The Daily Ittefaq
ঢাকা, সোমবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৩, ১৬ পৌষ ১৪২০, ২৬ সফর ১৪৩৫
সর্বশেষ সংবাদ শমসের মবিন চৌধুরী আটক | বুধবার সকাল ছয়টা থেকে লাগাতার অবরোধের ডাক ১৮ দলের | কাল ব্যাংক ও পুঁজিবাজার বন্ধ | বিএনপি নেতা শমসের মবিন চৌধুরী আটক | ২ দিনের রিমান্ডে হাফিজ | বিরোধী দলের আন্দোলনের মূল লক্ষ্য মানুষ হত্যা: প্রধানমন্ত্রী | ছাড়া পেলেন সেলিমা হীরা হালিমা | ৩১ ডিসেম্বর রাতে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ : ডিএমপি | রাজশাহীতে ৪৪টি তাজা ককটেল ও সাড়ে ৪ কেজি গানপাউডার উদ্ধার | মোহাম্মদপুরে ২০০ হাতবোমাসহ আটক ৩ | প্রাথমিকে পাস ৯৮.৫৮

আন্তর্জাতিক ২০১৩

আলোচিত ১০ নারী

আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও বছরটি ছিল সমান আলোচিত। নারীদের খাতায় এই বছর যোগ হয় কিছু নতুন প্রাপ্তি— ব্রাজিলের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হয়ে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন দিলমা রউসেফ। তৃতীয় মেয়াদে জার্মানির চ্যান্সেলর হয়েছেন অ্যাঞ্জেলা মারকেল। রক্ষণশীল সৌদি আরবের মেয়ে রাহা মোহাররক এভারেস্ট চূড়ায় উঠেছেন। আর পাকিস্তানের সাহসী কন্যা মালালা ইউসুফজাই তালেবানদের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে নারী শিক্ষার কথা বলেছেন। এসব নারীদের নিয়ে লিখেছেন— বারেক কায়সার, শাহান শাহরিয়র, মীর রায়হান মাসুদ, সারারা মুশাররাত তূর্ণা

সোনিয়া গান্ধী

শুধু ভারতের না, সমগ্র উপমহাদেশ তথা এশিয়ার রাজনীতির অন্যতম সেরা চরিত্র সোনিয়া গান্ধী। একই বছর ব্রাসেলস ইউনিভার্সিটি থেকে তাঁকে সম্মানসূচক ডক্টরেট দেয়া হয়। ভারতীয় এই নেত্রী ১৯৪৬ সালের ৬ ডিসেম্বর ইতালিতে জন্মগ্রহণ করেন। সোনিয়া গান্ধী ভারতীয় ন্যাশনাল কংগ্রেসের বর্তমান প্রেসিডেন্ট। ১৯৬৫ সালে ব্রিটেনের ক্যামব্রিজে রাজীব গান্ধীর সাথে দেখা হয় সোনিয়ার। পরে তিন বছরের প্রণয় শেষে তারা বিয়ে করেন। তাদের একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে। ছেলে রাহুল গান্ধী বর্তমান ভারতের অন্যতম রাজনীতিবিদ। ১৯৯১ সালে রাজীব আততায়ীর গুলিতে নিহত হলে, কংগ্রেস থেকে সোনিয়াকে আহ্বান করা হয় নেতৃত্ব দেবার জন্য। অবশেষে ১৯৯৭ সালে সোনিয়া সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নেন ও ১৯৯৮ সালে কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট হন। সোনিয়া একমাত্র ব্যক্তি হিসেবে টানা ১০ বছর কংগ্রেসের নেতৃত্ব দেন। ২০০৪ সালে সোনিয়া প্রধানমন্ত্রী হতে অস্বীকৃতি জানায়, তারপরেও লোকসভা নির্বাচনে ২০০৪ ও ২০০৯ সালে নির্বাচিত হন। বেশ কয়েকটি শীর্ষস্থানীয় ম্যাগাজিন ও পত্রিকায় সোনিয়া গান্ধী সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব ও অনুপ্রেরণাদায়ী নারী হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন। ২০০৬ সালে বেলজিয়াম সরকার সোনিয়া গান্ধীকে অর্ডার অফ কিং লিওপল্ড উপাধিতে ভূষিত করে।

০০০

অ্যাঞ্জেলা মারকেল

অ্যাঞ্জেলা মারকেল। তৃতীয় মেয়াদে চ্যান্সেলর পদে নির্বাচিত হওয়া জার্মানির প্রথম নারী। এর আগে জার্মান ইতিহাসে তিন বা ততোধিকবার চ্যান্সেলর পদে নির্বাচিত হওয়ার নজির ছিল কনরাড আডেনাওয়ার এবং হেলমুট কোলের। ১৯৫৩ সালের ১৭ জুলাই জন্ম নেয়া মারকেলের পড়াশোনার বিষয় ছিল পদার্থবিজ্ঞান। শিক্ষাজীবনে রাশিয়ান ভাষা ও গণিতে বিশেষ পারদর্শিতার জন্য বাগিয়ে নেন বেশ কিছু পুরস্কার। পরবর্তীতে কোয়ান্টাম রসায়নের উপর করা থিসিসের ভিত্তিতে অর্জন করেন ডক্টরেট ডিগ্রী। আর সেই সাথে চলতে থাকে বিভিন্ন পত্রিকায় তাঁর গবেষণা ভিত্তিক লেখালেখির কাজও।

২০০০ সালে খ্রিস্টান ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নের (সিডিইউ) প্রথম নারী সভানেত্রী হিসেবে তাঁর পদার্পণ ঘটে। এর আগে এই দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বেও নিয়োজিত ছিলেন তিনি। ২০১২ সালে ফোর্বস ম্যাগাজিন তাঁকে বিশ্বের দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি হিসেবে ঘোষণা করে যা এখনও পর্যন্ত ফোর্বস ম্যাগাজিনের হিসেবে নারীদের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ অর্জন। ফোনে আড়িপাতা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামার কাছে ব্যাখ্যা চেয়ে এবছর আবারো নতুন আলোচনার ঝড় তোলেন মারকেল। আর টানা তিনবারের মত চ্যান্সেলর নির্বাচিত হয়ে জার্মানি তথা গোটা ইউরোপের রাজনীতিতে ভিন্ন উচ্চতায় আসীন হন এই নারী রাজনীতিক। সাবেক পূর্ব জার্মান প্রোটেস্ট্যান্ট যাজকের মেয়ে মারকেল ২০০৫ সালে প্রথম ক্ষমতায় আসার পর দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করেছেন। সেই সঙ্গে শ্রমবাজারকে গতিশীল করে তুলতে তাঁর বেশ কিছু পদক্ষেপ ছিল প্রশংসনীয়। তার নমনীয় 'ধাপের পর ধাপ' নীতি বিদেশে সমালোচিত হলেও দেশের ভেতরে অনেকেই এ নীতিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।

০০০

হিলারি ক্লিনটন

হিলারি রডহ্যাম ক্লিনটন। বারাক ওবামার অধীনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৬৭তম পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে ২০০৯ সালে কাজ শুরু করা এই মহীয়সী নারী সম্ভবত বিশ্ব দরবারে বেশি পরিচিত সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের স্ত্রী হিসেবে। হিলারির জন্ম শিকাগোতে, ১৯৪৭ সালের ২৬ অক্টোবর। পড়াশোনা চলাকালীন সময় থেকেই প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন হিলারি। ১৯৭৩ সালে ইয়ালে 'ল' স্কুল থেকে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। এখানে পড়ার সময়েই পরিচয় হয় বিল ক্লিনটনের সাথে। পরিচয়ের দু'বছর পড় ১৯৭৫ সালে ক্লিনটনের সাথে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন হিলারি। ১৯৮০ সালে ঘর আলো করে জন্ম নেন তার একমাত্র সন্তান চেলসি ক্লিনটন। ক্লিনটনের মতই একসময় নিজেও রাজনীতিতে জড়িয়ে যান সক্রিয় ভাবেই। ২০০৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বারাক ওবামার অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্ব্বী ছিলেন। বর্তমানে হিলারি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেটিক পার্টির সদস্য। একই সাথে নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের প্রতিনিধি হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভার সিনেটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। মার্কিন প্রভাবশালী টিভি ব্যক্তিত্ব, প্রখ্যাত সাংবাদিক বার্বার ওয়ালটার হিলারি ক্লিনটনকে ২০১৩ সালের সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয়, অনুসরণীয় ও চিত্তহারী ব্যক্তি হিসেবে অভিহিত করেছেন। ২০১৬ সালে পুনরায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচনের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছেন কিনা সে ব্যাপারে সবার যথেষ্ট কৌতূহল থাকলেও তা নিয়ে এখনই মুখ খুলতে রাজি নন সাবেক এই মার্কিন ফার্স্ট লেডি।

০০০

টেইলর সুইফট

সুরেলা কণ্ঠ আর দারুণ গায়কীতে আগেই বিশ্বজুড়ে শ্রোতাদের মন জয় করা টেইলর সুইফটের জয় যাত্রা অব্যাহত ছিল এ বছরেও। ২০০৮ সালে সেরা নবাগতা গায়িকা হিসেবে গ্র্যামি জেতা টেইলর এবছর আলোচনায় ছিলেন গত বছর মুক্তি পাওয়া অ্যালবাম 'রেড' দিয়ে। আর এই অ্যালবামটি সঙ্গীতশিল্পীর পরিচয়ের পাশাপাশি তাকে এনে দিয়েছে গীতিকার পরিচয়ও। অ্যালবামের ষোলটি গানের নয়টিই লিখেছেন টেইলর। রোলিং স্টোনস বলছে গীতিকার হিসেবে দারুণ কিছু করার পথেই হাঁটছেন টেইলর। মিশ্র ঘরানার এই অ্যালবামকে এমটিভির মতো বিখ্যাত চ্যানেলগুলোও আখ্যায়িত করেছে বছরের অন্যতম সেরা অ্যালবাম হিসেবে। টেইলরের ক্যারিয়ারের চতুর্থ একক অ্যালবামটি মুক্তির প্রথম সপ্তাহে শুধু আমেরিকায় বিকিয়েছে প্রায় বার লাখ কপি। আর বিশ্বব্যাপী সেটা ছিল বিশ লাখেরও বেশী। উদ্বোধনী সপ্তাহের হিসেবে এটি ছিল গত এক দশকে আমেরিকার মধ্যে সর্বোচ্চ। অ্যালবামের উই আর নেভার এভার গেটিং ব্যাক এবং আই নিউ ইউ ওয়্যার ট্রাবল গানগুলো বছর জুড়েই ছিল শ্রোতাদের মুখে। অ্যালবামের গানগুলো নিয়ে বিশ্বের বড় বড় শহরগুলোতে মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যস্ত ছিলেন টেইলর। যা কিনা তাকে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বছরের সবচেয়ে আলোচিত গায়িকার তালিকায় রেখেছে শীর্ষে।

০০০

মালালা ইউসুফজাই

গত কয়েক বছরে নারীদের শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা আর প্রসার নিয়ে যে সব নারী সোচ্চার ছিল তাদের মধ্যে একজন হচ্ছে পাকিস্তানি কিশোরী মালালা ইউসুফজাই। পাকিস্তানের সোয়াত উপত্যকার মেয়ে মালালা। নারী শিক্ষার বিরুদ্ধে তালেবানদের অবস্থান নিয়ে সদা সোচ্চার। ১১ বছর বয়সে বিবিসি ব্লগে এ নিয়ে লিখে নজর কেড়েছিল সবার। এ কারণে তালেবানরা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছিল। মালালা ভয় না পেয়ে মেয়েদের লেখাপড়ার পক্ষে কথা বলে গেছেন প্রকাশ্যে। আর তাই ১৬ বছর বয়সী মেয়েকে ২০১২ সালের অক্টোবরে জঙ্গিরা স্কুলবাসে উঠে মাথায় গুলি করে। পরবর্তী সময়ে ইংল্যান্ডে চিকিত্সা গ্রহণ করে সুস্থ হয়ে ওঠেন তিনি। মালালা ব্রিটেনের সবচেয়ে প্রভাবশালী এশিয়ান হিসেবে ২০১৩ সালে জিজি এ্যাওয়ার্ড লাভ করে। চলতি বছরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা মালালার সাথে সপরিবারে দেখা করেন। এই বছরের ডিসেম্বরে মালালা জাতিসংঘের মানবাধিকার পুরস্কার পেয়েছেন। ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেয়া শাখারভ মানবাধিকার পুরস্কারও পেয়েছেন মালালা। এই বছর মালালা আত্মজীবনীমূলক বই 'আই এম মালালা' প্রকাশিত হয়। জাতিসংঘ প্রতি বছর ১২ জুলাই মালালা দিবস হিসেবে পালনের ঘোষণা দিয়েছে।

০০০

মিশেল ওবামা

বিশ্বের অন্যতম ক্ষমতাবান নারীর মধ্যে মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামার অবস্থান চতুর্থ। মিশেল ওবামা ১৯৬৪ সালের ১৭ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি শিকাগো পাবলিক স্কুলে লেখাপড়া করেন। এরপর প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটিতে সমাজ বিজ্ঞান বিষয়ে লেখাপড়া করেন। এরপর হার্ভার্ড ল স্কুলে আইন পড়া শেষে শিকাগো ল ফার্ম সিডলি এ্যান্ড অস্টিনে যোগদান করেন। সেখানে তিনি বারাক ওবামার দেখা পান।

১৯৯৬ সালে মিসেস ওবামা শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট সার্ভিসের একজন সহযোগী ডিন হিসেবে যোগদান করেন। ২০১০ সালে তিনি লেটস মুভ নামে একটি ক্যাম্পেইন শুরু করেন। এ ক্যাম্পেইনের আওতায় তিনি শিশুদের শৈশবে নিরাপদে বেড়ে ওঠার লক্ষ্যে সব ধরনের সহযোগিতা করার প্রতি জোর দেন। ব্যক্তিগত জীবনে মিশেল ওবামা একজন সফল মাও বটে। বিভিন্ন ধরনের জনসেবামূলক কাজে তিনি সব সময় এগিয়ে থাকেন।

০০০

দিলমা রউসেফ

বিশ্বের ক্ষমতাধর নারীর একজন দিলমা রউসেফ। তিনি ব্রাজিলের সর্বপ্রথম নারী প্রেসিডেন্ট। অর্থনীতিতে স্নাতক করা দিলমার রাজনৈতিক জীবন অত্যন্ত ঘটনাবহুল। প্রেসিডেন্ট হবার পূর্বে দিলমা ছিলেন একজন গেরিলা যোদ্ধা। এছাড়াও ছিলেন একজন অর্থনীতিবিদ এবং একজন মন্ত্রীও। নির্বাচনের কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই তিনি অংশগ্রহণ করেন। প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অত্যন্ত সাফল্যের সঙ্গে জয়লাভ করেন। ব্রাজিলের জনগণ প্রথমবারের মতো একজন নারীকে তাদের সরকার প্রধান হিসেবে নির্বাচিত করেন। প্রেসিডেন্ট হবার পূর্বে দিলমা রউসেফ ব্রাজিলের বাম রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। সে সময় তিনি ছিলেন গেরিলা যোদ্ধাও। এছাড়া তিনি প্রেসিডেন্ট লুলার দফতরে ২০০৯ সাল পর্যন্ত কাজ করেন। প্রেসিডেন্ট লুলার পরই দিলমা রউসেফ প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন। ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করে বেঁচে যাওয়া দিলমা রউসেফকে একজন সফল প্রেসিডেন্ট বলা যায়। শুধু তাই নয়, ফোর্বসের মতে বিশ্বের প্রভাবশালী নারীর মধ্যে তিনি দ্বিতীয়।

০০০

জেনিফার লরেন্স

জেনিফার লরেন্সের জন্য বছরটা শুরু হয়েছিল ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বকনিষ্ঠা অভিনেত্রী হিসেবে অ্যাকাডেমী অ্যাওয়ার্ড জেতার মাধ্যমে। আর হাঙ্গার গেমসের সিক্যুয়াল হাঙ্গার গেমস: ক্যাচিং ফায়ারের মাধ্যমে বক্স অফিসে ঝড় তোলার পর ক্রিশ্চিয়ান বেল, ব্র্যাডলি কুপারদের মতো সুপারস্টারদের সাথে আমেরিকান হ্যাসেলে অভিনয় করে বছর শেষ করেছেন তিনি। অর্থাত্ দুয়েক আগে হলিউডের পরবর্তী নারী সুপারস্টার হওয়ার যে সম্ভাবনা লরেন্স দেখিয়েছিলেন তা অনেকটাই সত্য পরিণত হয়েছে এবছরে। টেলিভিশন চ্যানেল টিবিএস এ প্রচারিত অনুষ্ঠান দ্য বিল ইংভাল শো'র মূল ভূমিকায় অভিনয় করে প্রথম আলোচনায় আসা লরেন্সের প্রথম সিনেমা গার্ডেন পার্টি মুক্তি পায় ২০০৮ সালে। এরপর টিভি শোর জনপ্রিয়তা তাকে সুযোগ পাইয়ে দেয় দ্য বার্নিং প্লেইন সিনেমায়। তবে লরেন্সের প্রথম সাফল্য আসে উইন্টারস বোন সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে। মাত্র ২০ বছর বয়সে করা এই ছবিতে তার সাবলীল অভিনয় মুগ্ধ করে সাধারন দর্শক এবং চলচ্চিত্র সমালোচকদের। ইতিহাসের তৃতীয় সর্বকনিষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে লরেন্স পান অস্কার মনোনয়ন। তবে শেষ পর্যন্ত এই পুরস্কারের মতোই অল্পের জন্য হাতছাড়া হয় বাফটা, গ্লোডেন গ্লোরূ পুরস্কারও। তবে রোমান্টিক কমেডি সিলভার লাইনিংস প্লেবুকে ব্র্যাডলি কুপারের বিপরীতে অসাধারণ অভিনয়ের সুবাদে সবাইকে চমকে দিয়ে এবছর পুরস্কার জিতেছেন ২৩ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীই।

রোমান্টিক চলচ্চিত্র তো বটেই লরেন্স নিজেকে প্রমান করেছেন অ্যাকশন সিনেমাতেও। সুজান কলিনের বেস্টসেলার দ্য হাঙ্গার গেমস অবলম্বনে নির্মিত সিনেমাটি ছিল গত বছরের অন্যতম ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র।

০০০

সেরেনা উইলিয়ামস

বয়স যত বাড়ছে সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সেরেনা উইলিয়ামসের খেলার ধারও। পরিসংখ্যান, শিরোপা সংখ্যা কিংবা আধিপত্য। যে কোন বিচারে ক্রিড়াঙ্গনে এবার সেরেনা উইলিয়ামসের তুলনা ছিলেন কেবল তিনি নিজেই। মহিলা টেনিসের সর্বকালের অন্যতম সেরা বলে বিবেচিত এই আমেরিকান ১৯৯৫ সালে পেশাদার টেনিসে আগমনের পর হয়তো তার সেরা সময়টাই কাটিয়েছেন এবছর। প্রায় অর্ধেক বয়সী প্রতিদ্বন্দিদের সাথে পাল্লা দিয়ে সেরেনা চলতি বছরেও জিতেছেন দুটি গ্র্যান্ড স্ল্যামসহ মোট ১১ টি শিরোপা। আর দুর্দান্ত এই পারফরম্যান্সের ফলাফল স্বরূপ এখন পর্যন্ত ঘোষিত বছরের সেরা নারী ক্রিড়াবিদের প্রায় সবগুলো পুরস্কারই পকেটে পুরেছেন সেরেনা। যার মধ্যে আছে এটিপির দৃষ্টিতে বছর সেরার খেতাব, বার্তা সংস্থা এপি ঘোষিত বর্ষ সেরা পুরস্কার এবং ফ্রান্সের বিখ্যাত ক্রিড়া দৈনিক লা ইকুইপের দৃষ্টিতে বছরের সেরা নারী ক্রিড়াবিদের পুরস্কার।

০০০

রাহা মোহাররক

রক্ষণশীল দেশ সৌদি আরবের এক নারী এই প্রথম বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ এভারেস্ট জয় করেছেন। এভারেস্ট জয়ী ২৫ বছরের রাহা মোহাররক দেশটির প্রথম নারী যিনি এই কৃতিত্ব দেখালেন। এভারেস্ট জয়ী সবচেয়ে কম বয়সি আরবও রাহা। সৌদি আরবের বন্দর নগরী শহর জেদ্দায় জন্ম নেয়া রাহা বর্তমানে দুবাইয়ে থাকেন। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রিও নিয়েছেন পুরুষশাসিত দেশের এই নারী। যেখানে গাড়ি চালানোর অনুমতিও নেই নারীদের। এভারেস্ট জয়ের লক্ষ্যে যাত্রা শুরুর আগেই রাহাকে অনেক বিপত্তি পাড়ি দিতে হয় বলে তার সহযোগীরা জানিয়েছেন। তারা বলছেন, রাহার পরিবারের সম্মতি লাভ করা ছিল পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ জয়ের মতোই কঠিন ব্যাপার।

এই পাতার আরো খবর -
font
অনলাইন জরিপ
আজকের প্রশ্ন
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, 'এক এগারোর কুশলিবরা আবার সক্রিয় ও সোচ্চার হয়েছেন।' আপনিও কি তাই মনে করেন?
4 + 2 =  
ফলাফল
আজকের নামাজের সময়সূচী
নভেম্বর - ৫
ফজর৫:০৬
যোহর১১:৪৯
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:২৬সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
archive
বছর : মাস :
The Daily Ittefaq
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: তাসমিমা হোসেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন। ইত্তেফাক গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে তারিন হোসেন কর্তৃক ৪০, কাওরান বাজার, ঢাকা-১২১৫ থেকে প্রকাশিত ও মুহিবুল আহসান কর্তৃক নিউ নেশন প্রিন্টিং প্রেস, কাজলারপাড়, ডেমরা রোড, ঢাকা-১২৩২ থেকে মুদ্রিত। কাওরান বাজার ফোন: পিএবিএক্স: ৭১২২৬৬০, ৮১৮৯৯৬০, বার্ত ফ্যাক্স: ৮১৮৯০১৭-৮, মফস্বল ফ্যাক্স : ৮১৮৯৩৮৪, বিজ্ঞাপন-ফোন: ৮১৮৯৯৭১, ৭১২২৬৬৪ ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭২, e-mail: [email protected], সার্কুলেশন ফ্যাক্স: ৮১৮৯৯৭৩। www.ittefaq.com.bd, e-mail: [email protected]
Copyright The Daily Ittefaq © 2014 Developed By :