The Daily Ittefaq
ঢাকা, শনিবার ১২ জুলাই ২০১৪, ২৮ আষাঢ় ১৪২১, ১৩ রমজান ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ গোল্ডেন বলের জন্য মনোনীত ১০ খেলোয়াড় | গাজায় ইসরাইলি বিমান হামলায় নিহত ১৬ | ঝিনাইদহে 'বন্দুকযুদ্ধে' ২ চরমপন্থি নিহত

সিসি টিভিতে দুই কৃষ্ণাঙ্গের পিছু নেয়ার দৃশ্য

নিউইয়র্কে আওয়ামী লীগ নেতাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়

নিহতের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট

০ শহীদুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্রে নিহত আওয়ামী লীগ নেতা নজমুল ইসলামকে (৫৫) শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে হাসপাতালের ডেথ সার্টিফিকেটে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া রিপোর্টে নিহতের বাম চোখে এবং মাথায় বড় ধরনের জখমের চিহ্ন রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

গত মঙ্গলবার গভীর রাতে বাসার অদূরে নিউইয়র্কের ওজোনপার্কের আটলান্টিক অ্যাভিনিউর ৭৬ ও ৭৭ স্ট্রিটের মাঝামাঝি স্থান থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।

হত্যার রহস্য: কেন এই হত্যাকাণ্ড সেই হিসাব মেলাতে পারছে না কেউ। তবে আঞ্চলিক সংগঠন বিয়ানীবাজার সামাজিক সাংস্কৃতিক সমিতির সভাপতি আজিমুর রহমান বোরহান পুলিশের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, নজমুল ইসলামকে মুখমণ্ডলে আঘাত করার পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাস্থলের পাশের একটি সিসি টিভিতে ধারণ করা দৃশ্যে দুই কৃষ্ণাজ্ঞ যুবক নজমুল ইসলামকে ধাওয়া করতে দেখা গেছে। এসময় তিনি হাতের সেলফোনে কথা বলার চেষ্টা করছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, ওইসময় নজমুল ইসলাম প্রাণ বাঁচাতে পুলিশের সাহায্যের জন্য ৯১১ এবং একজন প্রতিবেশীকে কল করেছিলেন। তবে এ হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত বলে মনে করছেন অনেকেই। ছিনতাইকারী বা দুষ্কৃতিকারীরা হত্যাকাণ্ড ঘটালে তারা নজমুল ইসলামের মূল্যবান জিনিসপত্র বা ডলার নিয়ে যেত। কিন্তু নজমুলের কাছে থাকা কোনো কিছুই খোয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন স্বজনেরা।

স্থানীয় সময় শুক্রবার ওজোনপার্কের মসজিদে আল-আমানে জুমার নামাজের পর জানাযা শেষে নজমুল ইসলামকে নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডে ওয়াশিংটন মোমোরিয়ালের বিয়ানীবাজার সামাজিক সাংস্কৃতিক সমিতির নিজস্ব গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে। বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি জানাযায় অংশ নেন। তারা শেষবার নজমুল ইসলামকে একনজর দেখতে মসজিদে ভিড় করেন। জানাযা শুরুর আগে নজমুল ইসলামের ছেলে অনিক তার বাবার আত্মার মাগফিরাত কামনায় সকলের দোয়া প্রার্থনা করেন। এ সময় জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি বদরুল হোসেন খান সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।

একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, সম্প্রতি বাংলাদেশে বেড়াতে গিয়েছিলেন নজমুল ইসলাম। মৃত্যুর চারদিন আগে তিনি নিউইয়র্কে আসেন। মঙ্গলবার রাত ১০টায় বাসা থেকে বের হন তিনি। ভোর পাঁচটার দিকে জ্যামাইকা হাসপাতাল থেকে ফোন করে পুলিশ পরিবারকে তার মৃত্যুর খবর জানায়। পরিবারের সদস্যদের পুলিশ জানিয়েছে, ওজোনপার্কের আটলান্টিক এভিনিউ এবং ৭৬ ও ৭৭ স্ট্রিটের মাঝামাঝি স্থানে নাজমুল ইসলামের লাশ পাওয়া যায়। ঘটনাস্থল থেকে মাত্র দুই ব্লক দূরে ছিল তার বাসা। ঘটনাস্থলের কাছে জনৈক প্রতিবেশী হঠাৎ ঘরের জানালা খুললে নজমুল ইসলামকে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে দ্রুত পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ও জরুরি মেডিকেল সার্ভিসেস কর্মীরা এসে তাকে জ্যামাইকা হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখানে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চিকিৎসকের উদ্ধৃতি দিয়ে পুলিশ পরিবারকে প্রাথমিকভাবে জানিয়েছিল যে নজমুল ইসলামের মৃত্যু দুর্ঘটনাজনিত। শুক্রবার দেয়া হাসপাতালের প্রতিবেদনে নজমুল ইসলামকে হত্যা করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি জানান, রাত আড়াইটার দিকে নজমুল ইসলাম জরুরি পরিষেবার জন্য তার মোবাইল থেকে ৯১১ নম্বরে কল করেছিলেন। তার কাছে থাকা মোবাইলের কললিস্ট থেকেই পুলিশ এ বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে। আততায়ীর আক্রমণের শিকার হয়ে তিনি বাঁচার জন্য ৯১১ নম্বরে কল করেছিলেন তা এখন অনেকটা নিশ্চিত। জরুরি ৯১১ ছাড়াও ডায়াল লিস্টে আরো একটি ফোন নম্বর পেয়েছে পুলিশ। যে নম্বরে নজমুল ইসলাম মারা যাওয়ার আগে কল করেছিলেন পুলিশ পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন নম্বরটি তার একজন নিকট প্রতিবেশীর। ওই প্রতিবেশী পরে হাসপাতালে গিয়ে নজমুল ইসলামের লাশ সনাক্ত করেন।

পুলিশ রাস্তায় পার্ক করা নজমুল ইসলামের গাড়ি থেকে তার ব্যবহৃত মানিব্যাগ ও গাড়ির চাবি উদ্ধার করেছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, আততায়ীর আক্রমণ থেকে বাঁচতে তিনি গাড়ির ভেতরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। কিন্তু সেখান থেকে বাঁচতে তিনি দৌড়াচ্ছিলেন। আততায়ীরা এসময় তার পিছু ধাওয়া করছিল।

ওজোনপার্ক এলাকাটি নিউইয়র্কের অপরাধপ্রবণ এলাকার মধ্যে অন্যতম। নাজমুল ইসলাম দুর্বৃত্ত কর্তৃক হামলার শিকার হতে পারেন। এর আগে ২০০২ সালে ঢাকার দৈনিক ইনকিলাবের ফটো সাংবাদিক মিজানুর রহমান ওজোনপার্ক এলাকায় নির্মমভাবে খুন হয়েছিলেন। 'মিজান ওয়ে' নামে ওজোনপার্ক এলাকায় একটি রাস্তার নামকরণ করেছে নিউইয়র্ক সিটি কর্তৃপক্ষ।

আওয়ামী লীগ নেতা নাজমুল ইসলাম এক পুত্র ও এক কন্যা এবং মাকে নিয়ে ওজানপার্কের রিডো এভিনিউর বাসায় থাকতেন। স্ত্রীর সঙ্গে তার সম্পর্কোচ্ছেদ ছিল। বাংলাদেশে নাজমুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার চন্দ্র গ্রামে। তিনি বিয়ানীবাজারের প্রয়াত তফাজ্জল ইসলামের একমাত্র ছেলে। নাজমুল ইসলামের তিন বোনের মধ্যে দুজনই যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। আরেক বোন থাকেন যুক্তরাজ্যের লন্ডনে।

এদিকে নজমুল ইসলামের মৃত্যুর ঘটনায় বাংলাদেশি কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন ওজোনপার্কবাসীসহ প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তারা এ হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্ত ও জড়িতদের গ্রেফতারের দাবি করেছে। শুক্রবার বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠকে নজমুল হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন নিউইয়র্ক পুলিশের কর্মকর্তারা। বৈঠকে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি বদরুল হোসেন খান, সাবেক সভাপতি আজমল হোসেন কুনু, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী, বিয়ানীবাজার সামাজিক সাংস্কৃতিক সমিতির সভাপতি আজিমুর রহমান বোরহান, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি মুজিব-উর রহমান, কমিউনিটি লিডার মিসবা আবদীন, আতিকুল হক আহাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কেন এই হত্যাকাণ্ড তা নিয়ে শুক্রবার দিনভর আলোচনা ছিল বাংলাদেশি কমিউনিটিতে। বিয়ানীবাজার সামাজিক সাংস্কৃতিক সমিতির সভাপতি আজিমুর রহমান বোরহান বলেন, নজমুল ইসলাম ওজোনপার্ক তথা বাংলাদেশি কমিউনিটিতে একজন সজ্জন ব্যক্তি হিসাবে পরিচিত ছিলেন। কেন তিনি খুন হলেন তা কোনোভাবেই হিসাব মিলছে না। তিনি বলেন, নজমুল ইসলাম একজন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে বাংলাদেশি কমিউনিটির কেউ সংশ্লিষ্ট নয় তা পুলিশ অনেকটা নিশ্চিত হয়েছে। তবে তদন্তে প্রকৃত কারণ বেরিয়ে আসবে বলে মনে করেন তিনি।

জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল চৌধুরী জানান, আমেরিকার মত জায়গায় নজমুল ইসলামের মত একজন অতিপরিচিত ব্যক্তিকে নির্মমভাবে খুন করার ঘটনায় আমরা বিস্মিত হয়েছি। এ ঘটনায় আমরা শোকাহত। তিনি বলেন, 'আমরা প্রশাসনকে বলেছি, যত দ্রুত সম্ভব খুনিদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে। অন্যথায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা এই হত্যার বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ কর্মসূচি গ্রহণ করবে।'

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আকতার হোসেন এবং সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাম বলেন, 'একজন সফল রাজনীতিক ছিলেন নজমুল ইসলাম। তিনি যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে অসামান্য ভূমিকা রেখেছেন। এই মার্কিন মুল্লুকে তার মত একজন ভালো মানুষকে কেউ খুন করতে পারে এটা ভাবতেও কষ্ট লাগে।' আকতার হোসেন বলেন, 'এ ঘটনা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অবহিত করা হয়েছে। এ খবর শুনে তিনি মর্মাহত হয়েছেন।' সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ জানান, এ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে আগামী শুক্রবার জ্যাকসন হাইটসে প্রতিবাদ ও শোক সভা করবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ।

সর্বশেষ আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
আন্তঃমন্ত্রণালয়ের সভায় ঈদের আগে ৩ দিন এবং পরে ২ দিন মহাসড়কে পণ্যবাহী ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আপনি এই সিদ্ধান্ত সমর্থন করেন কি?
7 + 5 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
সেপ্টেম্বর - ২২
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :