The Daily Ittefaq
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৩, ০৯ কার্তিক ১৪২০, ১৮ জেলহজ্জ ১৪৩৪
সর্বশেষ সংবাদ শর্ত সাপেক্ষে কাল ঢাকায় সমাবেশের অনুমোতি পেয়েছে বিএনপি | চট্টগ্রামে নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে নোমানের নেতৃত্বে মিছিল | মমিনুলের শতকে শক্ত অবস্থানে বাংলাদেশ | এবার খুলনায়ও সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ | চলে গেলেন মান্না দে | কাল রাজধানীতে আওয়ামী লীগের সমাবেশ না করার সিদ্ধান্ত | তফসিল ঘোষণার আগ পর্যন্ত এই সরকার নির্বাহী ক্ষমতা প্রয়োগ করবে: তথ্যমন্ত্রী | নির্বাচনের প্রস্তুতি চূড়ান্ত, সময় মতো তফসিল:সিইসি

আরো নাজুক হচ্ছে দেশের অর্থনীতি :বিশ্বব্যাংক

ইইউ'র বাজারে জিএসপি হারানোর আশংকা

ইত্তেফাক রিপোর্ট

চলমান নানা সংকটের সাথে যুক্ত হওয়া রাজনৈতিক অস্থিরতা, তৈরি পোশাক শিল্পের সংকটসহ সবমিলিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতি আরো নাজুক পরিস্থিতির দিকে এগুচ্ছে বলে উল্লেখ করেছে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটি বলছে, রিজার্ভ ১৭ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক ছুঁলেও তা নিয়ে আত্মতুষ্টির কিছু নেই। দেশের বিনিয়োগ পরিবেশের কোন উন্নতি হয়নি। দেশের ইতিহাসে প্রথম বারের মতো কমে গেছে প্রকৃত বেসরকারি বিনিয়োগ। আর্থিক খাতের সংস্কারে অগ্রগতি হলেও এর পরিমাণ অনেক শ্লথ। তৈরি পোশাক শিল্পের বর্তমান যা অবস্থা তাতে ইউরোপের বাজারেও অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য সুবিধা (জিএসপি) হারানোর আশংকা দেখা দিয়েছে। রাজনৈতিক সংকট বাধাগ্রস্ত করছে দেশের অর্থনীতিকে।

গতকাল বুধবার ঢাকাস্থ বিশ্বব্যাংকের কার্যালয়ে সর্বশেষ 'বাংলাদেশের উন্নয়ন প্রতিবেদন' প্রকাশ করা হয়। এ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিবেদনটির বিস্তারিত তুলে ধরেন ঢাকাস্থ কার্যালয়ের শীর্ষ অর্থনীতিবিদ জাহিদ হোসেন।

সূচনা বক্তব্যে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর ইয়োহানেস জাট বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বলেন, একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন দেশের অর্থনীতিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে। তবে নির্বাচনের বছরে বিশ্বের অনেক দেশেই রাজনৈতিক অস্থিরতা দেখা যায়, বাংলাদেশও তার ব্যতিক্রম নয়। বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে তৈরি পোশাক শিল্প একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। কিন্তু এ খাত বর্তমানে সংকটে রয়েছে। সামপ্রতিক দুর্ঘটনাগুলো বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে। তিনি সতর্ক করে বলেন, যদি দ্রুত এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া না হয় তাহলে ইউরোপের বাজারেও অগ্রধিকারমূলক বাণিজ্য সুবিধা (জিএসপি) হারাতে পারে বাংলাদেশ।

দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে জাহিদ হোসেন তার উপস্থাপনায় উল্লেখ করেন, যুক্তরাষ্ট্রের জিএসপি সুবিধা বাতিল হলেও এর প্রভাব তৈরি পোশাক খাতে পড়েনি। কিন্তু ইউরোপীয় ইউনিয়ন জিএসপি বাতিল করলে এ খাতে বড় ধরনের প্রভাব পড়বে। সে ক্ষেত্রে দেশের রপ্তানি ৪ দশমকি ১ শতাংশ থেকে ৮ দশমিক ১ শতাংশ কমে যেতে পারে।

বিশ্বব্যাংকের মতে, পরিস্থিতি উত্তরণে সরকার, কারখানার মালিকসহ বিদেশি ক্রেতার মধ্যে সমন্বয় থাকতে হবে। এছাড়াও গার্মেন্ট খাতের উন্নয়নে ইউরোপ ও আমেরিকার ক্রেতারা ৫ বছরের জন্য যে উদ্যোগ ঘোষণা করেছে তাতে সরকারি সহযোগিতা করতে হবে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও বাংলাদেশের যৌথ কর্ম পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে।

জাহিদ হোসেন বলেন, শ্রমিক অসন্তোষ বন্ধ করতে শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি বর্তমান সর্বনিম্ন মজুরি তিন হাজার থেকে শ্রমিক সংগঠনগুলোর ৮ হাজার ১০০ টাকা যে প্রস্তাব তার মাঝামাঝি থাকতে হবে।

তিনি বলেন, অভ্যন্তরীণ কারণে মূল্যস্ফীতি বাড়তে পারে। তবে আন্তর্জাতিক কারণে মূল্যস্ফীতি বাড়ার শঙ্কা নেই। নির্বাচনের চাপে অর্থবছরের রাজস্ব নীতি বাস্তবায়ন কঠিন হবে। আর্থিক খাতে সুশাসন একটি বড় ঝুঁকি রয়েছে। ইতিমধ্যে রেমিট্যান্স খাতে ঋণাত্মক প্রবৃদ্ধি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতায় চলতি বছর প্রবৃদ্ধি হতে পারে ৫ দশমিক ৭ শতাংশ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৩ সালে ব্যক্তিখাতে প্রকৃত বিনিয়োগ কমেছে ১ দশমিক ২ শতাংশ। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথমবার লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তবে সঞ্চয় বেড়েছে। ফলে বেড়েছে সঞ্চয় ও বিনিয়োগের মধ্যে পার্থক্য।

তিনি বলেন, মুদ্রানীতির সতর্কতার কারণে ২০১২-১৩ অর্থবছরে গড় মূল্যস্ফীতি কমেছে। তবে মূল্যস্ফীতি কমলেও পণ্য মূল্য কমেনি। গত মাসেও মূল্যস্ফীতি ছিলো ৭.১ শতাংশ।

রাজনৈতিক অনিশ্চয়তায় প্রবৃদ্ধি কমবে

এদিকে বিবিসি বাংলা জানায়, রাজনৈতিক অনিশ্চয়তার কারণে প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৭ শতাংশে নেমে আসবে বলে উল্লেখ করেছে বিশ্বব্যাংক। বিদায়ী ২০১২-১৩ অর্থ বছরে ৬ দশমকি শূন্য ২ শতাংশ হলেও এ অর্থ বছর সরকারের প্রবৃদ্ধি লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ।

বিশ্বব্যাংক বলছে, শিল্প ও সেবা খাতে প্রবৃদ্ধি কমে যাওয়াকে তারা সামগ্রিক প্রবৃদ্ধি কমে যাবার মূল কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছেন- যা ঘটছে প্রধানত দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং আগামী নির্বাচনকে ঘিরে যে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে তার কারণে। বিশ্বব্যাংকের অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন এ বিষয়ে বলেন, নির্বাচন কীভাবে হবে, নির্বাচন পূর্ব ও পরবর্তী পরিস্থিতি কী হবে সে বিষয়ে অনিশ্চয়তা কাটছে না। ফলে, বিনিয়োগকারীরা এক ধরনের অনিশ্চয়তায় রয়েছে। বিনিয়োগ উত্পাদন ক্ষমতা বৃদ্ধি করে; কিন্তু এবছরও বিনিয়োগ স্থবিরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। অনেকে হয়তো পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবার জন্য অপেক্ষা করছেন। বিনিয়োগ না করে দেখছেন কী হয়। এর কারণে শিল্প ও সেবা খাতে উত্পাদন কমে যেতে পারে। তবে ৬% প্রবৃদ্ধি করার ক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে। হরতাল, সহিংসতা কোন স্থায়ী সমাধান হতে পারে না। এগুলো যদি কেটে যায়, যদি শন্তিপূর্ণ ও সবার জন্য গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হয় তাহলে অতীতের অভিজ্ঞতা হতে বলা যায়- প্রবৃদ্ধির শক্তি ফিরে আসবে। যদিও সরকার বলছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ হবে; কিন্তু কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে ৬ শতাংশের কাছকাছি থাকবে। জাহিদ হোসেন আরো জানান, শুধু বিশ্বব্যাংকই নয়, অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগী ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো বলছে প্রবৃদ্ধি কমে যাবে; কিন্তু তফাত্ হলো সংখ্যা নিয়ে। সকলেই বলছেন, রাজনৈতিক পরিস্থিতিই প্রবৃদ্ধি কমে যাওয়ার মূল কারণ।

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
সংসদে খালেদা জিয়ার নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের প্রস্তাব উপস্থাপন করেছে বিএনপি, আপনি কি মনে করেন সংসদ তার প্রস্তাব বিবেচনা করবে?
5 + 8 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
সেপ্টেম্বর - ২০
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫৩
আসর৪:১৬
মাগরিব৬:০১
এশা৭:১৩
সূর্যোদয় - ৫:৪৬সূর্যাস্ত - ০৫:৫৬
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :