্বাচন পরিচালনার প্রধান সমন্বয়কারী হিসেবে দাঁড়িয়েছেন দুঃসময়ের বন্ধু। পাশে রয়েছেন আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি'র সদ্য গঠিত জেলা কমিটির আহবায়ক এবায়দুল হক চান। মেয়র পদে দলের একক প্রার্থী হওয়ার সুযোগ লাভের জন্য কামালকে বিএনপি'র জেলা কমিটির প্রধানের পদটি চানকে উপঢৌকন দিতে হয়েছে। অন্যদিকে স্থানীয় নেতা-কর্মীদের সাথে দূরত্ব ঘোচাতে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী সরোয়ার ও চানকে সাথে নিয়ে এখন কামাল শেষ মুহূর্তের নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত।

এক যুগ ধরে নগরপিতা এবং প্রায় তিন যুগ ধরে জাতীয়তাবাদী রাজনীতির নানা পর্যায়ে দায়িত্বশীল পদে থেকে আহসান হাবিব কামালকে বরিশালের সিটি মেয়র নির্বাচিত হতে যেমন দলীয় পদ ত্যাগ করতে হয়েছে, তেমনি প্রতিদ্বন্দ্বী দুই নেতার সাথে আপোষও করতে হলো। এ যেন বৃহত্তর স্বার্থের জন্য ক্ষুদ্রতর স্বার্থ ত্যাগ। পক্ষান্তরে বিএনপি'র সদর আসনের এমপি সরোয়ারকে বরিশালের জাতীয়তাবাদী রাজনীতির নানা পর্যায়ে কামালের সাথের অসংখ্য দ্বন্দ্ব-সংঘাতের দুঃসহ স্মৃতি ভুলতে মনের আগুনে ছাই চাপা দিতে হয়েছে। বরিশাল জেলা বিএনপি'র প্রভাবশালী নেতা ও আহসান হাবিব কামালের নির্বাচনী প্রচার কমিটির মিডিয়া উইংয়ের প্রধান এডভোকেট মজিবর রহমান নান্টু ইত্তেফাককে বলেন, দলীয় কোন্দল ও নেতৃত্বের অবিবেচক ভূমিকার কারণে বরিশালে বিএনপি'র তত্পরতা বেশ কয়েক বছর ধরে খুবই টানাপড়েনের মধ্য দিয়ে চলছিল। সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে সাময়িকভাবে হলেও সে অবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। কামাল দীর্ঘদিন বরিশালের নগরপিতা থাকায় মহানগরবাসীর কাছে তার পরিচিতি ব্যাপক। বিএনপি তথা জাতীয়তাবাদী শক্তি এখন ঐক্যবদ্ধ। তাই ১৫ জুনের নির্বাচনে মেয়র পদের ফল কামালের পক্ষেই যাবে বলে নান্টুর ধারণা।

বরিশালের ভোটারদের সাথে আলাপ করে দেখা গেছে এখানে স্থানীয় নির্বাচনের চরিত্র একটু একটু করে বদলে গিয়ে জাতীয় ইস্যু যেন প্রাধান্য পাচ্ছে। অনেকটা নিষ্প্রভ প্রার্থী আহসান হাবিব কামালকে মোকাবিলা করতে জাতীয় রাজনীতির চাপ সামলানো সপ্রতিভ ব্যক্তিত্ব শওকত হোসেন হিরনের জন্য এখন কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াতে পারে। বরিশাল মহানগরের ভোটাররা নির্বাচনে স্থানীয় ইস্যু না জাতীয় ইস্যুকে প্রাধান্য দেবেন তাই এখন দেখার অপেক্ষা।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
চার সিটি নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। আপনি কি মনে করেন এই দাবি যৌক্তিক?
2 + 5 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ১৫
ফজর৪:৫৪
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১২সূর্যাস্ত - ০৫:১১
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :