The Daily Ittefaq
ঢাকা, সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩, ০২ পৌষ ১৪২০, ১২ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে নিহত ৫ | পেট্রোল বোমায় আহত অটোরিকশা চালকের মৃত্যু | আলোচনার মাধ্যমে সংবিধানের মধ্যে থেকে নির্বাচন : হানিফ | গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলনে জনগণের বিজয় হবে : ফখরুল | পরাজিত শক্তি জাতিকে বিভক্ত করতে তত্পর : তোফায়েল | আবার ৭২ ঘণ্টার অবরোধ | সিরিরায় বিমান হামলায় নিহত ২২ | চীনের জিনজিংয়াংয়ে সংঘর্ষে ২ পুলিশসহ নিহত ১৬

আলোকপাত

যুদ্ধ-জয়ের মাসে বিজয়ের বীজ

এএইচএম নোমান

নির্বাচন প্রশ্নে দেশজুড়ে চলছে হিংসা, বিদ্বেষ, অনাস্থা, জিঘাংসা, খুনাখুনি, সম্পদ ধ্বংস। অজ্ঞাত স্থান থেকে ভিডিও টেপে গণতন্ত্র ও অধিকার আদায় আন্দোলনের নির্দেশ-আহবান আসছে। অপরদিকে আওয়ামী লীগ জ্ঞাত তথা সরকারি অবস্থানে বসে ক্ষমতা চালিয়ে সংবিধান সমুন্নত রাখার প্রচেষ্টায় লিপ্ত। 'রাষ্ট্র শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই চলে না', ইত্তেফাকের ১২ ডিসেম্বর'১৩ এর সমপাদকীয় এবং একই দিনে দি ডেইলী স্টার এ They Talk Twice, Agree to Nothing শিরোনামে লীড নিউজ, আরো এমন সব পত্রিকা বা লোকেরা এভাবেই হয়ত দেখবে। আসলে বিষয়টি হলো আমাদের, বাংলাদেশের- বাংলাদেশীয়দের। এখানে বাইরের কেউই কোনদিন কিছু করতে পারবে না, পারে না এবং এতে স্বকীয়তাও থাকে না। যেমনটি মুক্তিযুদ্ধের সময় আমেরিকা এবং চীন বৃহত্ শক্তিশালীরাও আমাদের বিরোধিতা করেছিল, তাতে কি হয়েছে, সবারই জানা। তাই এখনও আমরা আমাদেরই স্ব পথে থাকতে হবে। ইতিহাস আমরাই গড়েছি। ৫২' ৬২' ৬৬' ৬৯' ৭০' ও ৭১' সবই স্বকীয়তার ও রক্ত দিয়ে পথ চলা ও গড়া। দুঃখ হলো হোঁচট, পিচ্ছিল ও নিষ্কণ্টক যেতে পারছি না। শান্তিতে যেতে পাচ্ছি না।

এখন বোধ হয় সময় এসেছে মূল ধারার সঙ্গে আপোষ বা অপেক্ষা না করা। সাহস রাখা, সত্ পথ ও মতে চলা। নীতিতে বাঁধতে হবে, দুর্নীতিকে অবশ্যই রুখতে হবে। গণতন্ত্রকে ক্ষমতার না করে, জনতার গণতন্ত্রের রাজনীতি করা। গত ১০ ডিসেম্বর বিশ্ব মানবাধিকার দিবসে, 'বাংলাদেশ মানবাধিকার সমন্বয় পরিষদ' 'ক্ষমতার নয়, জনতার রাজনীতি চাই'। সংঘাতের এডহকইজম নয়, শান্তির জন্য দীর্ঘমেয়াদী সমাধানে, 'সার্বজনীন নির্বাচন তত্ত্বাবধায়ক পরিষদ চাই-সানিতপ', শীর্ষক ব্যানারে মানববন্ধন করেছে। তাই সকল দলের প্রতি আবেদন থাকবে, সহিংস সংঘর্ষপূর্ণ খণ্ডিত সমাধানে না গিয়ে ১. দীর্ঘমেয়াদী স্ব-স্ব দলের মতের ও আদর্শের নির্বাচনী ইশতেহারসহ 'সানিতপ' গঠন করার রায় নিয়ে ভবিষ্যতে একটি সুষ্ঠু, স্বচ্ছ ও সকলের অংশগ্রহণের নির্বাচন করা। নির্বাচন কমিশনকে আরো শক্তিশালী ও নির্ভীক করি। সহায়ক সংগঠন হিসাবে দীর্ঘমেয়াদী পরস্পর সম্মান, আস্থা ও বিশ্বাসের স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা চালু করি। ভোটকেন্দ্র কেন্দ্রিক, আসন ভিত্তিক, জাতীয় পর্যায় পর্যন্ত, নির্বাচন কমিশনের সহায়ক শক্তি হিসাবে সকল দল, জনে পরস্পর জবাবদিহিতায় থাকি। পদ্ধতিতে স্বচ্ছ ও ঢাকামুখীর পরিবর্তে ভোটারমুখী রাজনীতি উন্নয়নে চর্চার কাজ করি। ২. একই সঙ্গে পথ রচনা করি, আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে 'দারিদ্র্য বিমোচনকে' শিরোনামে এনে 'মা' কেন্দ্রিক স্বপ্ন প্যাকেজ বাস্তবায়নে জনগণের গণতন্ত্র বিনির্মাণ করি। জনগণই সকল ক্ষমতার উত্স, কথা ও কাজে বাস্তবায়নে প্রমাণ করি এবং তা আদর্শিক রাজনীতিকরাই করতে হবে, কেননা দেশ তারাই পরিচালনা করবে। গরিবি, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার এক সাথে চলতে পারে না। মৌলিক অধিকার সাংবিধানিক অধিকার। তা আগে নিশ্চিত করতে হবে। সুষ্ঠু ও সঠিক রাজনীতিই গরিবি হটানো ও আসল গণতন্ত্রের ধারক ও বাহক অন্য সবই ত্রাস, সন্ত্রাস, জ্বালাও, পোড়াও, খুন-খারাবী, ক্ষমতা, গুম, হত্যা, লুটপাট, বিচারকদের বাড়িতে আগুন, এসব থেকে আমাদের উিরয়ে উঠতেই হবে। শান্তির পায়রা উড়াতেই হবে। এর জন্য যদি সাংঘর্ষিক কিছু এসেই যায় তা প্রতিরোধ করতে হবে, প্রতিশোধের পথে নয়। প্রতিরোধকের পথও এগিয়ে নিতে হবে। তাহলেই ক্ষমতার নয় জনতার রাজনীতি প্রতিষ্ঠিত হবে।

যেমনটি দেখছি ৫ জানুয়ারি'১৪ নির্বাচন হয়েই যাচ্ছে হয়ত। Togetherness of politics and development আমাদের করতেই হবে। ইতোমধ্যে ১২ তারিখ রাতে মানবতা বিরোধী কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর এবং তাকে ফরিদপুরের আমিরাবাদ গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়। একই দিন অব্যবহিত পরেই নির্বাচনী অসুস্থতার (?) কারণে র্যাবের তত্ত্বাবধানে সামরিক হাসপাতালে জাতীয় পার্টি প্রধান এরশাদকে চিকিত্সা বিছানায় রাখা হয়। এদিকে মিডিয়ান্তরে খালেদা জিয়া নির্দিষ্ট করে ভারতকে এবং সাধারণভাবে বিশ্বের সকল দেশের প্রতি বাংলাদেশের জনগণের মনোভাব বুঝে বর্তমান সংকট উত্তরণের সহযোগিতার আহবান জানিয়েছেন। তৃতীয় দিকে জামায়াত-শিবিরের ক্ষোভ-রোষ-তাণ্ডব। কাদের মোল্লার ফাঁসি কার্যকর হওয়ায়, গণজাগরণ মঞ্চ এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা পেয়েছে। তরুণদের ৬ দফার মধ্যে দুর্নীতি প্রতিরোধের কোন কৌশল মিছিল পদক্ষেপ যাতে থাকে তা কামনা করে আমজনতা। এতোসব মানুষ সৃষ্ট দুর্যোগের মধ্যে এই বিজয়ের মাসে রাজনীতিকরাই একটা পথ তৈরি করবেন। যাতে সকল দেশবাসী শান্তির পথে চলা শুরু করবে। পুনঃ বীজ রোপিত হবে ন্যায্যতা ও সাম্যতার গরিবহীন গণতন্ত্রের, অংকুরিত হবে শান্তির বাংলাদেশের চারা-গাছ, দিবে ফল, যা পাবে সবজন।

তবে সকলের মূল দৃষ্টি প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী দলীয় নেত্রীকে কেন্দ্র করেই। তাদের কথাবার্তা, গতিবিধি আদেশ-নির্দেশ ইশারার দিকে। দূরদৃষ্টিসম্পন্নভাবে এগিয়ে গেলে সত্য চেতনা প্রতিষ্ঠিত হবে। ধ্বংস থেকেই সৃষ্টির উদ্ভব হয়। আল্লাহও সহায় হবেন। দুনিয়াবাসীকে শির উঁচু করে বলবো, আমরাই পারি শান্তির পথ দেখাতে, নিজের পায়ে দাঁড়াতে।

 লেখক : উন্নয়ন ও মানবাধিকার সংগঠক এবং

গুসি আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার ২০১৩ লরিয়েট

font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. নাসিম বলেছেন, 'বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হওয়া সুখবর না হলেও সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতার কারণে নির্বাচন করতে হচ্ছে'। আপনিও কি তাই মনে করেন?
5 + 8 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
জুন - ২৬
ফজর৩:৪৫
যোহর১২:০১
আসর৪:৪১
মাগরিব৬:৫২
এশা৮:১৭
সূর্যোদয় - ৫:১৩সূর্যাস্ত - ০৬:৪৭
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :