The Daily Ittefaq
ঢাকা, বুধবার, ০৩ জুলাই ২০১৩, ১৯ আষাঢ় ১৪২০ এবং ২৩ শাবান ১৪৩৪

সাতচল্লিশ ব্যাংকে ঋণখেলাপিসোয়া লাখের বেশি

১৩ ব্যাংকে মূলধন ও প্রভিশন ঘাটতি

ইত্তেফাক রিপোর্ট

দেশে তিন ধরনের ব্যাংকে মূলধন ও প্রভিশন ঘাটতি চলছে। বর্তমানে ১৩টি ব্যাংকে এ ঘাটতির পরিমাণ প্রায় সাড়ে ২৬ হাজার কোটি টাকা। এসব ব্যাংকের মধ্যে চারটিতে মূলধন এবং তিনটিতে প্রভিশন ঘাটতি নেই। অপরদিকে ৪৭টি ব্যাংকে ঋণ খেলাপির সংখ্যা প্রায় এক লাখ ৩০ হাজার। একদিন বিরতির পর গতকাল মঙ্গলবার বিকালে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে জাতীয় সংসদের অধিবেশন শুরু হলে টেবিলে উপস্থাপন করা প্রশ্নোত্তর পর্বে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সংসদকে এসব তথ্য জানান।

এ. কে. এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, গত অর্থ বছরের মার্চ পর্যন্ত রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংকের মূলধন ঘাটতির পরিমাণ নয় হাজার ৬৪৫ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। জনতা ব্যাংক বাদে অপর তিনটি ব্যাংকে প্রভিশন ঘাটতি সাত হাজার ৪৯৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। মূলধন ও প্রভিশন ঘাটতির দৌড়ে সবচেয়ে বেশি সোনালী ব্যাংকের যথাক্রমে পাঁচ হাজার ২৪৪ কোটি ৯৪ লাখ এবং চার হাজার ৬০৬ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।

মন্ত্রী জানান, বিশেষায়িত কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বেসিক ব্যাংক এবং বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (ডিবিবিএল) মূলধন ঘাটতি পাঁচ হাজার ৭৬৭ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। প্রভিশন ঘাটতির পরিমাণ এক হাজার ৭১২ কোটি ৫২ লাখ টাকা। তবে ডিবিবিএল-এর মূলধন এবং বেসিক ব্যাংকের প্রভিশন ঘাটতি নেই। অপরদিকে বেসরকারি পাঁচটি বাণিজ্যিক ব্যাংকের মধ্যে বাংলাদেশ কমার্স ও আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি এক হাজার ৪৯৭ কোটি ১৮ লাখ টাকা। প্রভিশন ঘাটতি রয়েছে বাংলাদেশ কমার্স, আল-আরাফাহ ইসলামী, প্রাইম ও শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের ৩৬০ কোটি ২২ লাখ টাকা। সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, বেসিক, বাংলাদেশ কৃষি এবং রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি পূরণের বিষয়টি সরকারের বিবেচনাধীন রয়েছে। এছাড়া বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে মূলধন ও প্রভিশন ঘাটতি দূর করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

অপু উকিলের লিখিত প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী জানান, গত মার্চ পর্যন্ত প্রাপ্ত হিসাবে ৪৭টি ব্যাংকে ঋণ খেলাপির সংখ্যা এক লাখ ২৮ হাজার ৭৫৮ জন। এরমধ্যে সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংকে ২৩ হাজার ৩৪৭ জন। বেসরকারি ৩০টি ব্যাংকে ঋণ খেলাপির সংখ্যা ৭৬ হাজার ৩৩১ জন। বৈদেশিক নয়টি ব্যাংকের ঋণ খেলাপি ১০ হাজার ২৫২ এবং বিশেষায়িত চারটি ব্যাংকে ১৮ হাজার ৮২৮ জন। বর্তমানে ২৬ হাজার ৫৭৯টি ঋণ খেলাপি মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

একই বিষয়ে বেগম আহমেদ নাজমীন সুলতানার প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, গত ৩১ মার্চ পর্যন্ত সরকারি ব্যাংকে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান খাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ২৪ হাজার ৪০৩ কোটি ১১ লাখ টাকা। সরকারি ব্যাংকগুলো বিভিন্ন খাতে খেলাপি ঋণ আদায় করেছে এক হাজার ৩২১ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। মো. ইসরাফিল আলমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ২০০৯ থেকে গত বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত দুই লাখ ১৭ হাজার ৯৯২ জন ঋণ গ্রহীতার চার হাজার ৬৮০ কোটি ৯৯ লাখ টাকা সুদ মওকুফ করা হয়েছে।

মো. শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানির প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, বিদায়ী অর্থ বছরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা এক লাখ ১২ হাজার ২৫৯ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিলো। গত মে মাস পর্যন্ত ১১ মাসে আয় হয়েছে ৯২ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা। অর্থাত্ লক্ষ্যমাত্রার ৮২.৭৫%।

বেগম আশরাফুন নেছা মোশারফের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর গত ৩১ মে পর্যন্ত কৃষকদের মধ্যে সকল তফসিলী ব্যাংক থেকে ৪৯ হাজার ৪২৮ কোটি ৫৮ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করেছে। এ বি এম আবুল কাসেমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, গত ৩০ জুন পর্যন্ত দেশে টিআইএন-এর সংখ্যা ৩৩ লাখ ২৫ হাজার ১৮৩। এরমধ্যে ৩১ লাখ নয় হাজার ১০৯ জন ব্যক্তি, ৮১ হাজার ৬৪৬টি কোম্পানি এবং অন্যান্য শ্রেণীর এক লাখ ৩৪ হাজার ৪২৮।

জয়নাল আবদিনের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী জানান, ১৯৯৬ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত কোন শেয়ার কেলেঙ্কারি মামলা চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হয়নি। এর কারণ হচ্ছে বিচারিক আদালতে মামলার আধিক্য, বিচারকের স্বল্পতা, বিশেষ ট্রাইব্যুনাল কিংবা হাইকোর্ট বিভাগে পৃথক বেঞ্চ না থাকা এবং বিচারিক আদালতের বিভিন্ন আদেশের বিরুদ্ধে আসামি পক্ষ থেকে উচ্চ আদালতে একাধিকবার আবেদনের প্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত থেকে স্থগিতাদেশ।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, 'গ্রামীণ ব্যাংকের কাঠামোগত পরিবর্তনের দরকার নেই।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
9 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
আগষ্ট - ১১
ফজর৪:১১
যোহর১২:০৪
আসর৪:৪০
মাগরিব৬:৩৮
এশা৭:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:৩২সূর্যাস্ত - ০৬:৩৩
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :