The Daily Ittefaq
ঢাকা, শুক্রবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১২, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪১৯, ২৮ মহররম ১৪৩৪

গণতন্ত্র রক্ষায় সোচ্চার হোন

বাটেক্সপোর সমাপনী অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া

ইত্তেফাক রিপোর্ট

ব্যবসায়ীরা আর হরতাল চান না। সরকার ও বিরোধীদলকে একসাথে বসে আর কোনদিন হরতাল না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা। তবে বিরোধীদলীয় নেত্রী খালেদা জিয়া মনে করেন ভোটের অধিকার তথা গণতন্ত্র রক্ষায় তারা আন্দোলন করছেন। এই আন্দোলনে ব্যবসায়ীদেরও সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হলে ব্যবসা-বাণিজ্যের পরিবেশ তৈরি হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দে তৈরি পোশাক উত্পাদক ও রফতানিকারকদের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী বাটেক্সপো'র সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। গার্মেন্টস উত্পাদকদের সংগঠন বিজিএমইএ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।

অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ সভাপতি হরতালে উত্পাদন কাজে ক্ষতি হচ্ছে উল্লেখ করে বিরোধীদলকে উদ্দেশ করে বলেন, আপনারা আগের তুলনায় কম হরতাল দিয়েছেন এটি শুভ ইঙ্গিত। তবে আমরা আর হরতাল চাই না। সরকার আর বিরোধীদল বসে সিদ্ধান্ত নিন যে, এই দেশে আর হরতাল হবে না। এর আগে বিজিএমইএ সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানও বলেন, দেশ চালানোর অভিজ্ঞতা আপনাদেরও আছে। আপনারা জানেন হরতালে কী পরিমাণ ক্ষতি হয়। আমরা এ দেশবাসী অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি হরতাল থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য।

খালেদা জিয়া ব্যবসায়ীদের বক্তব্যের জবাবে বলেন, জাতীয় জীবনের এই সন্ধিক্ষণে আজ আপনাদেরও কিছু দেয়ার আছে। এখন আপনাদের পালা। আজ দেশে বিরাজমান নৈরাজ্যকর পরিস্থিতির অবসান, গণতন্ত্র রক্ষা, আইনের শাসন ও শান্তি প্রতিষ্ঠা এবং জনগণের ভোটাধিকার রক্ষার জনদাবি পূরণের জাতীয় আন্দোলনে আপনাদেরও নিজ নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে হবে, সোচ্চার হতে হবে। তাহলে দেশে উত্পাদন ও ব্যবসা-বিনিয়োগের সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরে আসবে।

বিদ্যুত্ গ্যাসের সরবরাহ পরিস্থিতির শোচনীয় অবস্থা, দাম বৃদ্ধি, বন্দরের অব্যবস্থাপনা, দখলদারী ও টেন্ডারবাজিসহ সরকারের নানা সমালোচনা করে তিনি বলেন, ব্যাংক বীমাসহ সকল অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানে চলছে সীমাহীন লুটতরাজ। শেয়ারবাজার লুণ্ঠন করে লক্ষ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করা হয়েছে। পথে বসেছে প্রায় ৩৩ লাখ বিনিয়োগকারী। এই অবস্থায় ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি হিসেবে আপনাদের নিশ্চুপ বসে থাকলে চলবে না। এই পরিস্থিতির পরিবর্তন না হলে শিল্প-বাণিজ্য-অর্থনীতি সব ধ্বংস হয়ে যাবে। জাতির বৃহত্তর স্বার্থে জাতীয় আন্দোলন গড়ে তোলা এখন সময়ের দাবি।

ভবিষ্যতে সুযোগ পেলে ব্যবসায়ীদের জন্য কাজ করার আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, আমরা যখনই সুযোগ পেয়েছি তখনই আপনাদের কল্যাণে, শিল্পের স্বার্থে ও শ্রমজীবী মানুষের স্বার্থে সাধ্য অনুযায়ী চেষ্টা করেছি। সমপ্রতি গণচীন ও ভারতে গিয়েও আপনাদের স্বার্থের কথা সেখানে বলেছি।

কারখানায় কমপ্লায়েন্সের (কর্ম পরিবেশ) বিষয়ে মালিকদের আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। শ্রমিকদের প্রতি আরো আন্তরিক ও দরদী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, শ্রমিকদের কাজের উপযোগী পরিবেশ নিশ্চিত না হলে এই শিল্পে ইনসাফ প্রতিষ্ঠা হবে না। বে-ইনসাফির উপর কোন কিছুই টেকসই হতে পারে না।

এছাড়া এই শিল্পে দেশি-বিদেশি চক্রের কথা উল্লেখ করে চক্রান্তের ব্যাপারে সজাগ থাকার আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেন, শ্রমিক অসন্তোষকে কাজে লাগিয়ে অনেক সময় এ খাতে নৈরাজ্য সৃষ্টি করা হয়।

অনুষ্ঠানে সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী হরতালের যৌক্তিকতা তুলে ধরতে গিয়ে বলেন, গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার রক্ষার জন্য হরতালের মত কর্মসূচি দিতে হচ্ছে। তিনি বলেন, গণতন্ত্র টিকলে অর্থনীতি টিকবে। এই জন্য ব্যবসায়ীদের ভোটের অধিকার রক্ষার আন্দোলনে যোগ দিতে হবে। ট্রেড বডি'র ভূমিকা আছে ভোটের অধিকার রক্ষার ক্ষেত্রে। এটিকে এড়িয়ে যাওয়ার উপায় নেই। এছাড়া সংসদে আলোচনার মাধ্যমে সব সমাধান হয় না উল্লেখ করে তিনি বলেন, সংসদে শুধু পাস হয়। সিদ্ধান্ত হয় সংসদের বাইরে। তিনি বলেন, সংসদে যাবো। তবে সমাধান হবে সংসদের বাইরে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ওসমান ফারুক সমপ্রতি তাজরীনের ঘটনায় বিদেশের ক্রেতাদের মধ্যে বিরূপ প্রভাব পড়েছে বলে মনে করেন। তিনি বলেন, এটাকে অশনি সংকেত হিসেবে ধরে নিতে হবে। ৪০ লাখ শ্রমিককে কী নিরাপত্তা দিচ্ছি সেটা ভেবে দেখতে হবে।

বিএনপি'র স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার কারখানায় শ্রমিকদের নিরাপত্তা ও মজুরি বাড়ানোর তাগিদ দেন।

অনুষ্ঠানে তৈরি পোশাক খাতে অবদানের জন্য উদ্যোক্তাদের পুরস্কৃত করা হয়। গতকাল সমাপনী হলেও আজ শুক্রবার বাটেক্সপো শেষ হবে।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
সংবিধানের আরেকটি সংশোধনী ছাড়া সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। নাগরিক ঐক্যের সভায় ড. কামালের এই বক্তব্য আপনি সমর্থন করেন?
3 + 6 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
অক্টোবর - ৩০
ফজর৪:৪৭
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৪
মাগরিব৫:২৪
এশা৬:৩৮
সূর্যোদয় - ৬:০৪সূর্যাস্ত - ০৫:১৯
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :