The Daily Ittefaq
ঢাকা, সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩, ০২ পৌষ ১৪২০, ১২ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে নিহত ৫ | পেট্রোল বোমায় আহত অটোরিকশা চালকের মৃত্যু | আলোচনার মাধ্যমে সংবিধানের মধ্যে থেকে নির্বাচন : হানিফ | গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলনে জনগণের বিজয় হবে : ফখরুল | পরাজিত শক্তি জাতিকে বিভক্ত করতে তত্পর : তোফায়েল | আবার ৭২ ঘণ্টার অবরোধ | সিরিরায় বিমান হামলায় নিহত ২২ | চীনের জিনজিংয়াংয়ে সংঘর্ষে ২ পুলিশসহ নিহত ১৬

আবার ৭২ ঘণ্টার অবরোধ

অনলাইন ডেস্ক

আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে ৭২ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচি দিয়েছে ১৮ দল। আজ সোমবার সন্ধ্যায় গুলশানে বিরোধী দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয় থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ ঘোষণা দেন।

নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন ও তফসিল স্থগিতের দাবিতে, ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের প্রতিবাদে কাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত এ কর্মসূচির ঘোষণা দিল ১৮ দল।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, সরকার সাজানো নির্বাচন করতে উদ্যত। গণতন্ত্রের ভুয়া লেবাস পরে গণতন্ত্রকে ধ্বংসের পথে নিয়ে যাচ্ছে তারা। তাদের কেউ ক্ষমা করবে না। সরকারের মনোনিত কর্মকর্তারা রিটার্নং অফিসারের কাজ করছেন।

এ নির্বাচনকে কানামাছির সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, নির্বাচন বাতিল করুন। নজরুল বলেন, সরকার প্রহসনের নির্বাচনের দিকে যাচ্ছে। গণদাবিতে অগ্রাহ্য করে বিরোধী দলকে বাইরে রেখে পাতানো নির্বাচনের মাধ্যমে ১৫৪ জনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত করতে যাচ্ছে। ভোটারবিহীন নির্বাচনের কথা আমরা শুনেছি। এবার অবাক বিস্ময়ে বিশ্ব দেখল প্রার্থীবিহীন নির্বাচন।

'দেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে'

দেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। নজরুল ইসলাম খান বিভিন্ন পত্র-পত্রিকার উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, সরকারের আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সহযোগিতা করার জন্য আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ-সংগঠনসমূহকে এবং স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অর্থাত্ এতোদিন অঘোষিতভাবে হলেও এবার সরকার ঘোষণা দিয়েই দলীয় বাহিনীকে বিরোধী দলের আন্দোলন দমনে মাঠে নামাচ্ছে। এর ফলে নিশ্চিতভাবেই সহিংসতা বাড়বে এবং জনগণের জান-মালের ক্ষতি বাড়বে। দেশকে গৃহযুদ্ধের মতো পরিস্থিতিতে ঠেলে দেয়ার এমন সিদ্ধান্ত শুধু হঠকারী নয় আত্মঘাতি। আমরা অবিলম্বে এই অন্যায়, অনৈতিক, হঠকারী ও বেআইনী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

নির্যাতনের চিত্র প্রচার মাধ্যমে তুলে ধরার আহবান

নজরুল ইসলাম খান বলেন, বিএনপি সরকারের আমলে গঠিত র্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন অর্থাত্ র্যাবকে বর্তমান সরকার তাদের নিজস্ব পেটোয়া বাহিনীতে পরিণত করে র্যাব-এর ভাবমূর্তি ও মর্যাদাকে ভুলুণ্ঠিত করেছে। বিরোধী নেতা-কর্মীদের হত্যা, গুম এবং অপহরণের মতো অপকর্মে নিয়োজিত করার মাধ্যমে সরকার র্যাব এর গৌরবোজ্জল ভূমিকাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। আওয়ামী শাসনামলের দীর্ঘ পাঁচ বছরে র্যাব এর দ্বারা সংঘটিত হত্যা, গুম ও অপহরণের মাত্রা বর্তমানে আরো বহু গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে র্যাব-পুলিশ কর্তৃক বিরোধী নেতা-কর্মীদের নির্মমভাবে হত্যা ও গুমের পৈশাচিক ঘটনায় আমরা তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাই, দেশ-বিদেশি প্রচার মাধ্যমের কাছে আমাদের অনুরোধ এ অমানবিক চিত্রগুলো তুলে ধরে বিপন্ন মানবতার পাশে দাঁড়ান।

'এরশাদকে নিয়ে সরকারের কুিসত নাটক'

নজরুল ইসলাম খান বলেন, এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টিকে নিয়ে সরকারের নাটক জাতির নিকট আরো একটি কুিসত অধ্যায় রচনা করল। অসুস্থতার নামে এরশাদকে হাসপাতালে ভর্ত্তি নয় বরং তাকে যে গ্রেফতার করা হয়েছে তা বিভিন্ন গণমাধ্যমে এরশাদের স্বীকারোক্তিতেই জাতি জানতে পেরেছে। একদিকে এরশাদকে হাসপাতালে বন্দী রাখা অপরদিকে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও এরশাদ পত্নীর সঙ্গে সরকারী দলের নেতাদের বৈঠকের রহস্যজাল জাতির নিকট বোধগম্য এতে আরো বোঝা যায যে, প্রহসনের নির্বাচনকে আরো বেশি সংকটাপন্ন করে তোলা হচ্ছে। গণমাধ্যমে পাতানো নির্বাচনে অংশ না নেয়ায় এরশাদের প্রকাশ্য ঘোষণা, পাশাপাশি জাতীয় পার্টির সকল প্রার্থী এরশাদের নির্দেশে মনোনয়নপত্র বাতিলের জন্য ইতিমধ্যে আবেদন করা সত্ত্বেও মনোনয়নপত্র বাতিলের আইনী বাধ্যবাধকতা না মেনে সরকারের নির্দেশে বিশেষ কিছু আসনে মনোনয়নপত্র বহাল রাখার ঘটনায় প্রকারন্তরে মনে হচ্ছে সরকারী কর্মকর্তা নয় বরং সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা স্বেচ্ছাসেবক লীগের মাঠকর্মী হিসেবে কাজ করছেন।

বিরোধীদলের ওপর নির্যাতনের বিবরণ ও নিন্দা

নজরুল ইসলাম খান বলেন,মহান বিজয় দিবসের মতো একটি আনন্দঘন দিনেও বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের ওপর সরকারের বিভিন্ন বাহিনীর নৃশংসতা থেমে নেই। লক্ষীপুর জেলার দিঘলী ইউনিয়ন বিএনপি'র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবুল এবং যুবদল নেতা সুমনসহ ৪ জনকে র্যাব অত্যন্ত নৃশংসভাবে হত্যা করেছে, সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনী সাঁড়াশি আক্রমণ চালিয়ে ৭ জন এবং নীলফামারীতে ৩ জন নেতা-কর্মীকে ইতোমধ্যে হত্যা করা হয়েছে, সেসব স্থানে শত শত নেতা-কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন বলে আমরা নিশ্চিত হয়েছি। শুধু তাই নয়, লক্ষীপুরে বিরোধী দলীয় ২ জন নেতা-কর্মীর লাশ গুম করা হয়েছে, অনুরুপভাবে সাতক্ষীরাতেও লাশ গুম করা হয়েছে বলে আমরা আশংকা করছি। কলারোয়া কৃষকদলের সভাপতি আশরাফ হোসেনসহ ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের দু'জন নেতা গুরুতর আহত হয়েছেন।

তিনি বলেছেন, এভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হামলায় বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের হত্যা ও গুরুতর জখম করা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে শত শত নেতা-কর্মীকে।

তিনি বলেন, রবিবার লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী ও নীলফামারীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকার বিরোধী দল নিধনের অংশ হিসেবে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীকে দলীয় ক্যাডারের ভূমিকায় অবতীর্ণ করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কতিপয় সদস্যকে দিয়ে নির্বিচারে ৯জন বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীকে হত্যা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আজও সাতক্ষীরা, লক্ষীপুর ও নীলফামারীতে সরকারের বিভিন্ন বাহিনী দিয়ে সন্ত্রাসী ধরার নামে নির্বিচারে বিরোধী দলীয় নেতা-কর্মীদের হত্যা করা হচ্ছে।

'সরকারের এজেন্ট দিয়ে দেশব্যাপী নাশকতা চালাচ্ছে'

আমরা দেশবাসীর উদ্দেশে বলতে চাই-এদেশের সমাজ ও রাজনীতিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি একটি বৃহত্ গণতান্ত্রিক দল। বিএনপি ও অন্যান্য গণতান্ত্রিক সংগঠনগত পাঁচ বছরে শান্তিপূর্ণভাবে যে সকল রাজনৈতিক কর্মসূচিগুলো পালন করে আসছে তার কোনটিই সরকার উস্কানি ব্যতিরেকেই বেধড়ক লাঠি চার্জ, টিয়ারশেল নিক্ষেপ ও গুলি বর্ষণ ছাড়া করতে দেয়নি। একটি গণতান্ত্রিক সভ্য সমাজে মত প্রকাশ এবং কথা বলার অধিকার সাংবিধানিকভাবে স্বীকৃত হলেও অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় এই যে, এ দেশের জনগণ সেই অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সংবাদ মাধ্যমগুলোকেও নিয়ন্ত্রণ করে সমস্ত ঘটনার দায় বিরোধী দলের ওপর চাপানো হচ্ছে। প্রবীন সাংবাদিক শফিক রেহমানের বাড়ির সম্মুখে পেট্টোল বোমা নিক্ষেপ, দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকা অফিসে বোমা ও গুলি বর্ষণে ঘটনা ঘটেছে। অপর দিকে সরকার তাদের বিভিন্ন বাহিনী ও এজেন্ট দিয়ে দেশব্যাপী নাশকতা চালিয়ে বিরোধী দলের ওপর দোষারোপ করার অপচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। আজ দেশের প্রায় সব জাতীয় দৈনিকে এসব নাশকতার ঘটনায় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের জড়িত থাকার খবর প্রকাশিত হয়েছে। নোয়াখালীতে বিচারপতির বাসভবনে পেট্রোল বোমা হামলার ঘটনায় তিন ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী আটক হয়েছে। তাছাড়া, সাতক্ষীরায় সংখ্যালঘু সমপ্রদায়ের দু'টি বাড়িঘর পুড়িয়ে পালানোর সময় যুবলীগ নেতা আবদুল গফফারকে হাতে-নাতে আটক করা হয়। আবদুল গফফর জানিয়েছে-স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার নির্দেশে সে হিন্দু সমপ্রদায়ের মানুষদের বাড়িতে আগুন লাগায়। আবদুল গফফার এই ঘটনার সাথে আরো তিনজনের জড়িত থাকার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। ইতোপূর্বে বিভিন্ন নাশকতার ঘটনায় আওয়ামী যুবলীগ-ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা ধরা পড়েছে। এর মাধ্যমে সরকারের মুখোশ উন্মোচিত হচ্ছে। আমরা মহান বিজয় দিবসেও সরকারের বিভিন্নবাহিনী কর্তৃক সারাদেশে হত্যা, নির্যাতন, গ্রেফতার এবং নাশকতা মূলক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা, ধিক্কার ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। বিএনপি চেয়ারার্সন, ১৮ দলীয় জোট নেতা, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে সরকারের বিভিন্ন বাহিনীর হাতে নিহতদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর হাতে গ্রেফতারকৃত নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তি ও নিখোঁজ নেতা-কর্মীদের জনসমুক্ষে হাজির করারও জোর দাবি জানাচ্ছি।

'গুলি চালিয়ে পাখির মত মানুষ মারছে'

নজরুল ইসলাম খান বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই আমরা জনগণের ভোটের অধিকার নিশ্চিত করার জন্য শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করে আসছি। দেশের বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণ, সরকারি দল ও তাদের কয়েকটি আর্শিবাদপুষ্ট দল ছাড়া দেশের সবগুলো রাজনৈতিক দল-এমন কি মহাজোটের অন্তর্ভূক্ত কয়েকটি উল্লেখযোগ্য দল, দেশের সকল শ্রেণী-পেশার সংগঠন এবং বরেণ্য ব্যক্তিবর্গের সাথে আমরাও চেয়েছি অবাধ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ ও সকলের অংশগ্রহণে একটি অর্থবহ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদের নির্বাচন। কিন্তু সরকার নিশ্চিত পরাজয়ের ভয়ে জনগণের দাবি না মেনে আন্দোলনে রত জনগণের উপর নিষ্ঠুর-নির্মম অত্যাচার চালাচ্ছে। গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক তত্পরতার পথ রুদ্ধ করে দিয়েছে। গায়ের জোরে ক্ষমতায় চিরস্থায়ী হওয়ার লক্ষ্যে সংবিধান সংশোধন করে সংসদ ও সরকার বহাল রেখে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পথ বন্ধ করে দিয়েছে। সভা, সমাবেশ, মিছিলে গুলি চালিয়ে পাখির মত মানুষ মারছে (এমন কি পাখি মারাও আইনত নিষিদ্ধ)। জনতার আন্দোলনকে স্তব্ধ করার জন্য স্বৈরাচারী সরকার রাষ্ট্রীয় বাহিনীসমূহকে দলীয় বাহিনী, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান সমূহকে দলীয় প্রতিষ্ঠান এবং রাষ্ট্রীয় ক্ষমতাকে দলীয় সংকীর্ণ স্বার্থে ব্যবহার করে দেশকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিয়েছে।

এর আগে গত তিন সপ্তাহে তিন দফা অবরোধ করেছে ১৮ দল। তফসিল ঘোষণার প্রতিবাদে ২৬ নভেম্বর সকাল ৬টা থেকে ২৯ নভেম্বর ভোর ৫টা পর্যন্ত টানা ৭১ ঘণ্টার অবরোধ ডেকেছিল বিএনপির নেতৃত্বাধীন এ জোট। গত ৩০ নভেম্বর সকাল ছয়টা থেকে ৩ ডিসেম্বর সকাল ছয়টা পর্যন্ত ৭২ ঘণ্টার অবরোধ ডাকে তারা। পরে সেটি বাড়িয়ে ৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত করা হয়। তফসিল প্রত্যাহার ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে গত ৭ ডিসেম্বর শনিবার ভোর ৬টা থেকে ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত টানা ৬ দিন অবরোধ কর্মসূচি পালন করে ১৮ দল।

সর্বশেষ আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. নাসিম বলেছেন, 'বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হওয়া সুখবর না হলেও সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে নির্বাচন করতে হচ্ছে'। আপনিও কি তাই মনে করেন?
7 + 6 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ২১
ফজর৪:৫৮
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৭সূর্যাস্ত - ০৫:১০
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :